ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চীনে মিটু আন্দোলনকর্মী সোফিয়া গ্রেফতার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০১৯, ৫:০৪ পিএম

চীনের শীর্ষস্থানীয় নারী অধিকার কর্মী এবং সাংবাদিক জেকিং হোয়াংকে আটক করেছে পুলিশ। চীনে মিটু ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছিল তার মাধ্যমে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি পরিচিত ছিলেন সোফিয়া নামে। বৃহস্পতিবার দক্ষিণ চীনের গুয়াংজু শহর থেকে তাকে আটক করা হয়। খবর সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।

পুলিশের দুটি সূত্র জানিয়েছে জানায়, শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এবং ঝামেলা উস্কে দেয়ার অভিযোগে তাকে এক সপ্তাহ আগে আটক করা হয়েছে। এই ধরনের অভিযোগ পুলিশ মানবাধিকার কর্মী বা সামাজিক অধিকার কর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করে। যার অপরাধে অভিযুক্ত হলে তাকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হতে পারে৷ ৩০ বছর বয়সী সোফিয়াকে বায়ুন জেলার কারাগারে রাখা হয়েছে এবং পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গেও দেখা করতে দিচ্ছে না। কর্তৃপক্ষ বেশ আগে থেকেই সোফিয়াকে কড়া নজরদারিতে রেখেছিলেন। তিনি একাডেমিক কাজে আমেরিকা, হংকং এবং তাইওয়ানে ৬ মাস অবস্থান করে গত আগস্টে চীনে ফিরে আসলে তার পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত করা হয়। গত সেপ্টেম্বরে আইন বিষয়ে পড়ার জন্য তার হংকংয়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে তাকে ভূখণ্ড ছাড়ার অনুমতি দেয়নি কর্তৃপক্ষ। গত ১৭ অক্টোবর সোফিয়াকে গুয়াংজু সিকিউরিটি ব্যুরোতে ডাকা হয় এবং অফিসিয়ালি তাকে গ্রেফতার করা হয়।

২০১৭ সালে মিটু ক্যাম্পেইন শুরুর আগে গুয়াংজু স্টেট মিডিয়ার হয়ে সাংবাদিকতা করতেন সোফিয়া। মিটু ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে নিজের কর্মস্থলে নিপীড়নের কথা সামনে নিয়ে আসেন তিনি।

তাকে দেখে আরো অনেক নারীরাই উদ্বুদ্ধ হন এবং তাদের নিপীড়িত হওয়ার ঘটনাগুলোও সামনে নিয়ে আসেন। যার ফলে বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে একাডেমিশিয়ানরা পর্যন্ত বরখাস্ত হয়েছিলেন। ২০১৭ সালে তিনি নিজ দেশে নারী সাংবাদিকদের যৌন নিপীড়িত হওয়া নিয়ে একটি জরিপ করেন। এছাড়াও একটি অনলাইন প্লাটফর্ম তৈরি করেন। যেখানে নির্যাতিতদের ডাটা সংগ্রহ করেন এবং তথ্যগুলো একে অপরকে শেয়ার করেন।

এছাড়াও সোফিয়া তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হংকংয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলনের ছবি পোস্ট করেছেন। তবে এই বিষয়টি তাকে গ্রেফতারের কারণ কিনা সেটি এখনো স্পষ্ট নয়। কারণ চীনে হংকংয়ে চলমান বিক্ষোভের বিষয়ে তথ্য প্রদান বা তথ্য ছড়ানোর ক্ষেত্রে কঠোরতা রয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন