ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

স্বাস্থ্য

অবাঞ্ছিত লোম দূরীকরনে লেজার চিকিৎসা

ডাঃ কানিজ রহমান | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০২০, ৮:৪৬ পিএম

এটি সাধারনত মেয়েদের বিশেষ কিছু জায়গায় মোটা, ঘন অতিরিক্ত লোম আকারে দেখা দেয়। যেমন: মুখমন্ডলে (আপারলিপ ও চোয়ালে), বুকের উপরের অংশে, পেটে নাভীর চারপাশে ইত্যাদি। অবাঞ্ছিত লোম বিশেষ কিছু কারনে হতে পারে। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল-

চঈঙং, অতিরিক্ত অহফৎড়মবহ (হরমোন), বিশেষ কিছু রোগ-ঙাধরৎধহ টিউমার অফৎবহধষ গ্রন্থি ও চরঃঁরঃধৎু গ্রন্থির রোগ প্রভৃতি, কিছু ওষুধ সেবন বা ব্যবহার যেমন মিনোক্সিডিল, স্টেরয়েড প্রভৃতি । উপরোক্ত কারন সমূহ বিদ্যমান থাকলে আমরা রোগীর মধ্যে আরো কিছু লক্ষন পেয়ে থাকি।
যেমন:*চঈঙং এর ক্ষেত্রে অবাঞ্ছিত লোম হওয়ার সাথে মাসিকের অনিয়ম, ওজন বৃদ্ধি হওয়া এবং মুখে ব্রন হওয়া।
*অহফৎড়মবহ হরমোন বৃদ্ধি হলে আমরা নিম্নের লক্ষনগুলো পাই: 
গলার স্বর মোটা হয়ে যাওয়া, ব্রন,স্থুল মাংশ পেশী, মাথার চুল পাতলা অথবা পড়ে যাওয়া ইত্যাদি
কারন সনাক্ত করার জন্য রোগীর কাছ থেকে সর্ম্পূন ইতিহাস বিস্তারিত ভাবে জানতে হবে কোন ওষুধ সেবন করেছে কিনা, এবং এই লক্ষণ গুলো আছে কিনা; আরও নিশ্চিত হওয়ার জন্য নিম্নের পরীক্ষাগুলো করা হয়। টঝএ ড়ভ অনফসবহ, অহফৎড়মবহ হরমোন খবাবষ ইত্যাদি
অবাঞ্ছিত লোম নিয়ে নারীরা অনেক বিব্রত থাকেন। বর্তমানে অবাঞ্ছিত লোম দূরকরনের অত্যন্ত কার্যকারী, নিরাপদ ও সাশ্রয়ী চিকিৎসা পদ্ধতি হল লেজার। আর এই লেজার সম্পর্কে ধারনা থাকা অত্যাবশক।
লেজার কি?
লেজার এক ধরনের বিশেষ রশ্নি যা শুধুমাত্র চুলের গোড়ায় কাজ করে এই রশ্নির মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে ঘন লোম পাতলা ও সংখ্যায় কমিয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় আনা হয়। সাধারনত আনুমানিক ৬-৮ সেশন লাগে, এক মাস অন্তর অন্তর। তবে রোগীর লোমের অবস্থা ও তীব্রতা অনুযায়ী কয়টি সেশন লাগবে সেটা নিশ্চিত করা হয়। এটি সম্পূন নিরাপদ ও সহনীয় চিকিৎসা পদ্ধতি। অবাঞ্ছিত লোম দূরীকরনে বিভিন্ন ধরনের লেজার আছে যেমন: জঁনর খধংবৎ, উরড়ফব খধংবৎ, অষবীধহফৎরঃব খধংবৎ, ঘফ:ণঅএ খধংবৎ, ও ওচখ খধংবৎ। সবগুলো পদ্ধতি অত্যন্ত নিরাপদ ও কার্যকরী। লেজার চিকিৎসার পাশাপাশি অন্যান্য কারন গুলোর লক্ষণ যদি থাকে তাহলে সেই রোগেরও চিকিৎসা করতে হবে। তাহলেই একটা সন্তোষজনক ও স্থায়ী ফলাফল প্ওায়া যাবে বলে মনে করি ।

কনসালট্যান্ট ডার্মাটোলজিস্ট
সহকারি অধ্যাপক, আদ-দ্বীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল,
অরোরা স্কিন অ্যান্ড অ্যায়েসথেটিকস,
৫৫/২, পশ্চিম পান্থপথ,ঢাকা ১২০৫ ।
সেল- ০১৭৪৩২৬৬৫১৫, ০১৯৯২৬৮০৭১৬।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
মো: জিহাদ ইসলাম ২৯ এপ্রিল, ২০২০, ৯:২৯ এএম says : 0
আগের চেয়ে অনেক লোম উঠছে শরীরে এর থেকে বাচার উপায়
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন