ঢাকা, শুক্রবার , ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

পিটিয়ে মারা উচিত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

দোষীদের ‘প্রকাশ্যে পিটিয়ে মারা’ উচিত। ভারতের তেলঙ্গানা রাজ্যে তরুণী চিকিৎসককে গণধর্ষণ ও খুনের তীব্র নিন্দা জানিয়ে রাজ্যসভার সংসদ সদস্য জয়া বচ্চন এমন মন্তব্য করেন। গতকাল সোমবার তিনি সংসদে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ধর্ষণ ও খুনে জড়িতদের প্রকাশ্যে পিটিয়ে মারার কথা বলেন।
লোকসভা এবং রাজ্যসভায় সরকার ও বিরোধী সব পক্ষের সংসদ সদস্যরাই ধর্ষণ-খুনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান। প্রয়োজনে আরও কঠোর আইন আনতে প্রস্তুত সরকার পক্ষও।

লোকসভার পক্ষ থেকে স্পিকার ওম বিড়লা বলেন, ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা রুখতে সংসদ আলোচনায় প্রস্তুত। অন্যদিকে জয়া বচ্চনের এই মন্তব্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সমালোচকদের একটি অংশ।
গত বুধবার রাতে তেলঙ্গানায় তরুণী চিকিৎসককে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় গোটা ভারতে তোলপাড় চলছে। জড়িত চারজনকেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবার সকালে ওই চিকিৎসকের অগ্নিদগ্ধ মৃতদেহ উদ্ধারের পর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলছে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ। দিল্লিতে আরেক তরুণী নির্ভয়ার ঘটনার মতোই জড়িতদের কঠোর শাস্তির দাবি উঠেছে সারা দেশ থেকে। এর উত্তাপ লেগেছে সংসদেও।

গতকাল রাজ্যসভা এবং লোকসভা উভয় কক্ষেই এই গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় আলোচনার প্রস্তাব দেন বিরোধীরা। সেই আলোচনাতেই রাজ্যসভায় সমাজবাদী পার্টি সংসদ সদস্য জয়া বচ্চন বলেন, ম‘এই ধরনের লোকদের জনসমক্ষে নিয়ে আসা উচিত এবং পিটিয়ে মারা উচিত।’
রাজ্যসভায় বক্তব্যের সময় কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন জয়া। ধরা গলায় বলতে থাকেন, আমি জানি না, কতবার এই ধরনের অপরাধের জন্য বলতে উঠেছি। আমি মনে করি এবার সময় এসেছে। নির্ভয়া হোক বা কাঠুয়া কিংবা তেলঙ্গানা-মানুষ চায় সরকার এর সঠিক ও নির্দিষ্ট জবাব দিক।

তিনি বলেন, আমি মনে করি এটাই আদর্শ সময়। পর মুহূর্তেই এক গুচ্ছ প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে জয়া বলেন, ‘সরকার কী করেছে? কী ভাবে নিয়ন্ত্রণ করেছে? নির্যাতিতারা কি বিচার পেয়েছেন? কারও নাম নিতে চাই না। কিন্তু এর জন্য কি নিরাপত্তা দায়ী নয়? আমার মনে হয়, একদিন আগেও তেলঙ্গানায় একই রকম ঘটনা ঘটেছিল। তার পরেও কেন আটকানো গেল না?’ সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন