ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬, ০৫ শাবান ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ঘটনাস্থল রাজধানীর যাত্রাবাড়ী

বাবার সামনে ছেলে খুন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে পূর্বশক্রতার জেরে ইমন হোসেন (১৮) নামে এক পোশাক শ্রমিককে বাবার সামনে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে যাত্রাবাড়ীর শনির আখড়া গোবিন্দপুর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক দুপুর পৌনে ৩টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্যদিকে মোহাম্মদপুরে পুলিশের হাতে আটকের পর জোসনা (৪০) নামে এক নারীর হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার দিনগত রাতে মোহাম্মদপুর এলাকার একটি বাসা থেকে অনৈতিক কাজের অভিযোগে জোসনাসহ আরও তিনজনকে আটক করে পুলিশ। পরে জোসনা থানা হাজতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও পরে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে নেয়া হলে মঙ্গলবার ভোর রাতে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহত ইমন মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান নয়াবাড়ি গ্রামের আবু বকরের ছেলে। তিনি শনির আখড়া গোবিন্দপুর এলাকায় পরিবারের সঙ্গে থাকতেন।
নিহতের বাবা আবু বকর সাংবাদিকদের বলেন, আমরা বাবা-ছেলে উভয়ই গোবিন্দপুর গ্রামীণ পোশাক কারখানায় চাকরী করতাম। দুপুরে লাঞ্চ বিরতির সময় বাবা-ছেলে একসঙ্গে বের হই। আমি ছিলাম পেছনে। আমার ছেলে ছিল সামনে দিকে। গোবিন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে ছেলে পৌঁছলে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা নয়ন, রাজু ও হুমায়ন নামে ৩ যুবক আমার ছেলের বুকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে ছেলেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
তিনি আরো বলেন, কিছুদিন আগে ওদের সঙ্গে কোনো বিষয় নিয়ে আমার ছেলের তর্কাতর্কি হয়েছিল। তবে কী নিয়ে তাদের সঙ্গে ঝগড়া হয়েছিল বিস্তারিত জানাতে পারেননি তিনি । ৩ ছেলে ১ মেয়ে মধ্যে ইমন ছিলেন সবার বড়।
ঢাকা মেডিক্যাল পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ মোঃ বাচ্চু মিয়া বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় নয়ন নামে একজনকে হাসপাতাল থেকে আটক করা হয়েছে ।
যাত্রাবাড়ী থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া মোহাম্মদপুর ডিভিশনের এডিসি ওবায়দুল ইসলাম জানান, সোমবার দিনগত রাতে মোহাম্মদপুর এলাকার একটি বাসা থেকে তিন নারী ও এক ব্যক্তিকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। এক পর্যায়ের জোসনা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন