ঢাকা, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মামলা হলেও গ্রেফতার নেই

তেজগাঁও রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে চুরি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে চুরির ঘটনায় অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় মামলাটি করেন ঢাকার বাড্ডা অঞ্চলের সাব- রেজিস্ট্রার মনির হোসেন। তবে গতকাল পর্যন্ত এ ঘটনার রহস্য উদঘাটন বা জড়িতদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ওসি (তদন্ত) কাজী শরীফুল ইসলাম দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, চুরির ঘটনা উল্লেখ করে ৪৫৭ ও ৩৮০ এই দুটি ধারায় মামলাটি করেছেন সাব-রেজিস্ট্রার মনির হোসেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশ কাজ করছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। আমরা চেষ্টা করছি।

তদন্তের সাথে জড়িত এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ঘটনার পর পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) ঘটনাস্থল থেকে হাত ও পায়ের ছাপের আলামত সংগ্রহ করেছে। কমপ্লেক্স ভবনে কর্তব্যরত তিন নিরাপত্তাকর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাতে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলে অবস্থিত ঢাকা জেলা রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে চুরির ঘটনাটি ঘটেছে। চোরেরা দুই বস্তা কাগজপত্র ও সিসি ক্যামেরার ডিভিআর চুরি করে নিয়ে গেছে। জেলা রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে জমির দলিল সংরক্ষিত থাকে। সকালে চুরির ঘটনা জানতে পারেন কর্মকর্তা- কর্মচারীরা।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার পুলিশ প্রাথমিক তদন্তের পর জানিয়েছে, চোরের দল রেজিস্ট্রেশন কার্যালয়ের পেছনে দলিল লেখকদের টিনের চাল বেয়ে কমপ্লেক্স ভবনের দোতলার কলাপসিবল গেটের গ্রিল কেটে প্রবেশ করে। ভবনের দোতলায় বাড্ডা ও তৃতীয় তলায় উত্তরা থানার সাব- রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ের ফটকের তালা ভাঙ্গা পাওয়া যায়। এই কক্ষ দুটিতে দুটি স্টিলের আলমারি ও ড্রয়ার ভাঙ্গা ছিল। তৃতীয় তলায় জেলা রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ের ফটকের তালাও ভাঙ্গা পাওয়া গেছে। সেখানে সংরক্ষিত সিসি ক্যামেরা ডিভিআর খোয়া গেছে। তাই সিসি ক্যামেরায় কোনো ভিডিও ফুটেজ পাওয়া যায়নি।

ঢাকা জেলা রেজিস্ট্রার সাবেকুন নাহার সাংবাদিকদের বলেন, বুধবার রাতে তিনজন নিরাপত্তাকর্মী পাহারায় ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার সকালে একজন কর্মীর কাছ থেকে তিনি চুরির ঘটনা জানতে পারেন। পাশের সাব- রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে স্থাপিত সিসি ক্যামেরা থেকে দুই-তিনজন চোরকে চলে যেতে দেখা গেছে। বিষয়টি তদন্তের সাথে জড়িতদের জানানো ও তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন