ঢাকা, শনিবার , ১৮ জানুয়ারী ২০২০, ০৪ মাঘ ১৪২৬, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লন্ডন ব্রিজে হামলা : আইএসের দায় স্বীকার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ পিএম

যুক্তরাজ্যে লন্ডন ব্রিজ হামলার দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট বা আইএস। শুক্রবার ইংল্যান্ডের লন্ডন ব্রিজে এ সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। এ ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো তিনজন। নিহতদের মধ্যে একজন হামলাকারী বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এসময় সেখানে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ এসে উসমান খানকে গুলি করে হত্যা করে।
গতকাল শনিবার (৩০ নভেম্বর) নিজেদের সংবাদ সংস্থা আমাকে গোষ্ঠীটি দাবি করে, তাদেরই এক সদস্য শুক্রবার লন্ডন ব্রিজে ওই হামলা চালায়। তবে নিজেদের দাবির পক্ষে কোনও প্রমাণ দেখাতে পারেনি তারা। আইএস জানায়, তাদের বিরুদ্ধে সামরিক জোট হিসেবে যুদ্ধ করায় যুক্তরাজ্যের ওপর প্রতিশোধমূলক এই হামলা চালিয়েছে তারা।
শনিবার লন্ডন পুলিশ জানায়, স্ট্যাফোর্ডশায়ারের বাসিন্দা ২৮ বছর বয়সী পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক উসমান খান লন্ডন ব্রিজের হামলাকারী। তার শৈশব কেটেছে পাকিস্তানে। উসমান খানের কোনও প্রাতিষ্ঠানিক সনদ নেই। মা অসুস্থ হওয়ায় ওই সময় সে পাকিস্তানে অবস্থান করেন। পরে লন্ডনে ফিরে ইন্টারনেটে উগ্রবাদ প্রচারে নামে।
ওই ঘটনার এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ওই দিন দুপুরে লন্ডন ব্রিজের উত্তর দিকে এক দলের মধ্যে মারপিট হচ্ছিল। সেখান থেকেই পর পর দু’টো গুলির শব্দ শোনেন তিনি। এর পর এক জনকে মাটিতে লুটিয়ে পড়তে দেখেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ কর্মী। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলেন তারা।
ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এই ঘটনায় পুলিশি তৎপরতার প্রশংসা করেন । এছাড়া সেসময় এই ঘটনা দ্রæত সামাল দেয়ার জন্য পুলিশ ও সাধারণ মানুষকে সাহসী ও বীর বলে উল্লেখ করে লন্ডনের মেয়র সাদিক খান।
এদিকে, উসমান খানের বিষয়ে পরে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের জন্য ২০১২ সালে কারাদন্ড হয় তার। ২০১৮ সালে পুলিশের নজরদারিতে থাকার শর্তে তাকে মুক্তি দেয়া হয়। পুলিশের দাবি, উসমান আফগানিস্তানভিত্তিক সশস্ত্র গোষ্ঠী আল-কায়েদার ভাবাদর্শে বিশ্বাসী।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন