ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিদ্যুতের বাড়তি দাম মেনে নিতে বললেন ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৭:৫৭ পিএম

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, বিদ্যুতের দীর্ঘস্থায়ী সমস্যা সমাধানের জন্য মূল্য বাড়ানো হচ্ছে। ৩ টাকা বিদ্যুতের দাম বাড়লে এতে হয়তো আপনাদের সাময়িক কষ্ট হবে কিন্তু তারপরও মেনে নিতে হবে।

আজ বিকেলে রাজধানীর হাতিরপুলে ফিকামলি সেন্টারে শহীদ সেলিম-দেলোয়ারের স্মরণে এক আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন। শহীদ দেলোয়ার সেলিম স্মৃতি পরিষদ আয়োজিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন স্মৃতি পরিষদের সভাপতি ড. আবদুল ওয়াদুদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির আমলে বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ে মানুষ অতিষ্ঠ ছিল। ঘণ্টার পর ঘণ্টা দিনের পর দিন বিদ্যুৎ থাকত না। আমি বলতে চাই, শেখ হাসিনা সরকারের আমলে বিদ্যুৎ আর পানির জন্য আপনাদের কোন অসুবিধা হচ্ছে না। এই শহরে পানি আর বিদ্যুতের হাহাকার লেগে থাকতো।
তিনি বলেন, এই মুজিববর্ষে এখন ৯৬ ভাগ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা পাবে। মুজিববর্ষে সরকার ১০০ ভাগ লোকের ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেবে, ইনশাআল্লাহ। এডজাস্টমেন্টের জন্যই বিদ্যুতের দাম কিছু বাড়াতে হচ্ছে। এটা সাময়িক। শতভাগ বিদ্যুৎ পৌঁছানোর জন্য একটু কষ্ট হবে। এরপরও বিদ্যুতের জন্য সরকারকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হবে। এই দুর্ভোগ সাময়িক, এটা জনগণ মেনে নেবেন, এটা আমার অনুরোধ।

তিনি বলেন, আজকের স্মরণসভা বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের একটি রক্তাক্ত ঘটনা। যেখানে দুজন দেশমাতৃকার তরুণ বীর, যারা রক্ত দিয়ে স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে জনতার আন্দোলনকে সেদিন পরিচালিত করেছিলেন বঙ্গবন্ধুর রক্তেভেজা মাটিতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা গণতন্ত্রের অভাব মিটিয়ে মুক্তির আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। সেই আন্দোলনকে এসব খন্ড-খন্ড রক্তাক্ত আন্দোলন সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছে। স্বৈরশাসনের পতন ঘটিয়েছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, আমরা হঠাৎ করে গণতন্ত্রকে স্বৈরশাসনের কবল থেকে মুক্ত করতে পারিনি। হঠাৎ মুক্তি পায়নি গণতন্ত্র। গণতন্ত্রের জন্য অনেক রক্ত, অনেক আন্দোলন করতে হয়েছে। আজকে এসব দিন আমাদের ইতিহাসের পাতায় আছে কিন্তু বাস্তবে আমরা এ দিনগুলোকে ভুলে যাচ্ছি। আজকে সেলিম দেলোয়ারের মৃত্যুবার্ষিকী, ছাত্রসমাজ ও পালন করে না। আমার চোখে পড়েনি কেউ এটা ঘোষণা দিয়ে আজকের এই দিনটি পালন করেছে। এসব দিন আছে বলেই আমাদের ইতিহাস সমৃদ্ধ, এসব দিন আছে বলেই আমাদের ইতিহাসের গৌরবগাথা, কীর্তিগাথা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
কুদ্দুস মিয়া ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১০:৪২ পিএম says : 1
আমরা কেউ বুঝতে পারিনাই, সরকার আরো দুই বছর আগেই মাটির বাসন লইয়া রাস্তায় নামছে.
Total Reply(0)
rakhal ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৯ পিএম says : 0
daya kore electric dam baraben na,sara deshe gas line thick kore tarpor ja korar koren
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন