ঢাকা, বুধবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিদিশাকে নিয়ে প্রেসিডেন্ট পার্কে থাকতে এরিকের জিডি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

মা বিদিশা সিদ্দিকীকে নিয়ে বাবা এইচএম এরশাদের বারিধারার দূতাবাস রোর্ডের ‘১০ নম্বর প্রেসিডেন্ট পার্কে’ থাকতে চান ছেলে শাহতা জাবাব এরিক এরশাদ। গতকাল সোমবার এ বিষয়ে গুলশান থানায় তিনি একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে বিদিশা গত ১৪ নভেম্বর পুত্রের ফোন পেয়ে প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসায় যান। সেখানে এরিক তাকে (বিদিশা) জানায়, কাজের লোকজন মারধোর করেন এবং ঠিকমতো খেতে দেয় না। বিদিশা নিজেও এ নিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। যদিও জিএম কাদের সে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
গুলশান থানার ওসি কামরুজ্জামান বলেন, অনেকে অভিযোগ করেছেন বিদিশা জোর করে বারিধারার বাসায় এসেছেন। কিন্তু এরিক নিজে জিডিতে উল্লেখ করেছেন সে অসুস্থ। এ অবস্থায় বাসায় তার মা বিদিশাকে নিয়ে থাকতে চান। জিডির বিষয়টি আমলে নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।
এর আগে গত শুক্রবার এরশাদের ছোট ছেলে এরিক এরশাদের নিরাপত্তার প্রশ্নে সাংবাদিকদের কাছে নানান অভিযোগ করেন মা বিদিশা। এরশাদের বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের ফ্ল্যাটে থাকা অটিস্টিক এরিককে ‘চরম অবহেলা করে তার স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটানো হয়েছে’ বলে অভিযোগ করেন মা বিদিশা।
চলতি বছরের ১৪ জুলাই জুলাইয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর ছেলে শাহতা জারাব এরিককে নিজের কাছে রাখতে চান তার মা বিদিশা। তবে বারিধারার ে প্রেসিডেন্ট পার্কে থাকা এরিকের সঙ্গে দেখা করাটা সহজ ছিল না বলে জানান বিদিশা। তার অভিযোগ, এরিকের দেখভালের দায়িত্বে থাকা কর্মচারীরা তাকে ওই বাড়িতে ঢুকতে ‘বাধা দিতেন’।
গত বৃহস্পতিবার রাতে ‘একরকম জোর’ করেই বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে এরশাদের বাসভবনে এসে ওঠেন বিদিশা। ওই ভবনের পাঁচতলার এরশাদের একটি ফ্ল্যাটে থাকেন তার ছেলে এরিক। এই ফ্লাটের নীচ তলায় এক সময় এরশাদ থাকতেন।
বিদিশা বলেন, সেদিন রাতে এসে শুনি, এরিককে ওরা মাত্র একবেলা খাবার খেতে দিত। এরিকের ওজন কমে গেছে। সে নিজেও খুব ভীতসন্ত্রস্ত ছিল।
এ বিষয়ে গত ১৭ নিজের ফেসবুকে এরিকের একটি ভিডিওটি প্রকাশ করেন বিদিশা। তাতে এরিককে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলতে শোনা যায়, ‘প্রিয় হোম মিনিস্ট্রি আঙ্কেল, আমি এরিক বলছি। আমাকে নির্যাতন করা হয়েছে। আমাকে খেতে দেয়া হতো না। আমার লিগ্যাল গার্ডিয়ান আমার চাচা জিএম কাদের না, আমার মা। সেক্ষেত্রে ওনার (জিএম কাদের) তো কোনো রাইট নেই, আমাদের এ রকম টর্চার করার।
উল্লেখ এইচ এম এরশাদ মৃত্যুর আগে এরিকের দেখভালের জন্য দিক নির্দেশনা দিয়ে গেছেন। ##

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Alim Rayhan ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১:২৮ এএম says : 0
এরশাদ ভাইয়ের বউ আর ছেলের সাথে কেন এরকম করা হচ্ছে। মানুষের কি বিবেক বলে কিছু নাই। জি এম কাদেরকে আমরা সবাই ঘৃনা করি। সমাজের কি বিবেক বলে কিছু নাই।
Total Reply(0)
Ajoy Raj ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১:২৯ এএম says : 0
আমার মনেহয় বিদিশা একসময় হয়ে ছিল বলির পাঠা। আজ এরিক মায়ের। কাছেই থাকাই উচিত
Total Reply(0)
Mamun Siddique ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১:৩০ এএম says : 0
এরিক তার মা কাছে যাবে তার কোন বিকল্প নেই। তবে বর্তমানে বিদিশা এরশাদ জন্য যে বালোভাসা দেখাচ্ছে তা লোক দেখানো। এরশাদকে বিদিশা অনেক অপমান অনেক কষ্ট দিয়েছে।
Total Reply(0)
Sajid Sahariar Badhon ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১:৩০ এএম says : 0
এমন সন্তানদের তাদের মায়ের খুব দরকার ওকে ওর মায়ের আদর থেকে বন্চিত করবেন না রাজনিতির থেকে ওর মায়ের পাষে থাকা সত্যি দরকার
Total Reply(0)
Emam Hossain ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১:৩২ এএম says : 0
এরিক মোটেও অনিরাপদ নয়।রওশন এরশাদ আর জিএম কাদের এরা কখনোই আমার পছন্দের লোক নয়।সাবেক স্বামী যেতে না যেতেই এই মহিলার লোভ টা আকাশচুম্বী হয়ে গেছে।সেটা স্পষ্টই বুঝা যাচ্ছে।নেকামী গুলো মানুষ বুঝে।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন