ঢাকা শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ আশ্বিন ১৪২৭, ০৭ সফর ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

কিশোরগঞ্জ জেলায় ইজতেমা শুরু ৫ মার্চ

পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে আগামি ৫ মার্চ থেকে শুরু হবে কিশোরগঞ্জ জেলা ইজতেমা। ভারতের বিশ^ তাবলীগ মারকাজের সাবেক আমীর মাওলানা সা’দ কান্ধলভীর অনুসারীদের আয়োজনে হওয়া এই জেলা ইজতেমার সমাপ্তি হবে ৭ মার্চ আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে।
এ ইজতেমা সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য এরই মধ্যে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ শুরু করেছে তাবলীগ জামাত কর্তৃপক্ষ। আগামি ৪ মার্চের মধ্যে ইজতেমা ময়দানের প্রয়োজনীয় সব প্রস্তুতি চূড়ান্তভাবে শেষ করার জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সম্প্রতি কিশোরগঞ্জ জেলা ইজতেমা-২০২০ আয়োজনের প্রস্তুতি সংক্রান্ত জেলা কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
সরেজমিনে ইজতেমা মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলার মির্জাপুর এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে কিশোরগঞ্জ জেলা ইজতেমার প্রস্তুতির কাজ পুরোদমে চলছে। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা নিয়ে মাঠে কাজ করছেন তাবলীগ জামাতের স্বেচ্ছাসেবীরা। মাঠে উপস্থিত থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিচ্ছে পাকুন্দিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম রেনুসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। ব্রহ্মপুত্র নদের চরে বিশাল এলাকা নিয়ে প্যান্ডেল সাজানো হচ্ছে। এ ইজতেমায় লক্ষাধিক ধর্মপ্রাণ মুসল্লির উপস্থিতির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তাবলীগ জামাতের মুরব্বিরা।
মাঠের প্রস্তুতি কাজের জিম্মাদার হাজী শফিকুল আলম বাচ্চু জানান, ইজতেমার সাথীদের অবস্থানের জন্য পর্যাপ্ত স্থান নিশ্চিতের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে এ বছর ব্রহ্মপুত্র নদের চরে বিশাল জায়গায় ইজতেমার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। জেলার ১৩টি উপজেলা ছাড়াও আশপাশের উপজেলা থেকেও তাবলীগ জামাতের লক্ষাধিক সাথী ভাইয়েরা এ ইজতেমায় অবস্থান করবেন।
পাকুন্দিয়া থানার ওসি মো. মফিজুর রহমান জানান, এ বিষয়ে ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতিপত্র তিনি এখনো পাননি। তবে তিনি শুনেছেন জেলা প্রশাসকের কাছে এ বিষয়ে অনুমতির জন্য আবেদন করেছেন তাবলীগ জামাত কর্তৃপক্ষ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন