ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন জীবন নিয়ে ‘শঙ্কিত’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

শাজাহান খানের ‘মুখোশ খুলে দেয়ার’ হুমকির পর গতকাল নিজের জীবন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন। একই সঙ্গে অভিযোগ প্রমাণের জন্য চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে ২৪ ঘন্টা সময় বেধে দিয়েছেন। গতকাল সংবাদ সম্মেলন করে পরিবহন শ্রমিক নেতা সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খানকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, শাহাজান খান বারবার চালক-মালিকদেরকে আমার, আমার সংগঠন, আমার পরিবার ও নিসচার সদস্যদের বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তুলছেন। যার ফলে আমি শঙ্কিত আমার জীবন নিয়ে, আমার পরিবারের সদস্যদের জীবন নিয়ে, আমার সংগঠনের সকল স্তরের নেতাকর্মীদের জীবন নিয়ে। এজন্য নিরাপত্তা চেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম মিলনায়তনে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় শাজাহান খানের মিথ্যাচারের বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়া কথা জানিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তার বিরুদ্ধে দেয়া বক্তব্যের সপক্ষে প্রমাণ দিতে বা ক্ষমা না চাইলে আইনি ব্যবস্থা নেবেন। একই ঘটনায় এর আগে বেঁধে দেয়া ২৪ ঘণ্টার সময়সীমা পার হওয়ার পর নতুন করে এ সময়সীমা দিলেন ইলিয়াস কাঞ্চন।
সংবাদ সম্মেলনে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, গত ৮ ডিসেম্বর পরিবহন শ্রমিক নেতা শাজাহান খান নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে একটি অনুষ্ঠানে বলেছিলেন ‘ইলিয়াস কাঞ্চন কোথা থেকে কত টাকা পান, কি উদ্দেশ্যে পান, সেখান থেকে কত টাকা নিজে নেন, পুত্রের নামে নেন, পুত্রবধ‚র নামে নেন সেই হিসেবটা আমি জনসম্মুখে তুলে ধরবো।’
নিসচা চেয়ারম্যান বলেন, আমি শঙ্কিত। যে টাকার হদিস শাজাহান খান দিতে চাইছেন সেই টাকা ছুঁয়ে দেখা তো দ‚রের কথা, আমি এবং আমার সংগঠন চোখেও দেখেনি। যদি তিনি দেখে থাকেন, জেনে থাকেন তাহলে হদিস দিন। কারণ আমাদের নামের টাকা অন্য কেউ নিয়ে যায়নি তো? শাজাহান খান সাহেবকে বিষয়টা পরিস্কার করতে হবে। যেটা সত্য, সেটা তুলে ধরতে হবে। নতুবা এই টাকার তীর আমিও তার দিকে ছুঁড়তে পারি। কারণ তিনি যেভাবে নিশ্চিত (!) হয়ে বলছেন তাতে আমার সন্দেহ হওয়াটা অম‚লক নয়।

নিসচা কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন শামীম আলম দীপেন, সাদেক হোসেন বাবুল, বেলায়েত হোসেন খান নান্টু, নাসিম রুমি, এস এম আজাদ হোসেন, একে আজাদ, আবদুর রহমান প্রমূখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
Jafrul Kabir ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:৪৫ এএম says : 0
সত্যিই উনি কতটুকু নিরাপদে আছে? ভাবনার বিষয়।
Total Reply(0)
B Haidar ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:৪৫ এএম says : 0
স্যার আপনি রাজনিতির মাধ্যমে মাঠে আসুন। তাহলে এই দেশের জনগনের উপকারে আসবে।
Total Reply(0)
Alomgir Kabir Nayan ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:৪৬ এএম says : 0
ক্ষমতাসিনের কাছে বিচার দাবি যেটাই বলেননা কেন কোন লাভ নাই অপমান ছাড়া। উল্টো গুম হাযলা মামলায় পড়তে হবে।
Total Reply(0)
Anwarul Azim ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:৪৬ এএম says : 0
কেন শুধু শুধু বিচার চান সবাই?যাদের কাছে বিচার চাচ্ছেন তারাই তো সব ঘটনার মুল আসামি।
Total Reply(0)
AG Willian ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:৪৭ এএম says : 0
সরকারকে একটা আইন করার আগে সবার কথাই ভাবতে হয়। পরিবেশ পরিস্থিতি ভুত ভবিষ্যৎ সব বিবেচনায় নিয়ে আইন করা হয়। একদলের আন্দোলন থামাতে গিয়ে আরেক দলকে রাস্তায় নামানো সরকারের বিচক্ষনতা নয়। এতে করে দেশের মানুষের ভোগান্তিই হয়।
Total Reply(0)
Syed ehsanul huque ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৯:৫৪ এএম says : 0
Challenge to Mr. Shahjahan Khan. Because I am secretary general of nischa
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন