ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারতে থাকবে তো আমার নাগরিকত্ব?

বিজেপির এমপি রুপা গাঙ্গুলির প্রশ্ন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

ভারতের নাগরিকত্ব আইন-২০১৯ এর প্রতিবাদে বর্তমানে উত্তাল ভারতের আসাম, ত্রিপুরা, মেঘালয় ও পশ্চিমবঙ্গসহ বেশ কয়েকটি রাজ্য। এসব রাজ্যে হরতালসহ বিভিন্ন কর্মস‚চির মাধ্যমে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলেছেন সাধারণ মানুষ।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি) পাশ হওয়ার পর একটি টুইট করেছেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেত্রী ও বিজেপির সংসদ সদস্য রূপা গাঙ্গুলী। তিনি লেখেন, আমি তো খান টাইগারের বেগম হয়ে যাচ্ছিলাম। আমাকে অপহরণ করতে এসেছিল তারা। সে রাতে যদি আমি এবং আমার মা বোরকা পরে বাংলাদেশের দিনাজপুর থেকে পালাতে না পারতাম, তবে আজ বিজেপির সংসদ সদস্য হতে পারতাম না। তিনি আরও লেখেন, ৪০ বছর আগে বোরকা পরে বাংলাদেশ থেকে ভারতে গিয়েছিলেন রূপা গাঙ্গুলী। সে হিসেবে তিনি অনুপ্রবেশকারী। তাহলে ভারতে রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি) অনুযায়ী তার নাগরিকত্ব কি থাকবে?

রূপার এমন টুইটে অনেক ভারতীয় প্রশ্ন তুলেছেন, তবে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) আওতায় রূপা গাঙ্গুলীকে কি এখন শরণার্থী ধরা হবে? তাকে কি এখন নাগরিক হওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে? কেউ কেউ বলেছেন, তাকে (রূপা গাঙ্গুলী) যদি এখন ভারতীয় নাগরিক বলে বিবেচনা না করা হয় তবে তিনি কি করে সংসদ সদস্য হয়ে বিধানসভায় থাকতে পারেন? তিনি তো নাগরিকই নন।

এ বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ও তৃণম‚ল নেতা ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘রূপা গাঙ্গুলী নিজেই বলছেন, উনি বাংলাদেশ থেকে বোরকা পরে এসেছেন। সে বিচারে উনি নাগরিক নন, একজন অনুপ্রবেশকারী। সেটা হলে বিজেপি তাকে সংসদ সদস্য করল কী করে?

এখনই রূপা গাঙ্গুলীর পদত্যাগ করা উচিত বলে মনে করেন ফিরহাদ হাকিম। এমন বিতর্কের জবাব এসেছে বিজেপি থেকেও। পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘রূপা শরণার্থী হয়ে থাকলে আগামীকালই নাগরিকত্বের আবেদন করে ভারতের নাগরিক হতে পারবেন। এ নিয়ে পানি ঘোলা করার কিছু নেই।’ রূপাই প্রথম নন, শরণার্থী অবস্থায় পশ্চিমবঙ্গ, আসামসহ অনেক রাজ্য থেকেই অনেকে সংসদ সদস্য হয়েছেন বলে দাবি করেন দিলীপ ঘোষ।

এদিকে, দিলীপ ঘোষের এমন জবাবে তার দিকে এক ঝাঁক প্রশ্নের তীর ছুড়েছেন বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীরা। তারা বলছেন, ‘অ-নাগরিক’ সংসদ সদস্যদের নিয়ে গঠিত সরকার কি বৈধ? রূপার মতো বাংলাদেশ থেকে ভারতে অনুপ্রবেশকারীরা কি শরণার্থী হিসেবেই নাগরিকত্বের অধিকার ভোগ করছেন? এটা কি স্ববিরোধিতা নয়? প্রসঙ্গত, রূপা গাঙ্গুলী একজন ভারতীয় অভিনেত্রী, গায়িকা ও বিজেপি দলীয় সংসদ সদস্য। কথাসাহিত্যিক মানিক বন্দোপাধ্যায়ের কালজয়ী উপন্যাস ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ ছবিতে কপিলা চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। ২০১৫ সালে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি থেকে দাঁড়িয়ে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Riyad Khan N ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৬ এএম says : 0
বাংলাদেশের মতো হিন্দুরা অন্য কোন দেশে এতটা নিরাপদ নয়। বর্তমান সরকারের সময় যতো হিন্দু চাকরি পেয়েছে আমার মনে হয় এতো মুসলমান চাকরি পেয়েছে বলে মনে হয় না। বাংলাদেশে এক ধর্মের মানুষ অন্য ধর্মের মানুষকে ঘৃনার চোখে দেখে না।
Total Reply(0)
S.m. Shumon ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৬ এএম says : 0
ভারতের বর্তমান অবস্থার গতিপথ বদলাতে এই মিথ্যাচার। তোমাদের পাপের পাল্লা অনেক বারি হয়েছে।আর তার বিনাশ ও অতি নিকটে সুনিশ্চিত
Total Reply(0)
Habibul Haque ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৬ এএম says : 0
আপনি কি খুব সুন্দরী, বরকা পরতে হবে কেন, নিজেকে আপনি কি ভাবেন বুজতে পারছি না, আপনি এলে গেলে আমাদের কিছুই আসে যায় না, নিজেকে আহামরি ভাব্বেন না, আপনি নিজেকে কি ভাবেন
Total Reply(0)
তুষার আহমেদ ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:১৮ এএম says : 0
সেটা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ আছে
Total Reply(0)
সফিক আহমেদ ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:২১ এএম says : 0
এখনও সময় আছে ভারতের নাগরিকত্ব আইন-২০১৯ এর জোরালো প্রতিবাদ করুন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন