ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ভাষা শহীদ ভাষা সৈনিক লও সালাম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

বায়ান্ন ও একুশ। একুশ মানে মাথা নত না করা। একুশ বাঙালি জাতির চেতনা। বিস্ময়কর আত্মজাগরণ। চলছে ভাষার মাস ফেব্রæয়ারি। ঘনিয়ে আসছে একুশ। ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠায় যখন বাঙালি ছিলো ঐক্যবদ্ধ। উর্দুকে একমাত্র রাষ্ট্রভাষা করার চক্রান্ত রুখে দিতে সংগঠিত হচ্ছিলেন তাঁরা। বায়ান্নর এই একুশেই রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশেই প্রতিধ্বনিত হয়েছিল রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই। আর ভাষা আন্দোলনের ৬৮ বছর পরে তাই এখন দেয়াল লিখন ও পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায়। এসব পোস্টারে শোভা পাচ্ছে ভাষা আন্দোলন নিয়ে লেখা নানা শ্লোগান ও অমর বাণী। যেসব শ্লোগানের অমর বাণীর প্রেমের টানে বাঙালি জাতি বায়ান্নর একুশে ফেব্রæয়ারিতে দলে দলে ঘর ছেড়ে বেড়িয়ে নেমেছিল এসেছিল রাজপথে। যার প্রেরণায় উদ্বুদ্ধ হয়ে উঠেছিল বীর বাঙালিরা।

তবে সেদিন শুধু ভাষার জন্য বাঙালি সন্তানরা রাজপথে নেমে আসেনি। তাঁরা গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও সা¤প্রদায়িক স¤প্রীতি রক্ষার সংগ্রামও করেছেন। এমন জীবনসংগ্রামীদের কৃতির ওপরই দাঁড়িয়ে আছে আজকের বাংলাদেশ। যার ফলশ্রæতিতে বাঙালিদের মাতৃভাষা পায় রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা। রক্তরাঙা সেই ফেব্রæয়ারি আমাদের ইতিহাসে এখনও ক্রিয়াশীল। ‹৫২›র ভাষা আন্দোলনের সফলতা জাতিকে এগিয়ে নিয়েছে মহান স্বাধীনতা আন্দোলনের দিকে। ’৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত লাল সবুজ পতাকাটি হচ্ছে এই জাতির জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর স্বাধীনতা আন্দোলন শেষ হলেও এই বঙ্গের সকল মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি মিলেনি। ’৫২’র অনুপ্রেরণা ’৭১ সালের বিজয়ের বিশ্বাস নিয়ে এখন চলছে অর্থনৈতিক মুক্তির আন্দোলন। আর এই একুশের স্মরণেই বাংলা একাডেমিতে আয়োজন করা হয়েছে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলা।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন