ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

করোনা : মসজিদে জামাতের বিষয়ে দারুল উলুম দেওবন্দের ফতোয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ মার্চ, ২০২০, ২:০৪ পিএম

ভারতে মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থমন্ত্রণালয় থেকে সরকার যে দিকনির্দেশনা দিয়েছে, সেটা মেনে চলতে মুসলিমদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ দারুল উলুম দেওবন্দ। এ কঠিন মুহূর্তে মুসলিমদের মসজিদে যাওয়া না যাওয়ার বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ ফতোয়া প্রকাশ করেছে।
গতকাল সোমবার দেওবন্দের পক্ষ থেকে জারি করা এক আহ্বানপত্র ও ফতোয়ায় দেশের মুসলিমদের প্রতি এক নির্দেশনায় বলা হয়, করোনা ভাইরাস থেকে দেশ ও জাতিকে বাঁচাতে সরকার যে কারফিউ বা লকডাউন জারি করেছে সেগুলো মেনে চলে দেশকে এ মহামারী থেকে বাঁচাতে সহযোগিতা করা আমাদের কর্তব্য। এ ক্ষেত্রে নিজেরাও সতর্ক থাকবেন ও অন্যদেরও সতর্ক থাকতে বলবেন।
দেওবন্দের এ ফতোয়ায় এ কঠিন পরিস্থিতিতে মসজিদে নামাজ আদায়ের বিষয়ে বলা হয়, সরকার যেসব এলাকায় কারফিউ বা লকডাউন জারি করেছে, অথবা যেসব এলাকায় ভিড় জমায়েত থেকে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে, সেসব এলাকার মসজিদগুলোকে বন্ধ না করে মসজিদ কর্তৃপক্ষের উচিত কোনো একটি পন্থা বের করা। যেনো মসজিদকেও আবাদ রাখা যায়, আবার দেশের আইনও লঙ্ঘণ না হয়। এটা এভাবে করা যায়, যেসব এলাকায় লোকসমাগমে কঠোর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে সেসব এলকার মসজিদগুলোতে ইমাম মুয়াজ্জিনসহ আরো কয়েকজন মুসল্লি মিলে আজান ইকামতের সঙ্গে জামাত চালু রাখবে। আর অন্যান্য মুসল্লিগণ তাদের ঘরে নামাজ আদায় করবেন।
আর যেসব এলাকায় এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা নেই, সেখানে মুসল্লিগণ নামাজের সুন্নাত তাদের ঘরে সেরে আসবে, মসজিতে নিরাপদ দূরত্বে বসবে। জামাতে নামাজ আদায় করে আবারো ঘরে চলে যাবে। আর মসজিদ কর্তৃপক্ষের উচিত, তারা মসজিদকে পরিস্কার পরিছন্ন রাখবে।
দারুল উলুম দেওবন্দের এ ফতোয়ার পর করোনা ভাইরাস বিষয়ে মুসলিমদের আকিদা বা বিশ্বাস সম্পর্কে বলা হয়, করোনা ভাইরাস বিষয়ে প্রত্যেক মুসলিমের এ বিশ্বাস থাকতে হবে, কোনো রোগ ভাইরাস, মহামারী আল্লাহর হুকম ছাড়া কাউকে আক্রান্ত করে না। এসব রোগ ও মহামারী মানুষের গুনাহের কারণেই এসে থাকে। এগুলো থেকে আল্লাহ তায়ালাই মুক্তি দিতে পারেন।
এজন্য প্রত্যেক মুসলিমের উচিত, প্রত্যেকে নিজ নিজ দীনি অবস্থান কে শক্তিশালী করবে। অর্থাৎ গুনাহ পরিত্যাগ করা, আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাওয়া, জামাতের সঙ্গে নামাজ আদায় না ছাড়া। তাওবা ইস্তিগফার বেশি বেশি করা। আল্লাহর কাছে গুনাহগুলোর জন্য ক্ষমা চাওয়া। সব ধরণের গুনাহ থেকে বেঁচে থাকা। বেশি বেশি আমল করা। মানুষকে আমল ও তওবার প্রতি আহ্বান করা। আল্লাহ তায়ালা আমাদের তাওফিক দান করুন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (13)
Mobarak ২৪ মার্চ, ২০২০, ২:৪৭ পিএম says : 0
আল্লাহ শায়েখের জ্ঞান আরো বারিয়ে দিক আমিন । আর আল্লাহ আমাদের ক্ষমা করেন আমিন । আমাদের তাওহীদের জ্ঞান বারিয়ে দিক ।
Total Reply(0)
Md. Abu Sayed ২৪ মার্চ, ২০২০, ৩:৫০ পিএম says : 0
Amin
Total Reply(0)
Md. Abu Sayed ২৪ মার্চ, ২০২০, ৩:৫০ পিএম says : 0
Amin
Total Reply(0)
Ahmad Talukdar ২৪ মার্চ, ২০২০, ৪:৩৪ পিএম says : 0
সবাই মুফতী না হয়ে আল্লাহর ওয়াস্তে দেওবন্দের এই ফতোয়ার উপর আমল করুন।
Total Reply(0)
Mahbubul Haque Imran ২৪ মার্চ, ২০২০, ৪:৩৫ পিএম says : 0
কোরান হাদিসের আলোকে মাস_আয়ালা আসলে ভালো হতো।
Total Reply(0)
M A Masud ২৪ মার্চ, ২০২০, ৪:৩৫ পিএম says : 0
শুধু মসজিদ নিয়ে কেনো মেতেছো তোমরা?? দেশের গার্মেন্টস গুলো আগে বন্ধ করো,,তারপর মসজিদ নিয়ে ভাবা যাবে,,,আমাদের ট্যাক্স এর টাকা দিয়ে একদম যারা দিন আনে দিন খায় তাদের জন্য চাল ডাল এর ব্যবস্থা করো।
Total Reply(0)
Foysal Hasan ২৪ মার্চ, ২০২০, ৪:৩৫ পিএম says : 0
ভাল সিদ্ধান্ত ইমাম মুয়াজ্জিন আর খাদেমরা মিলে। মসজিদে নামাজ কায়েম রাখতে পারে।অন্য মুসুল্লিরা বাসায় নামাজ পরবে
Total Reply(0)
মাওলানা মোঃ মামুনুর রশিদ ২৫ মার্চ, ২০২০, ১০:৩০ এএম says : 0
হে আল্লাহ এপরিস্থিতিতে মুসলমানদের ইমান শক্তিশালী করে দিন।
Total Reply(0)
Abdul Alim ২৭ মার্চ, ২০২০, ৭:৪১ পিএম says : 0
ইসলাম জাতিকে রক্ষা করার কথা বলে। এই ফতোয়া প্রত্যেকের মেনে চলা উচিত। ইনশাআল্লাহ আমরা মেনে চলবো।
Total Reply(0)
সাইফুল বিন আ, গনি ২৭ মার্চ, ২০২০, ১১:১৮ পিএম says : 0
আমরা দেওবন্দি আমরা আল আজহারের মত মসজিদ বন্ধ করিনা
Total Reply(0)
সাইফুল বিন আ, গনি ২৭ মার্চ, ২০২০, ১১:১৮ পিএম says : 0
আমরা দেওবন্দি আমরা আল আজহারের মত মসজিদ বন্ধ করিনা
Total Reply(0)
সাইফুল বিন আ, গনি ২৭ মার্চ, ২০২০, ১১:১৮ পিএম says : 0
আমরা দেওবন্দি আমরা আল আজহারের মত মসজিদ বন্ধ করিনা
Total Reply(0)
মাহমুদুল হাসান ২৭ মার্চ, ২০২০, ৯:২৯ পিএম says : 0
আল আযহার বিশ্ববিদ্যালয়, সৌদিআরব, দারুল উলুম দেওবন্দ ও ইসলামী ফাউন্ডেশন প্রায় এক ও অভিন্ন মত দিয়েছেন তাই এর উপর আমল করা আমাদের জন্য জরুরী।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন