ঢাকা, শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১২ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

দরপতনে সপ্তাহ পার ১৬ হাজার কোটি টাকা হারালেন বিনিয়োগকারীরা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০৪ এএম

গত সপ্তাহে লেনদেন হওয়া পাঁচ কার্যদিবসেই দরপতন হয়েছে শেয়ারবাজারে। এতে তালিকাভুক্ত বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। এক সপ্তাহেই বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করা অর্থের পরিমাণ ১৬ হাজার কোটি টাকার ওপরে কমে গেছে। বিনিয়োগ করা অর্থের পরিমাণ কমার পাশাপাশি সপ্তাহজুড়ে কমেছে সবকটি মূল্য সূচক ও লেনদেনের পরিমাণ। প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক কমেছে ৫ শতাংশের ওপরে। লেনদেন কমেছে প্রায় ৩২ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ৬৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২৮০টির। ১২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৪২ হাজার ৯৮৩ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল তিন লাখ ৫৯ হাজার ২৬২ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে ১৬ হাজার ২৭৯ কোটি টাকা।

এদিকে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ২৫২ দশমিক ৯২ পয়েন্ট বা ৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ১৬৮ দশমিক ৫৩ পয়েন্ট বা ৩ দশমিক ৬৯ শতাংশ। বাকি দুটি সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক কমেছে ৪৪ দশমিক ৯০ পয়েন্ট বা ৪ দশমিক ১২ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৪৩ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা ৪ দশমিক ২১ শতাংশ। ডিএসই-৩০ আগের সপ্তাহের তুলনায় কমেছে ১০০ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা ৬ দশমিক ৩১ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৫৬ দশমিক ১৭ পয়েন্ট বা ৩ দশমিক ৬৬ শতাংশ। সবকটি সূচকের এমন পতনের মধ্যে ডিএসইতে লেনদেনের গতিও কমেছে। দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ ৯০০ কোটি টাকার ঘর থেকে ৬০০ কোটিতে নেমে এসেছে। গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে তিন হাজার ৮৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় চার হাজার ৫২১ কোটি ৭৪ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে এক হাজার ৪৩৪ কোটি ২৯ লাখ টাকা বা ৩১ দশমিক ৭২ শতাংশ। গত সপ্তাহের মোট লেনদেনের মধ্যে ‘এ’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠানের অবদান দাঁড়িয়েছে ৮৪ দশমিক ৯৮ শতাংশ। এছাড়া ডিএসইর মোট লেনদেনে ‘বি’ গ্রুপের অবদান ১৩ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ। ‘জেড’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠানের অবদান দশমিক ৬১ শতাংশ এবং ‘এন’ গ্রুপের অবদান ১ দশমিক ৩৭ শতাংশ। গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে গ্রামীণফোনের শেয়ার। কোম্পানিটির ১১৫ কোটি ৬৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন