ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ইসলামী প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন : সরকার যদি নাগরিকদের কোনো আর্থিক সুযোগ সুবিধা দেয়, তাহলে সেটা কি হালাল হবে? যেমন, প্রবাসীরা ১ লক্ষ টাকা পাঠালে, ১ লক্ষ ২ হাজার টাকা দেবে। আবার প্রবাসীরা ১ লক্ষ টাকা ডলারে সরকারী কোষাগারে রাখলে ৫ বছর পর ১ লক্ষ ৭৯ হাজার টাকা দেবে। এসব সুযোগ সুবিধা নেওয়া কি বৈধ হবে?

হাসান তারিক
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:০০ পিএম

উত্তর : প্রবাসীদের পাঠানো টাকার সাথে উৎসাহমূলক যে টাকা সরকার দেয়, তা হালাল হবে। তবে, ডলার জমা রাখার পর বাড়তি যে টাকাটা দেয়, তার নাম ও পদ্ধতি দু’টোই শরীয়তবিরোধী। সরকার ইচ্ছা করলে হালাল পদ্ধতিতে নাগরিকদের অনেক কিছুই দিতে পারে। তখন তা গ্রহন করাও হালাল হবে। আর যদি সরকার সুদী পদ্ধতিতে সুদের নামে কিছু দেয়, তাহলে তা হালাল হবে না। অতএব, গ্রাহকের কর্তব্য প্রতিটি লেনদেন বিশ্লেষন করে সম্পাদন করা। লেনদেন সামান্য পদ্ধতিগত কারণে হালাল বা হারাম হতে পারে। এজন্য নির্দিষ্ট মাসআলা বিজ্ঞ আলেম থেকে জেনে নিতে হয়। 

উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
Robin ২৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৯:০৬ এএম says : 1
আপনি বলেছেন সরকার ইচ্ছা করলে হালাল পদ্ধতিতে নাগরিকদের অনেক কিছুই দিতে পারে। তখন তা গ্রহন করাও হালাল হবে। আর যদি সরকার সুদী পদ্ধতিতে সুদের নামে কিছু দেয়, তাহলে তা হালাল হবে না। আমি আপনাকে বলবো সরকার তো কোথাও সুদি কথাটা বলেনা, তাহলে আমরা কেন সুদি ধরে নিবো? আশা করবো যে ব্যাখ্যা জনগন বুঝতে সুবিধা হবে তেমন ব্যাখ্যা দিলে উপকৃত হবো।
Total Reply(0)
শেখ পাবলু ১৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
ভালো করে বুঝিয়ে বলুন
Total Reply(0)
শেখ পাবলু ১৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
ভালো করে বুঝিয়ে বলুন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন