ঢাকা, শুক্রবার , ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সুপ্রিম কোর্ট সুপ্রিম কিন্তু অভ্রান্ত নয় : ওয়াইসি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে রাগে ফেটে পড়লেন এআইএমআইএম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়াইসি। অযোধ্যা রায় প্রসঙ্গে তার স্পষ্ট জবাব, ‘শীর্ষ আদলত সর্বময় কিন্তু অভ্রান্ত নয়।’ ওয়াইসির কথায়, ‘এই রায়ে সন্তুষ্ট নই। সুপ্রিম কোর্ট সুপ্রিম কিন্তু অভ্রান্ত নয়। আমাদের সংবিধানের প্রতি প‚র্ণ আস্থা রয়েছে। আমাদের পাঁচ একর জমি দান করার কোনও প্রয়োজন নেই। মুসলমানদের সেই দান প্রত্যাখ্যান করা উচিত।’ এদিনই সুপ্রিম কোর্ট রায়ে জানিয়েছে, অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির হবে। বিকল্প পাঁচ একর জমি পাবে মুসলিমদের পক্ষের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। যা ভারতের সর্বকালের ইতিহাসে ঐতিহাসিক রায় বলে গণ্য হচ্ছে। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর নেতৃত্বে শীর্ষ আদালতের পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ শনিবার এই রায় দিয়েছে। সর্বসম্মতিক্রমে এই রায় বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। কেন্দ্রকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, আগামী তিন মাসের মধ্যে পরিকল্পনা করে ট্রাস্ট গঠনের মাধ্যমে মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করতে হবে। ২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্ট রায় দিয়ে জানিয়েছিল, অযোধ্যায় বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমি সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড, নির্মোহী আখড়া ও রামলালা বিরাজমানের মধ্যে সমান ভাবে ভাগ করতে হবে। এ রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে ১৪টি আবেদনপত্র জমা পড়ে। ওয়াইসির বক্তব্য, ‘হাইকোর্টের রায়ে বাস্তব বিচারে রূপায়ণ করা যেত না। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের রায় আমরা মানতে পারছি না।’ সুপ্রিম কোর্টের অযোধ্যা রায় নিয়ে ‘সন্তুষ্ট নয়’ সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে ভাবচিন্তা করা হবে বলে জানানো হয়েছে সংগঠনের তরফে। আদালতে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের তরফে প্রতিনিধিত্ব করা জেড জিলানির কথায়, ‘আমরা সুপ্রিম কোর্টের রায়কে সম্মান করি। তবে, অযোধ্যা মামলার রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। পরবর্তী পদক্ষেপ হিসাবে এই রায় পুনর্বিবেচনার জন্য আবেদন করবো।’ যা সমর্থন করেছেন এআইএমআইএম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়াইসি। ইনিন্ডয়ান এক্সপ্রেস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (11)
Rio Akram ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৫৯ এএম says : 0
বিকল্প জমি নেওয়ার কোনো দরকার নেই . সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের কাছে আবেদন 5 একর জমি যেন না নেয়. বিকল্প জমিকে আমরা প্রত্যাখ্যান করি.
Total Reply(0)
Rakib Malik ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৫৯ এএম says : 0
সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মানব হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)এর ইসলাম এত কমজোর ধর্ম নয় যে,মসজিদ ভেঙ্গে মন্দির নির্মান করলেই ইসলামের জয়রথ থেমে যাবে কিংবা মুসলমানদের ঈমান দুর্বল হয়ে যাবে।আবার মসজিদ ভেঙ্গে মন্দির করে কোন ধর্মকে উপরে তুলা যায়না কিংবা প্রসার করাও যাবেনা।ইসলামই একমাত্র ধর্ম যেখানে সকল ধর্মের মানুষের সমান অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে।
Total Reply(0)
MU Saiful Islam ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৫৯ এএম says : 0
জালিম সরকারের পক্ষ থেকে এর চেয়ে ভালো আর কি আশা করা যায়, তাদের রায় তাদের পক্ষে হবে এটাই স্বাভাবিক, তবে এ রায় শেষ রায় নয়, সকল বিচারকের বিচারক একজন আছে, তার রায়ের অপেক্ষায় থাকবে মুসলমান..
Total Reply(0)
RS Obaidullah Ovi ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
যাদের কাছে মানুষের চেয়ে গরুর জীবনের মূল্য বেশি, যারা গরুর মুত খায়, পশুর মলকে পবিত্র মনে করে তাদের কাছে ন্যায়বিচার আশা করা বোকামি।
Total Reply(0)
Rana Taqi ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
এই রায়ের ভিত্তি হলো এএসআই (আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া)। সেখানে এএসআই বলেছে, ওই জায়গার নিচে কোনো একটা কাঠামো ছিল। কিন্তু সেই কাঠামো হিন্দুদের বা মন্দিরের কিনা সেটা বলেনি। ‘যেখানে সুপ্রিম কোর্ট বলছে যে, হিন্দুদের যে দাবি সেই দাবির ভিত্তি হচ্ছে বিশ্বাস। তাহলে বিশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে তো কাউকে অগ্রাধিকার দেওয়া যায় না। বিশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে কি কারো মালিকানা ঠিক করা যায়?,
Total Reply(0)
Jewel Haque ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
মুসলিম বিদ্বেষী নরেন্দ্র মোদী সরকার প্রভাবিত পুতুল মার্কা সুপ্রিম কোর্টের রায় অগ্রহণযোগ্য। কোন প্রমাণ ছাড়াই রামমন্দির তৈরির পক্ষে রায় দিলো। এতে প্রমাণিত হয় ভারত কতটা উগ্র হিন্দুত্ববাদী দেশ।
Total Reply(0)
Md Rabiul Islam ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
আগে একটি মসজিদ ছিলো ওখানে যা ভেঙে পুনঃনির্মাণ স্বরূপ ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ নির্মিত হয়েছিল ওখানে। এটা সহজেই অনুমিত। কিন্তু আদালতের অদূরদর্শিতার কারণে সেটা রায়ে ব্যক্ত করা হয়নি।
Total Reply(0)
Mohammad Ali ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
দেখুন প্রভাবিত রায়ে সবকিছুই সম্ভব। মোদি সরকার তার ব্যতিক্রম করে নাই। প্রথমে কাশ্মীর গিলে খেল, এখন বাবরি মসজিদ। মুসলিম নিধনের বিগ মাস্টার প্ল্যানের এটাও একটি অংশ।
Total Reply(0)
Manjur ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:৪৮ এএম says : 0
Allah is the best Judge. This so called judgement by extremists Hindus will make India to pay lot of price in the future, In ShaAllah.
Total Reply(0)
শহিদুল ইসলাম ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:৪১ এএম says : 0
এইরায় শুধু হিন্দুদের বিশ্বাসের উপর ভিত্তি করে দেওয়া হয়ে, আর মুসলমানরা এই অবৈধ রায়কে কখনো মেনে নেবে না, ইসলামীক লয়ে আছে যদি বৈধ কোনকারণে মসজিদ স্থানান্তরিত করতে হয় তাহলে মসজিদের পরিত্যক্ত স্থানটি মসজিদের মর্যাদায় সংরক্ষিত রাখতে হয়, এটাই চুরান্ত ইসলামিক বিধান।
Total Reply(0)
Saif SK ১২ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:২৭ এএম says : 0
আমাদের আর এক ভাই শিয়া ওরা কি মুসলিম না হিন্দু বোঝা খুব মুশকিল আর বলি সুপ্রিম কোর্ট ঠিক আছে কিন্তু ওর মধ্যে যে লোক গুলো আছে আর কি বলবো এক জন তো যৌন সম্পর্ক যুক্ত এবার বুঝে নাও
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন