ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সখিপুর থানায় ধর্ষণের চেষ্টা অভিযোগে মামলা

শালিসী বৈঠকে মীমাংসার চেষ্টা ঃ চাপা ক্ষোভ

সখিপুর(টাঙ্গাইল)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০২০, ১১:১২ এএম

টাঙ্গাইলের সখিপুরে ব্যবসায়ী লুৎফর(৩৮)এর বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়ন-ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে উপজেলার কচুয়া ভূঁইয়া পাড়া এলাকায়। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়,শুক্রবার রাতে কচুয়া ভূইয়াপাড়া মসজিদে ওয়াজ মাহফিল চলার সময় হলি চাইল্ড স্কুল এর ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে একই এলাকার মৃত শামসুল হকের ছেলে ইলেকট্রনিক্স ব্যবসায়ী লুৎফর তাকে একশত টাকা হাতে দিয়ে গোপন জায়গায় টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ওই ছাত্রীর চিৎকারে আশে-পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ঘটনাটি জানাজানি হয়ে যায়। পরে তাৎক্ষনিক ওই রাতেই গ্রাম্যশালিসে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ পারিবারিক দূর্নাম ও ছাত্রীর ভবিষ্যৎ চিন্তা করে ধর্ষিত হবার পরও ধর্ষনের বিষয়টি প্রকাশ করা হচ্ছে না। অভিযুক্ত লুৎফরের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে সে তার ছোট ভাই মোস্তফার সাথে কথা বলতে বলে। ওই ছাত্রীর পিতা আনিসুর রহমান মালয়েশিয়া প্রবাসী। ওই ছাত্রীর মা বলেন,শালিসী বৈঠকের বিচারে আমরা সন্তুষ্ট না,আমরা এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই। তিনি আরো বলেন, লুৎফরের লোকজন আমার মেয়ে ও আমাদেরকে ভয়ভীতি ও উল্টো মামলার ভয় দেখাচ্ছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ লুৎফর বাচ্চা মেয়েটিকে ধর্ষন করে অসুস্থ করে ফেলেছে,কিন্তু ধর্ষক প্রভাবশালী হওয়ায় নির্যাতিতরা মুখ খুলতে পারছে না। ওই ছাত্রীর চাচা আব্বাস বলেন,আমার ভাবী(ওই ছাত্রীর মা) আম্বিয়া বাদী হয়ে সখিপুর থানায় ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে লুৎফরকে একমাত্র আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছে। থানা পুলিশ অভিযোগ দেওয়ার দুইদিন পর মঙ্গলবার রাতে মামলা রেকর্ড করেছে। এ ব্যাপারে সখিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মো.আমির হোসেন বলেন,ধর্ষনের চেষ্টা অভিযোগে সখিপুর থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। আসামীকে গ্রেফতারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন