ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সম্পদ শেয়ারে দারিদ্র্য ইতিহাসে চলে যাবে

প্রাইম ব্যাংকের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে গভর্নর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

দেশের মানুষকে সম্পদ ভাগাভাগি করার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। তিনি বলেছেন, আমাদের দেশের মানুষ সম্পদ শেয়ার (ভাগাভাগি) করে না, করলে দারিদ্র্য ইতিহাসে চলে যেত। গতকাল শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ভবনে প্রাইম ব্যাংকের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের একটি বক্তব্য উদ্ধৃতি করে গভর্নর বলেন, মানুষ কিন্তু সম্পদ ভাগাভাগি করে না। সম্পদ যদি সবাই ভাগাভাগি করতাম, যেখানে প্রয়োজন সেখানে দিতাম সেটা প্রাতিষ্ঠানিকভাবে হোক, সামাজিকভাবে হোক, পারিবারিকভাবে হোক আর ব্যক্তিগতভাবে হোক; তাহলে কিন্তু আমাদের দারিদ্র্য ইতিহাসে চলে যেত।

রাশিয়ান একজন লেখকের উদ্ধৃতি দিয়ে গভর্নর ফজলে কবির বলেন, আপনি একটি মোমবাতি জ্বালিয়ে দেবেন, সেই মোমবাতি দিয়ে আবার হাজারো মোমবাতি জ্বালাবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয় সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর) কর্মসূচির আওতায় প্রাইম ব্যাংক ফাউন্ডেশন শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচিতে চলতি বছর দেশের ২৬৩ জন দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীকে উচ্চশিক্ষা সম্পন্ন করার জন্য প্রতিমাসে দুই হাজার ৬০০ টাকা করে দেয়া হবে। ২০০৭ সাল থেকে ব্যাংকটি দীর্ঘমেয়াদে এই বৃত্তি দিয়ে আসছে।

প্রাইম ব্যাংক ফাউন্ডেশনের শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচির উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, সুনির্দিষ্ট ক্রাইটেরিয়াতে স্বচ্ছভাবে বৃত্তি প্রাপ্তদের নির্বাচন করা হয়। দেশে অনেক দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী থাকলেও আমরা সবার জন্য এই বৃত্তি দিতে পারছি না। আনন্দের বিষয় হচ্ছে বৃত্তি প্রাপ্তদের অনেকেই এখন প্রতিষ্ঠিত নাগরিক।

সভাপতির বক্তব্যে প্রাইম ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজম জে চৌধুরী বলেন, সারা দেশে যারা গরিব ও মেধাবী তাদের এই বৃত্তির আওতায় আমরা নিয়ে আসছি। বিষয়টি স্বচ্ছতার জন্য আমরা ম্যানেজমেন্টের বাইরে রেখেছি। আমরা যাদের বৃত্তি দিচ্ছি তাদের সাফল্যের পরিমাণ ৯৮ শতাংশ। কয়েক বছর ধরে ব্যাংকগুলো অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে। তারপরও আমরা মুনাফার চার শতাংশ সিএসআর খাতে ব্যয় করছি। অন্যদেরও এ কাজে এগিয়ে আসা উচিত। অনুষ্ঠানে প্রাইম ব্যাংকের বৃত্তি নিয়ে কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত তাসমিয়া ইসলাম, ইমাম উদ্দিন, তমালিকা কর্মকার, মো. আজাদ হোসেনকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানান অতিথিরা। এ সময় অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী, গভর্নর ফজলে কবির ও প্রাইম ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজম জে চৌধুরীকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে রিয়েল টাইম সুইচ চেপে বৃত্তি প্রাপ্ত সব শিক্ষার্থীর ব্যাংক হিসাবে প্রথম কিস্তির টাকা স্থানান্তর করা হয়।
প্রাইম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাহেল আহমেদ সবাইকে ধন্যবাদ দিয়ে গভর্নরের পরামর্শ বৃত্তির পরিমাণ ও সংখ্যা বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। বৃত্তি প্রদানের সার্বিক বিষয়বস্তু তুলে ধরেন প্রাইম ব্যাংক ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডা. ইকবাল আনোয়ার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন