রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সিরিয়ায় তুরস্ক-রাশিয়া দ্বন্দ্ব, আসাদের মুখে হাসি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৭:৩৩ পিএম

রাশিয়া ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনার সুযোগে সিরিয়ার আসাদ সরকার আলেপ্পো প্রদেশের বড় অংশের নিয়ন্ত্রণ কেড়ে নিয়েছে। মস্কো ও আংকারার আলোচনার আগে আমেরিকা রাশিয়ার উপর চাপ বাড়াচ্ছে।

সিরিয়ায় প্রভাব বিস্তার করার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক শক্তিগুলির মধ্যে রেষারেষি যতই বাড়ছে, বাশার আল আসাদ সরকারের ক্ষমতাও ততই সম্প্রসারিত হচ্ছে। রোববার আসাদ বাহিনী উত্তর পশ্চিমে আলেপ্পো প্রদেশের আরো এলাকার নিয়ন্ত্রণ বিদ্রোহীদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে। সেই এলাকায় তুরস্ক ও রাশিয়ার মধ্যে উত্তেজনার ফলে বিদ্রোহীদের অবস্থান দুর্বল হয়ে পড়েছিল। এতকাল এই দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতার ফলে আসাদ বাহিনী কিছুটা কোণঠাসা হয়ে ছিল।

ন্যাটোর সদস্য দেশ হওয়া সত্ত্বেও সিরিয়ায় নিজস্ব স্বার্থ রক্ষা করতে তুরস্ক যাবতীয় সমালোচনা উপেক্ষা করে ২০১৮ সালে রাশিয়ার সঙ্গে হাত মিলিয়েছিল। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের জন্য সেই সহযোগিতা শেষ পর্যন্ত সুখকর হয়নি। রাশিয়ার সঙ্গে স্বার্থের সংঘাতের কারণে মনোমালিন্য বাড়ছে। সংকট কাটাতে দুই দেশের মধ্যে সোমবার মস্কোয় আলোচনা হবার কথা।

তুরস্ক বাশার আল আসাদকে অপসারণ করতে বদ্ধপরিকর। আসাদ গত প্রায় নয় বছর ধরে গৃহযুদ্ধ সত্ত্বেও ক্ষমতায় টিকে রয়েছেন। রাশিয়ার মদতে তার প্রশাসন ও সামরিক বাহিনী শক্তি আরো বাড়িয়ে নিতে সক্ষম হয়েছে। গত দুই সপ্তাহে আসাদ বাহিনীর হামলায় ১৩ জন তুর্কি সৈন্য নিহত হয়েছে। মস্কোর উদ্দেশ্যে তুরস্ক আসাদের রাশ টানার ডাক দিয়েছে। চলতি মাসের মধ্যে সিরীয় বাহিনী সেই এলাকা থেকে প্রত্যাহার না করলে তুরস্ক পাল্টা হামলার হুমকি দিয়েছে।

রাশিয়া তুরস্কের ডাকে এখনো সাড়া দেয়নি। রোববার রুশ বিমানবাহিনী আলেপ্পো প্রদেশে বিরোধী নিয়ন্ত্রিত এলাকার উপর বোমাবর্ষণ করেছে। আসাদ বাহিনী সেই সুযোগে জায়গা দখল করেছে। ইরান-সমর্থিত মিলিশিয়া বাহিনীও সেই কাজে মদত করেছে। সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস সংগঠনের সূত্র অনুযায়ী আসাদ বাহিনী মাত্র এক দিনে আলেপ্পোয় যে সাফল্য পেয়েছে, গত আট বছরে তা সম্ভব হয়নি। অন্যদিকে তুরস্ক সমর্থিত বিদ্রোহীরা পিছু হঠতে বাধ্য হয়েছে।

তুরস্ক ও রাশিয়ার মধ্যে উত্তেজনার সুযোগে অ্যামেরিকাও তুরস্কের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতির চেষ্টা করছে। রোববার হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শনিবার টেলিফোনে এরদোগানের সঙ্গে কথা বলেছেন। সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে হিংসা সম্পর্কে তিনি দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেছেন এবং মানবিক বিপর্যয় এড়াতে তুরস্কের ভূমিকার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। ট্রাম্প আসাদের প্রতি রাশিয়ার সমর্থনের সমাপ্তি ও গোটা সংকটের রাজনৈতিক সমাধানসূত্রের আশা করেন। তিনি সরাসরি রাশিয়ার উদ্দেশ্যে সিরিয়ার সরকারের নৃশংসতার প্রতি সমর্থন বন্ধ করার ডাক দিয়েছেন। সূত্র: রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
jack ali ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:৪৫ পিএম says : 0
O'Allah please punish Barbarian rusia/asad/iran.... destroy completely... Ameen
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন