ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ডিজিটালাইজেশনের ফলে দেশে দুর্নীতি কমেছে এবং সেবার মান বেড়েছে: পলক

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৯:৪০ পিএম

‘দেশের শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনী ভাবনার মাধ্যমে উদ্যোক্তা হতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্টারপ্রেনারশিপ একাডেমি (আইডিয়া) স্থাপন করেছেন। স্টার্ট আপ বাংলাদেশ নামে একটি আয়োজনের উদ্বোধন করা হয়েছে। আমরা এই একাডেমির মাধ্যমে এন্টারপ্রেনারশিপ সাপলাই চেইন তৈরি করতে দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট স্টার্ট আপ প্রোগ্রাম শুরু করেছি। নতুন উদ্ভাবকদের আর্থিক সহযোগিতার উদ্দেশ্যে স্টার্ট আপ বাংলাদেশ প্রোগ্রামকে ১০০ কোটি টাকা বাজেট প্রদান করা হয়েছে। আমাদের নবীন উদ্যোক্তা শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত অফেরতযোগ্য ঋণ প্রদান করা হবে। এছাড়া তাদের পণ্যগুলোকে বাজারজাত করতে ভবিষ্যতে এক থেকে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হবে।’- তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এসব কথা বলেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) মিলনায়তনে আয়োজিত ‘সত্য-মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টারনেটে শেয়ার পরে’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটালাইজেশনের ফলে দেশে দুর্নীতি কমেছে এবং সেবার মান বেড়েছে। একই সঙ্গে ডিজিটাল প্রযুক্তির অসচেতন ব্যবহারের ফলে কখনো কখনো জানমালের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়েছে। যোগাযোগ মাধ্যমের ভুল ব্যবহারের কারণেই এরকম দুঃখজনক ঘটনা ঘটছে। তাই ইন্টারনেট এবং প্রযুক্তির যথেচ্ছ ব্যবহার না করে সঠিক ব্যবহার করলেই আমরা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারব। দেশের উন্নয়ন ও সম্ভাবনাকে টেকসই করতে হলে আমাদের ডিজিটাল স্পেসকে নিরাপদ রাখতে হবে।

জুনাইদ আহমেদ পলক আরও বলেন, ‘সারাবিশ্বে প্রযুক্তি খাতের গুরুত্ব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
ক্রমবর্ধমান প্রযুক্তি খাতকে কাজে লাগিয়ে আমরা এমন কিছু পণ্য উহার দিতে চাই, যার মাধ্যমে বাংলাদেশকে পুরো বিশ্ব একটি প্রযুক্তি নির্ভর মেধাবী জাতি হিসেবে চিনতে পারে। বর্তমানে সারা বিশ্বে ১১ বিলিয়ন ইন্টারনেটে সংযুক্ত ডিভাইস রয়েছে। এটি বেড়ে ২০২৫ সাল নাগাদ প্রায় এক ট্রিলিয়নে পৌঁছাবে। ২০১৯ সালে ইন্টার অব থিংসের (আইওটি) বাজার মূল্য ২০০ বিলিয়ন ডলার, যা ২০২৫ সালে যা এক দশমিক ৬ ট্রিলিয়ন ডলারে গিয়ে দাঁড়াবে। ক্রমবর্ধমান এই খাতের গুরুত্ব বিবেচনায় রুয়েটে আইওটি ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। যেন এই ল্যাবের দ্বারা আমাদের শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবিত পণ্যের মাধ্যমে আমরা বিশ্ব জয় করতে পারি।’

কর্মশালায় আইওটি ল্যাব ও ‘মোবাইল গেইমস অ্যান্ড অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট সেন্টার’ ল্যাবের উদ্বোধন করা হয়। সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অর্থায়নে প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে এ ল্যাব দু’টি নির্মিত হয়েছে।

রুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক মো. রফিকুল ইসলাম সেখের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য অধ্যাপক মো. সাজ্জাদ হোসেন। এছাড়া অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন রাজশাহীর ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক’ প্রকল্পের পরিচালক একেএএম ফজলুল হক।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন