ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর দক্ষিণাঞ্চলে ৮ মাসে ৬৫ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেছে

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০২০, ৭:২২ পিএম

বরিশাল বিভাগীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর গত আট মাসে নানা অনিয়মের কারণে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ৬৫ লাখ ৫৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান,হাট-বাজার, শপিংমলগুলোতে পণ্যের মোড়ক ইত্যাদি ব্যবহার না করা, ধার্যকৃত মূল্যের অধিক ক্রেতাদের কাছ থেকে আদায় করা, খাদ্য পণ্যে নিষিদ্ধ দ্রব্যের ভেজাল মিশ্রন, অবৈধ প্রক্রিয়ায় পণ্য উৎাদন, প্রতিশ্রুত পণ্য সেবা যথাযথভাবে বিক্রয় না করার অপরাধে গতবছর ১ লা জুলাই থেকে ২৯ ফেব্রয়ারী পর্যন্ত বিভাগের ৬ জেলার ৬ শত ৪৪টি বাজার তদারকিমূলক অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এসময় আইনকে উপেক্ষা করার দায়ে ১ হাজার ৫শত ১৮টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয় বলে জানা গেছে।

এসময় বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রতারনার শিকার হওয়া ভোক্তারা অধিকার সংরক্ষণ দপ্তরে ৬৭ টি প্রতিকারমূলক অভিযোগ দায়ের করে। এসব অভিযোগ খতিয়ে দেখে মাঠ প্রর্যায়ে তদন্তে নেমে কর্মকর্তারা ২২টি অভিযোগের প্রমান পেয়েছেন। অভিযূক্ত ঐসব প্রতিষ্ঠান থেকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের মাধ্যমে ১ লক্ষ ৯৩ হাজার ৫ শত টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। আদায়কৃত জরিমানার অর্থ থেকে ৪৮ হাজার ৩ শত ৭৫ টাকা অভিযোগকারী ২২ জন ভোক্তাদেরকে ক্ষতিপূরণ হিসাবে প্রদান করা হয়েছে। অবশিষ্ট বাকি অর্থ সরকারী কোষাগারে জমা দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এসময় ১৮ টি অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় তা বাতিল করা সহ ৭টি অভিযোগ উভয়ের মধ্যে আপোষ-মিমাংশার মাধ্যমে নিস্পত্তি ও সমাধান করা হয়েছে।

বরিশালস্থ জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে ব্যপক জনবল সংকটের মধ্যেও বিভাগের ৬ জেলা ও জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অভিযান পরিচালনার পাশাপাশি ভোক্তা অধিকার আইন সম্পর্কে জনগণকে সচেতনতা সৃষ্টি করার কার্যক্রম চলছে বলে জানান হয়েছে। এরই অংশ হিসাবে লিফলেট বিতরন, বনিক সমিতি,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাট-বাজার সহ বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের নিয়ে গণশুনানী ও ভোক্তা আইন সংক্রান্ত বিষয়ের উপর ৭৩টি সভা-সেমিনার করার কথা জানিয়েছেন কতৃপক্ষ।

এবিষয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের বরিশাল জেলা কার্যলয়ের সহকারী পরিচালক শাহ্ মোঃ শোহেব হোসাইন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, প্রত্যেক জেলা শহরের দপ্তরগুলোতে ভোক্তাদের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য ১জন করে সহকারী পরিচালকের প্রয়োজন থাকা সত্বেও অনেক জেলা শহরে অফিস পর্যাপ্ত জনবল নেই। ফলে এ ক্ষেত্রে সরকারের উদ্যেশ্য ব্যাহত হচ্ছে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন