ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মাদরাসায় হিন্দু সুপার মেনে নেয়া যায় না

বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম | আপডেট : ১০:৩৫ এএম, ২৪ নভেম্বর, ২০১৯

বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন সভাপতি আলহাজ্ব এ এম এম বাহাউদ্দীন ও মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা শাব্বীর আহমদ মোমতাজী এক বিবৃতিতে বলেন, একজন হিন্দু বা অন্য ধর্মের লোক শিক্ষকতা করবেন এতে আপত্তির কিছুই নেই। শিক্ষকগণ সব সময়ই সম্মানী। কিন্তু কুরআন, হাদীস ও ধর্মীয় শিক্ষার বিশেষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাদরাসার সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন কোন অবস্থাতেই মেনে নেয়া যায় না। ভারপ্রাপ্ত হিসেবে এক মুহূর্ত হলেও এটা ইসলামী শিক্ষা তথা মাদরাসা শিক্ষার জন্য অবমাননাকর। রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের পাটকিয়াবাড়ি দাখিল মাদরাসায় কোন আরবি শিক্ষক কি ছিল না? তাই উক্ত মাদরাসার ম্যনেজিং কমিটি অতিদ্রুত এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে একজন আলেমকে ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব দেবেন, এটাই আমাদের দাবি। বিষয়টি অতি ক্ষুদ্র মনে করার কোন সুযোগ নেই।

নেতৃদ্বয় বলেন, মাদরাসার প্রধানকে অবশ্যই মাদরাসা শিক্ষিত হতে হবে। এ বিষয়ে জনবল কাঠামোতে কোন অসংগতি থাকলে তা সংশোধন করে মাদরাসা পরিচালনার ক্ষেত্রে অতীত ঐতিহ্য ও বাস্তবতা ঠিক রাখার জন্য শিক্ষামন্ত্রনালয়ের প্রতি জোর দাবি জানান। সকলের এ কথা জানা যে, কোন ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বা ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ে সে সেক্টরের ডিগ্রিধারী ব্যক্তি এবং কোন মেডিকেল কলেজে বা বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসা বিজ্ঞানে ডিগ্রিধারী ছাড়া অন্য কোন শাখার কাউকে দায়িত্ব দেয়া হয় না। মাদরাসা শিক্ষার লক্ষ্যই হল যোগ্য আলেম তৈরি করা। সেখানে পরিচালনার ক্ষেত্রে আলেম ছাড়া কাউকে দায়িত্ব দেয়া কোন অবস্থাতেই মেনে নেয়া যায় না। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখবেন, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (31)
মোঃ জয়নুল আবেদীন ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:২১ এএম says : 0
মাদরাসা শিক্ষায় শিক্ষিত শিক্ষককে দায়িত্ব দেওয়ার জন্য শিক্ষামন্রনালয় এর কর্মকর্তাবৃন্দ শিক্ষামনত্রী মহোদয়ের নিকট বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি।
Total Reply(0)
মোঃ জয়নুল আবেদীন ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:২১ এএম says : 0
মাদরাসা শিক্ষায় শিক্ষিত শিক্ষককে দায়িত্ব দেওয়ার জন্য শিক্ষামন্রনালয় এর কর্মকর্তাবৃন্দ শিক্ষামনত্রী মহোদয়ের নিকট বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি।
Total Reply(0)
Jashim Uddin ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০২ এএম says : 0
মুসলিম ভাইরা মারা গেছে মনে হয়
Total Reply(0)
Mamun Rashid ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০২ এএম says : 0
তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি
Total Reply(0)
Md Jewel ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৩ এএম says : 0
আমি জানিনা এটা কোন জায়গায়.তবে মাদ্রাসার সুপার যদি হিন্দু হয়.তাহলে ওই এলাকার মসজিদের ইমাম ও মনে হয় হিন্দু.যাচাই করে দেখেন
Total Reply(0)
Nurul Islam ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৩ এএম says : 0
মাদরাসায় যেমন একজন হিন্দু সুপার মেনে নেওয়া যায়না, তেমনি মাদরাসা বোরডেও একজন হিন্দু পরিচালক মেনে নেওয়া যায়না৷
Total Reply(0)
Biplob Msc ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৩ এএম says : 0
কোন পাগলের দেশে আছিরে ভাই।
Total Reply(0)
Mohammad Shahajalal Tarafdar-Jalal ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৪ এএম says : 0
কি করে মানা যায়? আফসোস এবং পরিতাপের বিষয়
Total Reply(0)
Yousuf Ali ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৪ এএম says : 0
Desh ki roso gullay gelo!!
Total Reply(0)
Sajjad Hussain Hitu ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
কয়েকদিন পর মসজিদের ইমামতি করতে হিন্দুদেরকে নিয়োগ দেওয়া হবে
Total Reply(0)
Asarulkarim Asrar ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
সব জায়গায় মানবতা দেখাতে নাই, বাঙালি এত সহজ সরল হয়ে গেল যে নিজের মা-বাবাকে ও বিক্রি করতেও দ্বিধাবোধ করে না। ধর্ম তো অলরেডি বিক্রি করে দিল।
Total Reply(0)
Shaiful Islam Suman Mridha ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
এটাই ঈমানের ব্যাপার, বর্তমানে বাংলাদেশে যা হচ্ছে তা কোন মুসলিম ঈমানদার শাষন ব্যবস্থায় হওয়া সম্ভব না। আসলে আমারা মুনাফিকদের খপ্পড়ে পরেছি।মুসলিম নামদারি মুনাফিকরা গোটা ইসলামী শিক্ষা ব্যবস্থা কে ধ্বংস করে, বাংলাদেশকে কাফেরর পূর্ণ ভূমিতে রুপান্তরীত করবে।
Total Reply(0)
Mohammad Ibrahim ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
বাংলাদেশের যত ধরনের শিক্ষা ব্যবস্থা আছে সব কিছুর প্রধান বানানো হয়েছে হিন্দুদের কেন? তার মানে কি বাংলাদেশে বাকি সব অশিক্ষিত?,,এটা কিসের মাস্টারপ্ল্যান সেটা তারা জানে আর আল্লাহ পাক ই ভাল জানেন।
Total Reply(0)
Md Noor ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৬ এএম says : 0
ক্ষমতাসীনদের একটা কুচক্র মহল ইসলামকে ধ্বংস করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে কিন্তু তাদের এই স্বপ্ন কোন দিন পূরণ হবে না ইনশাআল্লাহ।
Total Reply(0)
Khairul Islam ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৬ এএম says : 0
বাংলাদেশে কি এতই শিক্ষিত মুসলিম এর অভাব হয়ে গেল যার শূন্যস্থান পূরণ করতে একজন হিন্দু কে আসতে হল?
Total Reply(0)
Shabul Ahmed ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৬ এএম says : 0
প্রধান শিক্কক ত দুরের কথা শ্রেনী শিক্কক ওই মানা যায়না মাদ্রাসায়।ইসলাম নিয়া তামাশা করবেন না ধংশ হবেন। এগুলু নবিজির বাগান
Total Reply(0)
Abul Hasan Muhammad Abdullah ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৭ এএম says : 0
এভাবেই আলিয়া মাদ্রাসার ঐতিহ্য নিজস্ব স্বকীয়তা ইসলামী শিক্ষা-দীক্ষার কেন্দ্র এই পরিচয় হারিয়ে যাবে ৷ হয়তো একদিন কলকাতার আলিয়া মাদ্রাসার মতো নামেই মাদ্রাসা হয়ে যাবে অথবা এদেশের নিউ স্কিম মাদ্রাসার মতো স্কুল-কলেজে পরিণত হবে ৷
Total Reply(0)
Ashiqur Rahman Bhuiyan ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৭ এএম says : 0
মুসলমানদের জন্য এটি সুযোগও বটে! ওনাকে কালেমা দাওয়াতের মাধ্যমে মুসলিম বানানোর চেষ্টা করা যেতে পারে। অাল্লাহ হয়তো ওনাকে কবুলও করতে পারে।
Total Reply(0)
Md Shabbir ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৭ এএম says : 0
এটা কখনও মেনে নেয়ার বিষয় নয় । ইকসন প্লান করেই সরকার কে দিয়ে এসব করিয়ে ভারতীয় দাঙ্গা সাপ্লাই করবে। একসময় আমরা হব কাশ্মীর।
Total Reply(0)
Sayed Ahmed ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১০:৩৩ এএম says : 0
খবই দুঃখজন, ইমান বিরোধী সেকুলারিজ....
Total Reply(0)
oti_shadharon ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১০:৫২ এএম says : 0
যারা এই নিয়োগ দিয়েছেন, এরা নিজেরাই সম্ভবতঃ অমুসলিম; কিংবা পবিত্র কুরআন সম্পর্কে অজ্ঞ মুসলিম নামধারী ব্যক্তিবর্গ। আলেম তৈরি কেবল পুঁথিগত বিদ্যা দানে সীমাবদ্ধ নয়; "ইসলামী তারবিয়্যাহ" আলেম তৈরির একটি অন্যতম উপাদান। কোনো অমুসলিমের কাছ থেকে ইসলামী তারবিয়্যাহ শেখা অসম্ভব। তারবিয়্যার সাথে আন্তরিক বিশ্বাসের নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। ইসলামী আকিদা এবং তাগুতি আকিদা কখনই একসাথে থাকতে পারবেনা। কাউকে জোর করে ইসলামের পথে আনা ইসলাম সমর্থন করে না; কিন্তু যারা মুসলিম তাদের মাঝ থেকে হক্কানী আলেম তৈরিতে সুকৌশলে অন্তরায় সৃষ্টি কোনো মুমিন মেনে নিতে পারে না।
Total Reply(0)
tik দ্রুত সমাধান করা হোক। ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:০৩ পিএম says : 0
দ্রুত সমাধান করা হোক।
Total Reply(0)
Nannu chowhan ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:৫০ এএম says : 0
Mosolmander shikkha bebostai ki kore hindu principal,hindu shikkhok othoba hindu kormokorta niog dei iha ki shorkarer moddhe eaktu bodhodoy jagaina,?
Total Reply(0)
Md Shohidul Islam ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:৫০ এএম says : 0
মনে হচ্ছে এই এগুলো হচ্ছে টেস্ট কেস বা থিসিস, সামনে তাদেরকে আরও সেনসেটিভ পদে দেয়া হতে পারে যেমন প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী, ধর্মমন্ত্রী ইত্যাদি।
Total Reply(0)
taijul Islam ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:৫৬ এএম says : 0
ক্ষমতাসীনদের একটা কুচক্র মহল ইসলামকে ধ্বংস করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে কিন্তু তাদের এই স্বপ্ন কোন দিন পূরণ হবে না ইনশাআল্লাহ।...
Total Reply(0)
haris ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০৪ পিএম says : 0
islam biddeshira tader maner jal ababei mitaay. ta na hale hindo ki kare madrashar teacher hay? hary muslim
Total Reply(0)
jack ali ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৪১ পিএম says : 0
Bangladesh is run by the Taghut and Munafaq.....they can do what ever they feel like to do......... they have already captured our beloved country----We need to wake up....
Total Reply(0)
টিপু সুলতান ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১:২৪ পিএম says : 0
এই না হলে কীয়ামত এর দিকে কেনো অগ্রশর হবে ? ? ?
Total Reply(0)
মোঃ জহুরুল ইসলাম ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:৩১ পিএম says : 0
BJM এর নেতৃত্বেই এই গুলার অবসান চাই সাথে সাথে মাদ্রাসা বোর্ডের দায়িত্বে যত হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টাণ আছে তাদের ও
Total Reply(0)
মোঃ জহুরুল ইসলাম ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:৩১ পিএম says : 0
BJM এর নেতৃত্বেই এই গুলার অবসান চাই সাথে সাথে মাদ্রাসা বোর্ডের দায়িত্বে যত হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টাণ আছে তাদের ও
Total Reply(0)
Abdul wahab ২৬ নভেম্বর, ২০১৯, ৫:৪৭ পিএম says : 0
বিষয়টা খুবই দুঃখজনক। হিন্দু ধর্মের লোক একটা মাদ্রাসার প্রধান কিভাবে হয় সেটা আমার বোধগম্য হচ্ছে না।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন