ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে সব প্রক্রিয়ায়ই চেষ্টা চলছে -নজরুল ইসলাম খান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৫:০০ পিএম | আপডেট : ৯:০৫ পিএম, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে সব প্রক্রিয়াই চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, আইনি প্রক্রিয়ায় আমরা তার মুক্তির চেষ্টা করেছি। প্রশাসন চাইলেই তার (খালেদা জিয়া) সুচিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা করতে পারে কিন্তু করছে না। সে ব্যাপারে আমরা সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি, কথা বলেছি। আন্দোলনের বিভিন্ন প্রোগ্রামও হয়েছে। আপনাদেরকে আমরা বলতে চাই যে, নেত্রীর মুক্তির জন্য সব প্রক্রিয়াই চেষ্টা চলছে।

রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সেগুন বাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ২০ দলীয় জোটের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ২০ দলীয় জোট আলোচনা করেই কর্মসূচি দেবে জানিয়ে ২০দলীয় জোটের সমন্বয়কারী বলেন, আগামী দিনে যে প্রক্রিয়ায়, যেই ভাবে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব, নিশ্চয় ইনশাআল্লাহ সেটাই হবে এবং ২০ দলীয় জোট সেই প্রক্রিয়ায় সম্পৃক্ত থাকবে।

সরকারের উদ্দেশ্যে নজরুল ইসলাম খান বলেন, আজকেও আপনারা যে ক্ষমতায় বসে আছেন যে গণতন্ত্রের নামাবলী গায়ে দিয়ে, যে গণতন্ত্রের দোহাই দিয়ে ওই গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার মূল নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। কৃতজ্ঞতাবোধ থেকে আপনাদের উচিত এই অসুস্থ মানুষটাকে সুস্থ হওয়ার প্রাপ্য সুযোগ দেয়া, তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা।

তিনি বলেন, আমরা জানি, তিনি কোনো অপরাধ করেন নাই। কাজেই অপরাধ থেকে কোনো মুক্তি চাই না আমরা। মানবিক ও গণতান্ত্রিক আচরণ আমরা নিশ্চয়ই চাই। আর সেই আচরণ না হলে জনগণ কিভাবে প্রতিক্রিয়া দেখায় এই দৃষ্টান্ত তো সারা দুনিয়ায় আছে। আমরা চাই যে, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় এগিয়ে যাক। আমরা গণতান্ত্রিক পন্থায় আন্দোলন-সংগ্রাম করতে চাই এবং গণতন্ত্রের পথেই আমরা গণতন্ত্রের নেত্রীকে আমাদের মাঝে ফিরিয়ে আনতে চাই। আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশের গণতন্ত্রকামী মানুষের এই আকাক্সক্ষা অবশ্যই পূর্ণ হবে এবং শিগগিরই পূর্ণ হবে ইনশাআল্লাহ।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগ সম্পর্কে বিএনপির এই নেতা বলেন, আমরা সবাই জানি যে, বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালতে সরকার কোনো অভিযোগ প্রমাণ করতে পারে নাই। প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি নাকী এতিমের টাকা চুরি করে খেয়েছেন। অথচ সেই ২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা এখন প্রায় ৮ কোটি টাকা হয়ে গেছে। সেখান থেকে এক পয়সাও তসরুফের প্রমাণ আদালতে হয় নাই। কিন্তু মিথ্যা কথা বলে বিচার বিভাগকে বিভ্রান্ত করা হয়েছে, বিচার বিভাগের ওপর চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে।

লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, আহসান হাবিব লিংকন, জামায়াতে ইসলামীর আবদুল হালিম, মঞ্জুরুল ইসলাম ভুঁইয়া, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, ন্যাপ-ভাসানীর আজহারুল ইসলাম, জাগপার দুই অংশের খন্দকার লুৎফর রহমান ও আসাদুর রহমান খান, এলডিপির দুই অংশের ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল ও সাহাদাত হোসেন সেলিম, ইসলামী ঐক্যজোটের মাওলানা আবদুল করীম, মুসলিম লীগের শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, ডিএলের সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, এনডিপির আবু তাহের, ইসলামিক পার্টির আবুল কাসেম, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মাওলানা মহিউদ্দিন ইকরাম, কল্যাণ পার্টির নুরুল কবীর ভুঁইয়া পিন্টু, সাম্যবাদী দলের সৈয়দ নুরুল ইসলাম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন