ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ব্র্যাক সেন্টারে আন্তর্জাতিক সেমিনার ‘রোহিঙ্গাদের সম্মানের সঙ্গে দেশে ফেরাতে হবে’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

কক্সবাজারের শরণার্থী শিবিরে অবস্থানরত রোহিঙ্গা মুসলিমদের মিয়ানমারে সন্মাজনকভাবে ফেরত পাঠানোর প্রতি গুরুত্বারো করে বক্তারা বলেছেন, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমার ফেরানো যেন টেকসই হয়, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সেভাবে কাজ করতে হবে। নিজ ভ‚মিতে ফেরা তাদের মৌলিক অধিকার। এ সংকট সমাধানে বিশ্ব সম্প্রদায়কে গুরুত্ব দিতে হবে, টেকসই সমাধানে যে উদ্যোগ প্রয়োজন, তা নিতে হবে। ফলে বারবার বাংলাদেশকে ভুগতে হবে না। গতকাল মঙ্গলবার ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর পিস অ্যান্ড জাস্টিস ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর জেনোসাইড স্ট্যাডিজের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘রোহিঙ্গা, দ্যা নিড ফর জাস্টিস অ্যান্ড রাইটস ইন রাখাইন’ শীর্ষক প্যানেল আলোচনায় বক্তারা একথা বলেন।
রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে আয়োজিত সভায় অস্ট্রেলিয়ান লিবারেল পার্টির সভাপতি ও দেশটির সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ফিলিপ রুডোক বলেন, রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে হবে। মানবাধিকার, শিক্ষাসহ প্রতিটি মানুষের মৌলিক অধিকার। রোহিঙ্গাদের মৌলিক অধিকার সুরক্ষা করতে হবে। আমি মনে করি, পুরো বিশ্বের জন্য রোহিঙ্গা সংকট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ সংকট সমাধান করতে হবে। বিশ্ব সম্প্রদায়ের উচিত এ ইস্যু ফোকাস করা। তিনি আরো বলেন, চায়না খুবই ক্রিটিক্যাল। চীন একদিকে রাখাইনে বিনিয়োগ করার কথা বলছে, চীনের প্রেসিডেন্টও সম্প্রতি সফর করেছেন। আরেকদিকে বলছে, রোহিঙ্গা ইস্যুতে তারা বাংলাদেশের সঙ্গে রয়েছে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন ক্রিটিক্যাল অবস্থানে রয়েছে। চায়না-রাশিয়াসহ সব পক্ষকে নিয়ে কাজ করলে সমাধান হবে।
বার্মিজ রোহিঙ্গা অর্গানাইজেশন ইউকের কোন্ডফাউন্ডার তুন খিন বলেন, আমরা দেশে ফিরে যেতে চাই। সম্মানের সঙ্গে যেতে চাই। মিয়ানমারকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে অবশ্যই নাগরিকত্ব দিতে হবে। যখন তারা নাগরিকত্ব দেওয়া নিশ্চিত করবে, তখনই রোহিঙ্গারা ফিরে যাবে। বিশ্ব সম্প্রদায়কে মিয়ানমারের উপর চাপ সৃষ্টি করতে হবে। বিষয়টির টেকসই সমাধান প্রয়োজন।
আরাকান রোহিঙ্গা ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন সিডনির ফরেন অ্যাফেয়ার কমিটির সভাপতি মাইন্ট হ্লা বলেন, বাংলাদেশ সরকার সব ধরনের সহযোগিতা করছে, এজন্য আমরা ধন্যবাদ জানাই। অস্ট্রেলিয়া সরকারও আমাদের সমর্থন দিচ্ছে। আমরা আমাদের ভ‚মিতে ফিরতে চাই। এটা আমাদের অধিকার। রোহিঙ্গা গণহত্যার বিষয়ে দ্রুত সুরাহা চাই।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজের সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন অধ্যাপক আমেনা মহসিন, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ফারাহ কবিরসহ বিশিষ্টজনেরা অংশ নেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন