ঢাকা, সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ১১ শাবান ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

হারতে হারতে ড্র আবাহনীর

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৮:১৫ পিএম

এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) কাপের প্লে-অফ পর্বে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড হারতে হারতেই ড্র করল মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টস অ্যান্ড রিক্রিয়েশন ক্লাবের বিপক্ষে। বুধবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে আবাহনী দু’বার পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত ২-২ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে। মাজিয়ার পক্ষে ফরোয়ার্ড কর্নেলিয়াস এজেকিয়েল জোড়া গোল করেন। আবাহনীর হয়ে একটি করে গোল করেন ব্রাজিলের ডিফেন্ডার মেলসন আলভেস ও নাইজেলিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে চিজোবা।

আগের দু’বার পারেনি। এবারও জয়ের দেখা পেলনা আবাহনী। গত মৌসুমে এএফসি কাপে ইন্টার জোনাল সেমিফাইনালে ওঠা আবাহনীকে এবার খেলতে হচ্ছে প্লে-অফ পর্বে। গত মৌসুমে ফেডারেশন কাপে চ্যাম্পিয়ন হলেও প্রিমিয়ার লিগে রানার্সআপ হওয়ার সুবাদে সরাসরি মূল পর্বে খেলতে পারছে না বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ছয়বারের চ্যাম্পিয়নরা। অসুস্থতার কারণে জাতীয় দলের হয়ে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে খেলতে পারেননি আবাহনীর ফরোয়ার্ড নাবীব নেওয়াজ জীবন। তবে সুস্থ্য হয়ে বুধবার মাঠে ফিরেছেন তিনি। খেলেছেনও স্বভাব-সুলভ ভঙ্গিতে।

জীবনকে একাদশে পেয়ে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল উপহার দেয় আবাহনী। পাল্টা-আক্রমণে যায় মাজিয়াও। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের ম্যাচে প্রথম সফল হয় মাজিয়া। ম্যাচের ৪২ মিনিটে দুর্দান্ত ড্রিবলিং করে বল নিয়ে আবাহনীর বক্সে ঢুকে পড়ে চিপ করেন মোহাম্মদ হামজা। তার কাছ থেকে বল পেয়ে আলতো টোকায় গোল করেন কর্নিলেয়াস ইজেকিয়েল (১-০)। এই গোলটির জন্য দায়ী আবাহনীর ডিফেন্ডাররা। কারণ হামজাকে থামানোর কোনো চেষ্টাই করেননি রায়হান, নাসিররা। মিনিট তিনেক পর সেই গোল শোধ দিয়ে ম্যাচে ফিরে ঢাকার আকাশী-হলুদরা। এসময় বাঁ প্রান্ত দিয়ে সতীর্থের বাড়ানো শটে বক্সের মধ্যে বল পান ম্যালসন ভেরাইতো। ঘুরেই বাঁ পায়ের শটে গোল করে ম্যাচে সমতা আনেন তিনি (১-১)। সমতা আসার পর ফের এগিয়ে যেতে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে মাজিয়া। ম্যাচের ৬৫ মিনিটে আবারও গোল পায় অতিথি দল। এসময় বক্সের বাইরে থেকে নাইজ হাসানের জোরারো শট আবাহনী গোলকিপার সোহেল পাঞ্চ করে ফিরিয়ে দেন। কিন্তু সেই বল পেয়ে যান সামনে দাঁড়ানো কর্নিলেয়াস। বল পেয়েই ডান পায়ের শটে নিজের এবং দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন তিনি (২-১)। আক্রমণাতক ফুটবল খেলে ৮০ মিনিটে সেই গোল শোধ দিয়ে ফের ম্যাচে ফিরে আবাহনী। রায়হান হাসানের থ্রো থেকে বল পান কারভেন্স বেলফোর্ট। তিনি সামনে বল বাড়ান। বক্সের মধ্যে থাকা সানডে সিজোবা পা ছুইয়ে মাজিয়ার জাল কাঁপান (২-২)। শেষে ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে দু’দল। ১২ ফেব্রুয়ারি মালদ্বীপে গিয়ে ফিরতি লেগের ম্যাচ খেলতে হবে আবাহনীকে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন