ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

দুই দিনের সফরে আজ ভারত যাচ্ছেন ট্রাম্প

নাগরিকত্ব আইন ও কাশ্মীর প্রসঙ্গে আলোচনা হবে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

আজ দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতে যাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর ভারতে এটাই তার প্রথম সফর। এ উপলক্ষে ভারতে উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে আহমেদাবাদে। সফরে দুই দেশের মধ্যে কোন বাণিজ্যিক চুক্তি না হলেও কাশ্মীর পরিস্থিতি এবং ভারতের বিতর্কিত দুই আইন ‘সিএএ’ ও ‘এনআরসি’ নিয়ে কথা বলবেন ট্রাম্প। পাশপাশি তিনি শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য আলোচনায় বসতে ভারত ও পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানাবেন। মার্কিন প্রশাসনের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা এই তথ্য জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্র, ভারত উভয় পক্ষই আশা করছেন যে এই সফর দুই দেশের মধ্যে ঘনিষ্ঠ কৌশলগত অংশীদারিত্ব এবং বাণিজ্যিক সম্পর্ক বৃদ্ধি করবে। মার্কিন প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানিয়ে গতকাল বিকালে টুইট করেন মোদি। তিনি লেখেন, ‘মার্কিন প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানাতে মুখিয়ে রয়েছে ভারত। আমরা সম্মানিত বোধ করছি যে, আগামীকাল (আজ) তিনি আমাদের সঙ্গে থাকবেন, আহমেদাবাদে ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।’

গত শুক্রবার বিকালে ট্রাম্পের ভারত সফর নিয়ে ওয়াশিংটনে মার্কিন প্রেসিডেন্টের দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সফরের রুপরেখা ও ভারতীয় নেতাদের সাথে আলোচনার পরিকল্পনা তুলে ধরেন প্রশাসনের ওই সিনিয়র কর্মকর্তা। তিনি জানান, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা হ্রাস করার বিষয়ে জোর দেবেন। তিনি দুই দেশকেই দ্বন্ধ নিরসনে দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় বসার জন্য উৎসাহিত করবেন।

ট্রাম্প কাশ্মীর ইস্যুতে আবারও মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দেবেন কিনা এম প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কাশ্মীর ইস্যুতে নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলওসি) বরাবর শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে এবং অঞ্চলটিতে উত্তেজনা বাড়িয়ে তুলতে পারে এমন কোন পদক্ষেপ নেয়া বা বক্তব্য দেয়া থেকে বিরত থাকার জন্য উভয় দেশের প্রতি আহ্বান জানাবেন।’

ওই কর্মকর্তা জানান, সিএএ ও এনআরসি নিয়ে ভারতে কোনো ধরনের ধর্মীয় স্বাধীনতা ক্ষুন্ন হচ্ছে কি না, আসন্ন দিল্লি সফরে সেসব বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে জানতে চাইবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এমনকি উঠবে গণতন্ত্র রক্ষার প্রসঙ্গও। ভারতের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য ও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর যুক্তরাষ্ট্রের গভীর শ্রদ্ধাবোধ রয়েছে বলে দাবি করে তিনি জানান, ‘ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রে যে গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য এবং ধর্মীয় স্বাধীনতার পরিবেশ রয়েছে, এবার সেগুলো নিয়ে মোদির সঙ্গে আলোচনা করবেন ট্রাম্প। তাছাড়া ধর্মীয় স্বাধীনতার বিষয়টিও এখানে অগ্রাধিকার পাবে।’ তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় স্বাধীনতা রক্ষার বিষয়টি ভারতীয় সংবিধানেই রয়েছে। তাছাড়া সেখানে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের সম্মান প্রদর্শনের অঙ্গীকার করা হয়েছে। বিশ্বের প্রধান চারটি ধর্মের পীঠস্থান ভারত। তাই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছেও বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

আজ সোমবার ২৪ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ৫৫ মিনিটে আহমেদাবাদ বিমান বন্দরে নামবেন ট্রাম্প। সেখান নবসাজে সজ্জিত মোতেরা স্টেডিয়াম পর্যন্ত ২২ কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে চলবে ট্রাম্প ও মোদির রোড শো। যাত্রাপথে ২৮টা মঞ্চে বিভিন্ন রাজ্যের সংস্কৃতির ঝলক থাকবে। যাত্রাপথেই তিনি গান্ধীর সবরমতী আশ্রমে যেতে পারেন। সেখানে তাকে চরকা উপহার দেয়া হবে। মোতেরা স্টেডিয়ামে পৌছবেন ১ টা ১৫ মিনিটের দিকে। সেখানে ‘নমস্তে ট্রাম্প’ অনুষ্ঠান হবে। মধ্যাহ্নভোজের পর সোজা আগ্রা। বিকেল পাঁচটায় আগ্রা পৌঁছবেন ট্রাম্প। সূর্যাস্তের আলোয় অপরূপ তাজমহল দর্শন করার পর সাড়ে ছয়টা নাগাদ দিল্লির পথে যাত্রা করবেন।

আগামীকাল সকাল দশটায় প্রেসিডেন্ট ভবনে স্বাগত জানানো হবে তাকে। সেখান থেকে রাজঘাটে গান্ধীর প্রতি সম্মান দেখাবেন ট্রাম্প ও মোদি। সাড়ে এগারোটায় শুরু হবে তাদের মধ্যে সরকারি পর্যায়ের আলোচনা। বেলা তিনটার সময় মার্কিন দূতাবাসে যাবেন তিনি। সেখানে ভারতীয় শিল্প ও বানিজ্য প্রতিনিধিদলের সঙ্গে কথা হবে। এ সময় মেলানিয়া ট্রাম্প দিল্লির সরকারি স্কুলে হ্যাপিনেস ক্লাস দেখে আসবেন। রাত দশটায় যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে যাত্রা করবেন ট্রাম্প। সূত্র : ডন, রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন