ঢাকা, সোমবার , ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১ পৌষ ১৪২৬, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পঞ্চগড়ে গৃহবধূ কল্পনা হত্যা মামলা স্বামী ও শাশুড়ি ৩ দিনের রিমান্ডে

পঞ্চগড় জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:২৬ পিএম

পঞ্চগড়ে চাঞ্চল্যকর গৃহবধূ কল্পনা আক্তার (২৫) হত্যা মামলায় আটক স্বামী ও শাশুড়িকে ৩ দিনের রিমান্ডে দিয়েছে আদালত। গতকাল বুধবার পঞ্চগড়ের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান শুনানী শেষে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তাদেরকে ৭ দিনের রিমান্ডে দেয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন। 

গত রোববার সকালে পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের সরদারপাড়া এলাকার মনিরুজ্জামান মনিরের বাড়ির পশ্চিম পাশে একটি ধান ক্ষেতে থেকে তার স্ত্রী কল্পনা আক্তারের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে স্বামী মনির (৩৫), শ্বশুর আব্দুল জলিল ডাক্তার (৬০) ও শাশুড়ি মনোয়ারা বেগম ময়নাকে (৫২) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আটক করে। রোববার রাতেই নিহত গৃহবধূর পিতা আব্দুল করিম বাদী হয়ে স্বামী মনির, শ্বশুর জলিল, শাশুড়ি ময়না, ননদ জেসমিন আক্তারের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরো ৩-৪ জনকে আসামি করে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। কল্পনাকে পরিকল্পিতভাবে রোববার সকাল ৮টা থেকে ১০টার মধ্যে ধারালো বটি দিয়ে জবাই করে হত্যা করা হয় বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। এ মামলায় আটক স্বামী, শ^শুর ও শাশুড়িকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। মামলার অপর আসামি ননদ জেসমিন পলাতক রয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পঞ্চগড় সদর থানার উপ পরিদর্শক শাহীনুজ্জামান শাহীন বলেন, গৃহবধূ কল্পনা হত্যাকান্ডের ব্যাপারে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী মনির ও শাাশুড়ি ময়নাকে ৭ দিন করে রিমান্ডে দেয়ার জন্য আদালতে আবেদন করা হয়। আদালত শুনানী শেষে তাদের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। সুরতহাল করে ধারণা করা হচ্ছে ধারালো কিছু দিয়ে কল্পনার গলাকাটা হয়। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে গরম পানি দিয়ে পুড়ে যাওয়ার চিহ্ন ছিল। জিজ্ঞাসাবাদে শ্বশুর জলিলের সম্পৃক্ততার কোনো তথ্য না পাওয়ায় তার রিমান্ড আবেদন করা হয়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন