ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

মেসির রেকর্ডে রাঙা বার্সা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

ম্যাচে তিন গোলের একটি করেছেন নিজেই। বাকি দুই গোল এসেছে সুয়ারেজ ও গ্রিজমানের কাছ থেকে। ওই দুই গোলেও অবদানি লিওনেল মেসির। ম্যাচের পুরো আলোটা একাই কেড়ে নিলেন এই আর্জেন্টাইন! আর নেবেন নাইবা কেন? প্রিয় ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে এদিন খেলেছেন নিজের ৭০০তম ম্যাচ। দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে এর চেয়ে আর বেশি হয়তো করার ছিল না বার্সা গোলমেশিনের। রেকর্ড বইয়ের পৃষ্ঠায় আরও একটি তথ্য লিখতে হবে, চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে মেসিই একমাত্র খেলোয়াড় যার আলাদাভাবে ৩৪টি দলের বিপক্ষেই গোল রয়েছে। ন্যু ক্যাম্পে পরশু এই জাদুকরের নৈপুন্যে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে ৩-১ গোলের জয় দিয়ে কাতালান জায়ান্টরা পৌঁছে গেল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোল পর্বে।

ম্যাচের ২৯তম মিনিটে পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসির পাস থেকে বার্সাকে লিড এনে দেন লুইস সুয়ারেজ। এটি মেসির ২৩৬তম অ্যাসিস্ট। চার মিনিট বাদে সুয়ারেজের সহায়তায় গোল ব্যবধান দ্বিগুণ আর্জেন্টাইন এ মেগাস্টার নিজেই। ইউরোপ সেরার লড়াইয়ে এটি মেসির ১১৪তম গোল। আর বার্সার হয়ে ৭০০তম ম্যাচে ৬১৩ম গোল। সুবাদে পর্তুগিজ মহাতারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে (৩৩ প্রতিপক্ষ) ছাড়িয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে সর্বাধিক ৩৪ প্রতিপক্ষের বিপক্ষে গোল করার নতুন রেকর্ড গড়লেন এ খুদে ফুটবল জাদুকর।

৬৭তম মিনিটে মেসির পাস থেকে বল পেয়ে গোল ব্যবধান ৩-০ তে নিয়ে যান ফরাসি স্ট্রাইকার অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যান। দশ মিনিট বাদে অতিথি ডর্টমুন্ডের হয়ে একটি গোল শোধ করেন জাডন সানচো। তবে ম্যাচের ২২তম মিনিটে আরো একটি গোল করে ছিলেন সুয়ারেজ। কিন্তু অফসাইডের কারণে তা বাতিল করে দেন রেফারি।

ম্যাচের শেষটা নাটকীয় রূপ নিতে পারতো। কিন্তু ৮৭তম মিনিটে স্যানচোর আরেকটি জোরালো শট টের স্টেগেনের হাতে লেগে ক্রসবারে লাগলে বরুসিয়ার ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায়। পাঁচ ম্যাচে তিন জয় ও দুই ড্রয়ে গ্রুপের শীর্ষস্থান নিশ্চিত করা বার্সেলোনার পয়েন্ট ১১।

বার্সেলোনা জিতলেও বর্তমান ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল হোঁচট খেয়েছে ঘরের মাঠ দ্য অ্যানফিল্ডে। মোহাম্মদ সালাহর দল ১-১ গোলে ড্র করেছে নাপোলির সঙ্গে। যে কারণে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোল পর্বে পা রাখতে অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের দলকে। গ্রুপের শেষ ম্যাচে রেডবুল সালজবুর্গের মাঠ থেকে যে করেই হোক অন্তত একটি পয়েন্ট দ্য রেডস শিবিরকে সংগ্রহ করতেই হবে। ম্যাচের ২১তম মিনিটে ড্রিয়েস মার্টেন্সের গোলে এগিয়ে যায় সফরকারী নাপোলি। পরে ৬৫তম মিনিটে লিভারপুলকে সমতায় ফেরান ডেজান লভরেন।

ড্র করেছে চেলসিও। রোমাঞ্চকর ম্যাচে কোচ ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের দলকে ২-২ গোলে রুখে দিয়েছে ভ্যালেন্সিয়া। শেষ ষোলতে খেলতে হলে গ্রুপের শেষ ম্যাচের ফলের ওপর নির্ভর করতে হবে এখন তাদের। ম্যাচের ৪০তম মিনিটে স্বাগতিক ভ্যালেন্সিয়াকে এগিয়ে দেন কার্লোস সোলার। পরের মিনিটেই অতিথি চেলসি সমতায় ফেরে মাতেও কোভাচিচের গোলে। ৫০তম মিনিটে ক্রিশ্চিয়ান পিউলিসিকের গোলে জয়ের স্বপ্ন বুনলেও শেষ রক্ষা হয়নি স্টামফোর্ড ব্রিজ শিবিরের। ৮২তম মিনিটে ড্যানিয়েল ওয়াস গোল করে চেলসির জয়ের স্বপ্ন ভেঙে দেন।

আরেক ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রের ক্লাব স্লাভিয়া প্রাগের বিপক্ষে জোড়া গোল করেছেন ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন তারকা লাওতারো মার্টিনেজ। তার এই জোড়া ও বেলজিয়াম তারকা রোমেলু লুকাকুর গোলে ইতালির জায়ান্টরা জিতলেও দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়া নিয়ে রয়েছে শঙ্কা! একই দিনে স্লাভিয়া প্রাগের মাঠে ১-৩ গোলের জয় পেয়েছে আন্তোনিয়ো কন্তের শিষ্যরা। এই জয়েও কিন্তু দ্বিতীয় পর্বে খেলা নিয়ে কঠিন পরীক্ষার সামনে ইন্টার।
ইন্টারের শেষ ম্যাচ সান সিরোতে বার্সেলোনার বিপক্ষে। নিজেরা এই ম্যাচ জিতলেই শুধু হবে না, ইন্টারকে প্রার্থনা করতে হবে যেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ঘরের মাঠে স্লাভিয়া প্রাগকে হারাতে না পারে। কারণ পয়েন্ট সমান হলেও হেড টু হেডে ইন্টার পিছিয়ে আছে ডর্টমুন্ডের চেয়ে। গ্রুপে কেবল বার্সেলোনার জায়গা নিশ্চিত হয়েছে। বাকি আরেকটি দল কারা হবে সেটা এখনো অনিশ্চিত। ডর্টমুন্ড ও ইন্টারের পয়েন্ট ৭।
এক নজরে ফল
ভ্যালেন্সিয়া ২-২ চেলসি
জেনিথ ২-০ লিওঁ
লিলে ০-২ আয়াক্স
লাইপজিগ ২-২ বেনফিকা
বার্সেলোনা ৩-১ ডর্টমুন্ড
স্লাভিয়া প্রাহা ১-৩ ইন্টার
লিভারপুল ১-১ নাপোলি
গেন্ক ১-৪ সলজবার্গ

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন