ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জাতির উদ্দেশে আজ ভাষণ দিচ্ছেন ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৪১ পিএম

ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের হামলার পরে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার ভোরে হামলার কিছুক্ষণ পরই ট্রাম্প সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ভাষণ দেয়ার কথা জানান।
ইরাকি সময় অনুযায়ী বুধবার রাতেই (যুক্তরাষ্ট্র সময় বুধবার সকালে) ভাষণ দেয়ার কথা রয়েছে ট্রাম্পের। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ইতোমধ্যেই ট্রাম্পের ভাষণের জন্য জরুরি ভিত্তিতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন তার শীর্ষস্থানীয় উপদেষ্টারা। তবে ঠিক কখন ভাষণ দেবেন সেটি এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। প্রাথমিকভাবে বুধবার রাতের কথা বলা হলেও তথ্য সংগ্রহের জন্য ট্রাম্পের ভাষণ কিছুটা দেরি হতে পারে।
ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হোয়াইট হাউসের নিরাপত্তা আরো জোরদার করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। অ্যাসল্ট রাইফেল হাতে হোয়াইট হাউসের কাছে চেক পয়েন্টে সিক্রেট সার্ভিসের কর্মকর্তাদের উপস্থিত দেখা গেছে।
আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হামলার পর হোয়াইট হাউসে জাতীয় নিরাপত্তা টিমের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ট্রাম্প। এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র স্টেফানি গ্রিশাম বলেন, ইরাকে মার্কিন স্থাপনায় হামলার বিষয়ে আমরা অবগত আছি। প্রেসিডেন্টকে জানানো হয়েছে এবং জাতীয় নিরাপত্তা টিমের সঙ্গে তিনি বিষয়টি নিবিড়ভাবে পর্যালোচনা করছেন ও পরামর্শ দিচ্ছেন।
এর আগে বুধবার ভোরে এক ঘণ্টার ব্যবধানে ইরাকে দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে অন্তত এক ডজন ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। ইরানের ভূমি থেকে ইসলামি রেভল্যুশনারি গার্ডের (আইআরজিসি) সদস্যরা ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ছোড়ে বলে পার্সটুডের খবরে বলা হয়েছে।
হামলার পরপরই ইরান এবং যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বিবৃতি দেয়া হয়। পেন্টাগন জানায়, ইরবিল ও আল-আসাদ বিমান ঘাঁটিতে মিসাইল হামলা হয়েছে। ইরান থেকেই মিসাইলগুলো নিক্ষেপ করা হয়েছে।
এতে আরো বলা হয়েছে, জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যার কাপুরুষোচিত পদক্ষেপের ‘কঠোর প্রতিশোধ’ নেয়ার প্রতিশ্রæতি বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। আজ (বুধবার) ভোরে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন বিমানঘাঁটি ‘এইন আল-আসাদ’র ওপর ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য অসংখ্য ক্ষেপণাস্ত্র বর্ষণ করে ঘাঁটিটিতে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। তারা অভিযানটির নাম দিয়েছে ‘শহীদ সোলাইমানি’।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন