ঢাকা, সোমবার , ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১১ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘটে কুয়াকাটা পর্যটকশূন্য

যাত্রীদের ভোগান্তি চরমে

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

কুয়াকাটায় চলছে সারা দেশের ন্যায় পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট। এর ফলে পর্যটক শূন্য হয়ে পড়েছে স্পটগুলি। পর্যটন মৌসুমের শুরুতেই এই ধরনের পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে ট্যুরিজম ব্যবসায়ীরা। আবাসিক হোটেলগুলোতে অগ্রিম বুকিং বাতিল করছেন পর্যটকরা। এভাবে চলতে থাকলে শত কোটি টাকার ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কুয়াকাটা ট্যুরিজম ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ। বুলবুল’র আঘাত যেতে না যেতে এবার দেশের চলামান পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট। যার কারণে দূরপাল্লার পরিবহন না থাকায় কুয়াকাটায় আগত পর্যটকদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

ঢাকা থেকে আসা নাভানা গ্রুপের কর্মকর্তা জাকির হোসেন বলেন, আমাদের অফিসের দুইদিনের কর্মশালায় দুই শতাধিক কর্মীদের নিয়ে অনেক আগেই এই প্রোগ্রাম বুকিং ছিলো। হঠাৎ শ্রমিক ধর্মঘটের কারণে অনেক ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। কিভাবে ফেরত যাবো এ নিয়ে ভাবছি। হোটেল নীলাঞ্জনার ম্যানেজার মো. হাবিবুর রহমান বলেন, চলমান এই ধর্মঘটের কারণে অমাদের রুম বুকিংগুলো এ সপ্তাহে বাতিল করেছে ট্যুরিস্টরা। এভাবে চলতে থাকলে কুয়াকাটার আবাসিক হোটেলগুলোকে মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে।

কুয়াকাটা ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের (কুটুম) সভাপতি নাসির উদ্দিন বিপ্লব বলেন, কিছুদিন আগে হয়ে গেলো বুলবুল এরপর এখন আবার শ্রমিক ধর্মঘট। এ অবস্থায় পর্যটকরা কুয়াকাটা আসার আগের প্রোগ্রামগুলো বাতিল করেছে। এ অবস্থা বেশিদিন চললে এখানকার সকল পর্যায়ের ব্যবসায়ীরা প্রচুর ক্ষতির মুখে পড়বে। দ্রুত এই পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি। তা ছাড়াও দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় মৎস্য আড়ৎ আলীপুর-মহিপুরে দূরপাল্লার ট্রাক পরিবহন না থাকায় মাছের দাম কমে গিয়েছে। এ ধর্মঘট চলতে থাকলে উপকূলীয় মৎস্যজীবীরা অসহায় হয়ে পড়বে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন