ঢাকা, সোমবার , ২৭ জানুয়ারী ২০২০, ১৩ মাঘ ১৪২৬, ০১ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ভিসির অপসারণ দাবিতে জাবিতে ফের বিক্ষোভ

জাবি সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:১৫ এএম

দীর্ঘ বন্ধের পর আবারো ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল করেছে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর ব্যানারে আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বিক্ষোভ কর্মসূচি শেষে তারা বলেন, আন্দোলনের মাধ্যমেই ভিসিকে অপসারণ করে জাহাঙ্গীরনগরকে কালিমামুক্ত করা হবে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের হল খুলে দেওয়াকে শিক্ষার্থীদের একটি নৈতিক বিজয় বলে অভিহিত করেন আন্দোলনকারীরা।

গতকাল দুপুরে ভিসির অপসারণ দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুরাদ চত্ত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন তারা। মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক ও প্রশাসনিক ভবন প্রদক্ষিণ করে বটতলায় একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্যদিয়ে শেষ হয়।
সমাবেশে দর্শন বিভাগের অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভূঁইয়া বলেন, গত ৫ নভেম্বর ভিসির মদদে ছাত্রলীগ শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে হামলা চালায়। এভাবেই ভিসির দুর্নীতির ক্ষতিয়ান দীর্ঘ হচ্ছে। কিন্তু আমরা বলে দিতে চাই আন্দোলনের মাধ্যমেই ভিসিকে অপসারণ করে জাহাঙ্গীরনগরকে কালিমামুক্ত করা হবে।
জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুশফিক উস সালেহীন বলেন, বর্তমান প্রশাসন হল খুলে দিয়েছে যা, শিক্ষার্থীদের একটি নৈতিক বিজয়। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের লেলিয়ে দিয়ে ভিসি আমাদের ওপর ঠিক একমাস আগে হামলা চালিয়েছিল। আমাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে উস্কানি দিলে জাহাঙ্গীরনগর আবার অস্থির হবে।
সমাবেশ শেষে আগামী ১০ ডিসেম্বর ভিসির দুর্নীতির ক্ষতিয়ান প্রকাশ করা হবে বলে ঘোষণা দেন আন্দোলনের সমন্বয়ক অধ্যাপক রাইহান রাইন।
জাবি শাখা ছাত্রফ্রন্টের (মার্ক্সবাদী) সাধারণ সম্পাদক সুদীপ্ত দের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক শাকিলুজ্জামান শাকিল।
উল্লেখ্য, দীর্ঘ অচলাবস্থা শেষে গত বুধবার অনুষ্ঠিত জরুরি সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গতকাল সকাল ১০টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলসমূহ খোলা হয়। এছাড়া আগামী রোববার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম শুরুর ঘোষণা দেয়া হয়।
সকাল থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে আসতে শুরু করে শিক্ষার্থীরা। হলের ক্যান্টিন, ডাইনিংসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা সংলগ্ন সকল দোকানপাট খুলে দেয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয় ঘুরে দেখা যায় পরিবহন চত্ত্বর, টারজান পয়েন্ট, মেডিকেল চত্ত্বর, পুরাতন কলার সামনে, মুরাদ চত্বরসহ ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে শিক্ষার্থীদের বিচরণে পূর্বেকার পরিবেশে ফিরে আসছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন