ঢাকা, সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ১১ শাবান ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ময়মনসিংহে নিহত ৪ ছাত্রদল কর্মীর কবর জিয়ারতে বাধা

ছাত্রদল সভাপতি-সম্পাদকের গাড়ি বহরে হামলা, আহত ৯

ময়মনসিংহ ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৭:৩২ পিএম

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে ২১শে ফেব্রুয়ারীর আলোচনা সভায় যোগ দিতে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪ ছাত্রদল কর্মীর কবর জিয়ারতে পুলিশ পুলিশ বাধাঁ দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল। পরে ফিরে আসার পথে ং ফুলপুরে ছাত্র নেতাদের গাড়ী বহরে হামলা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তারা। এ সময় ছাত্রদলের ৯ জন নেতা-কর্মী আহত হয়।

মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫ টায় ত্রিশাল উপজেলা সদরের মহাসড়কে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের নেতারা।
তারা অভিযোগ করে বলেন, গত ২১ শে ফেব্রুয়ারী হালুয়াঘাটের ৪ ছাত্রদল কর্মী সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেন। পরে নিহতদের কবর জিয়ারত করার জন্য মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের নেতৃত্বে হালুয়াঘাটে পৌঁছান। কিন্তু উপজেলার প্রবেশ পথেই ছাত্রদল নেতাদের গাড়ী বহর আটকে দেয় পুলিশ। এ সময় পুলিশি বাঁধায় সেখানে দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করে নেতারা কবর জিয়ারত না করেই ঢাকার পথে রওনা হন। তাদের অভিযোগ করেন, ফেরার পথে ফুলপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় স্থানীয় শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের গাড়ী বহরে হামলা চালায়। এ সময় তাদের ৪টি মাইক্রোবাস ভাংচুর করে ছাত্রদলের ৯ জন নেতাকর্মী আহত করা হয়।
আহতরা হলেন- কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহসভাপতি মাজেদুল ইসলাম রুম্মন, ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মাহবুবুর রহমান রানা, সহ-সভাপতি তানজিম সাইফুল, সাধারণ সম্পাদক দাউদ রায়হান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাশেদ সিদ্দিকী ও এনামুল হক ফরাজী, দপ্তর সম্পাদক নাহিদুজ্জামান সাদ্দাম, উত্তর ছাত্রদলের প্রচার সম্পাদক রাসেল আহম্মেদ ও কর্মী নুরুন্নবী আকন্দ। আহতদের মধ্যে ৪ জন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মোতাহার হোসেন তালুকদার, আবুল বাসার আকন্দ, বিএনপি নেতা কামরুজ্জামান লিটন, সালমান ওমর রুবেল, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি আশ্রাফুল ফকির লিংকন, মোস্তাফিজুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক আমিনুর ররহমান আমীন, নিজাম উদ্দিন রিপন, মাহমুদুল হাসান বাপ্পী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নাইমুল করিম লুইন, সহ-দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হক সুহেল, ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন, দক্ষিণ জেলার সভাপতি মাহাবুবুর রহমান রানা, সাধারন সম্পাদক দাউদ রায়হান, উত্তরের সভাপতি নিহাদ সালমান ডুনন, সাধারন সম্পাদক রায়হান শরীফ হলুদ প্রমূখ।
এ সময় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন বলেন, স্বাধীন দেশে নিহতদের কবর জিয়ারতে বাঁধা অগণতান্ত্রিক আচরনের বহি:প্রকাশ। এ ধরনের আচরন কোন গনতান্ত্রিক রাষ্ট্রে কাম্য হতে পারে না। আমরা এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Md Moktadir ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৮:১৫ পিএম says : 0
এক মুসলমান আরেক মুসলমানের কবর জিয়ারত করতে গেলে ওরা আওয়ামী লীগ যদি বাধা দেয় ওদেরকে কি মুসলিম বলা যায়?
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন