ঢাকা, মঙ্গলবার , ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ০২ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কিনলেন সিলেটের মেয়র, সোশ্যাল মিডিয়ায় হইচই

আবদুল মোমিন | প্রকাশের সময় : ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:০৬ পিএম

সিলেটে লাইনে দাঁড়িয়ে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) পেঁয়াজ কিনে সোশাল মিডিয়ায় হইচই ফেলে দিয়েছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এ নিয়ে ফেইসবুকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নেটিজেনরা। যদিও মেয়র জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষের সারিতে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কিনতে আসা তার প্রতীকী প্রতিবাদ। তার এমন অভিনব প্রতিবাদের অনেকে প্রশংসা করলেও সমালোচনা করেছেন কেউ কেউ।

সোমবার দুপুরে সিলেটের কিন ব্রিজ পয়েন্টে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির অস্থায়ী কেন্দ্রের লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কিনেন মেয়র আরিফ। একটানা প্রায় পৌনে দুই ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে সাধারণ মানুষজনের মতো কিনেন সরকারনির্ধারিত মূল্যে এক কেজি পেঁয়াজ। পেঁয়াজ কেনার জন্য মেয়র লাইনে দাঁড়ানোর বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে ওই এলাকায় লোকজনের ভিড়ও জমে। একপর্যায়ে পুলিশও মোতায়েন করা হয়।

মেয়রের সমালোচনা করে মনিরুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘আপনারা জনগণকে দেখানোর জন্য যদি এইভাবে লাইনে দাড়িঁয়ে পেঁয়াজ কিনেন তাহলেতো মজুদকারীরা আরও সাহস পেয়ে যাবে। তারাতো পেঁয়াজের দাম কমাবে না বরংতো আরো বাড়াবে। অথাৎ এই ধরনের কার্যকলাপ থেকে আপনাদের মত রাজনৈতিক ব্যাক্তিরা বিরত থাকায় ভালো।’’

আল হায়দার লিখেছেন, ‘‘আর কত নাটক দেখবো আমরা দেশে। এটা যে একটি সস্তা নাটক এটা বুঝার জন্য কোন ডিগ্রি লাগবে না। এই সব নাটক বাদ দিয়া বাজার তদারকি করুন এটা আপবার দায়িত্ব, সিটির মেয়র হিসেবে লাইনে দাঁড়িয়ে মানুষের সহানুভূতি নেয়া আপনার দায়িত্ব না।’’

‘‘একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে জনগণের অধিকার নিয়ে নীরব প্রতিবাদ বলা যেতে পারে, সমর্থন করি’’ মেয়রের প্রশংসা করে লিখেছেন আবদুল মান্নান।

ছামি আহমেদ লিখেছেন, ‘‘পেঁয়াজ কেলেংকারীর বিরুদ্ধে সিলেট সিটি কর্পোরেশন মাননীয় মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর প্রতিকী প্রতিবাদ। উনি সাধারণ মানুষের সাতে লাইনে দাঁড়িয়ে লুটেরা বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন। স্যালুট আরিফ ভাই।’’

সোহেল আহমেদ লিখেছেন, ‘‘রাজনীতিবিদদের নাটক দেখতে দেখতে অতিষ্ঠ এই জাতি। আপনার কি ২০০ টাকা ধরে পেঁয়াজ কিনে খাওয়ার তৌফিক নাই।তাহলে কেন এই তামাশা।’’

‘‘একেই বলে নিরব ও অভিনব প্রতিবাদ। বিএনপির কেন্দ্রিয় নেতাদের এই ভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদ করা উচিত!’’ লিখেছেন সাদিক খান।

মাহমুদুল হক লিখেছেন, ‘‘মেয়র যখন ভাইরাল হতে চায়, তার কাজ ছিলো বাজার সামলানো, আর সে গেছে লাইনে দাড়াতে। এখন জানতে চাই তিনি বছরে কতদিন বাজারে সবজি/পিঁয়াজ কিনতে যায়?’’

‘‘এটা একটা প্রতিকী সমবেদনা, ধন্যবাদ। আমার মনে হয় প্রধানমন্ত্রীর ও এভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কেনা উচিৎ ছিল, তাহলে জনগণ উপলব্ধি করতে, প্রধানমন্ত্রী জনগণের কষ্টতে কষ্ট পায়’’ মন্তব্য আমরীন জামানের ।

সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম লিখেছেন, ‘‘ওনি যদি পেঁয়াজের জন্য দুই ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকে ওনি একজন দায়িত্বশীল মানুষ ওনার জন্য সিটি করপোরেশনে কতজন ঘন্টার পর ঘন্টা বসে রয়েছে এগুলো জবাব কে দেবে? ওনার কি জনবলের এতই অভাব ওনাকে পেঁয়াজ এনে দেওয়ার? এগুলো সস্তা জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য তামাশা ছাড়া আর কিছুই নয়।’’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন