ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪১ হিজরী

মহানগর

করোনা দুর্যোগ মোকাবেলায় সকলকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে -গবেষক শামিম রুমি টিটন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ মার্চ, ২০২০, ৯:৪৮ পিএম | আপডেট : ৯:৫৮ পিএম, ২৪ মার্চ, ২০২০

করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিপর্যয়ে দেশ। সবচেয়ে বড় ক্ষতিতে পড়বে দেশের অর্থনীতি।দেশের এই বড় ক্ষতি মোকাবেলায় সরকারের পাশাপাশি সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন।একই সঙ্গে এই মুহুর্তে বোঝা যাচ্ছে না আমরা কী করব। তবে আমাদেরকে ভেবেচিন্তে এগোতে হবে । মঙ্গলবার (২৪ মার্চ)গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন লেখক ও গবেষক শামিমরুমি টিটন ।

মঙ্গলবার(২৪ মার্চ)গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন লেখক ও গবেষক শামিমরুমি টিটন । রাজধানীর ধানমন্ডিতে জাতীয় জনতা ফোরাম আয়োজিত ‘করোনা ভাইরাস ও আগামীর অর্থ বাণিজ্য’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় জনতা ফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক, লেখক ও প্রকাশক মোহাম্মদ অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার। শামিমরুমি টিটন বলেন, বাংলাদেশসহ বিশ্বব্যাপি চলছে জরুরী অবস্থা । বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা - ডব্লিউ এইচও বাংলাদেশেও জরুরী অবস্থা ঘোষণা করতে জোর তাগিদ দিয়েছে । ইতিমধ্যে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন ও স্থগিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একেক করে সব কিছু বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে । তাই এই মহাবিপর্যয়ে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

শামিমরুমি টিটন মনে করেন, চলমান দুর্যোগে সবারমধ্যে সচেতনতা বাড়াতে হবে । ঘরের বাইরে কোনো কাজ করার দরকার নেই । এখন পরিস্থিতি থেকে আমাদেরকে আগে উত্তরণই হচ্ছে বড় চ্যালেঞ্জ। তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের অবস্থা এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে । এটা আমাদের জন্য আশার আলো ।

আলোচনায় এছাড়াও অংশ গ্রহণ করেন - জ্ঞান সৃজনশীল প্রকাশনা সমিতি ও বই পুস্তক প্রকাশনা রাজধানী শাখার সাধারণ সম্পাদক দি ইউনিভার্সেল একাডেমির মহা পরিচালক মো. শিহাবউদ্দীন ভুঁইয়া, দি অ্যাটলার্স পাবলিশিং হাউস সহকারী পরিচালক বিপুল, অন্যদিগন্ত প্রকাশক এরফানুল হক নাহিদ, শ্রমিক আন্দোলনের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন, প্রিন্টার্স কালার ল্যাব এসোসিয়েশনের সভাপতি প্রকৌশলী আ হ ম মনিরুজ্জামান দেওয়ান মানিক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ফোরামের সদস্য সচিব ডাক্তার শাকিলুর রহমান।

সেই সাথে টিটন মনে করেন করোনাভাইরাসের প্রভাবে যেসব ব্যবসা - প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হবে তাদের শ্রমিক - কর্মচারীদের বেতন সরকারি সহায়তায় কমপক্ষে তিন মাস নিশ্চিত করা প্রয়োজন। তিনি বলেন ক্ষুূ্দ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা বা এসএমই খাতের ব্যবসায়ীদের সবচেয়ে বেশি সুবিধা দিতে হবে । ব্যবসায়ীদের ও সুস্থ রাখার ব্যবস্থা করতে হবে ।

শামিমরুমি টিটন বলেন, করোনাভাইরাসের প্রভাব মোকাবিলায় সরকারকে সামাজিক সুরক্ষা হিসেবে দেশের শ্রমজীবী মানুষদের জরুরী ভিত্তিতে রেশনিং সুবিধা প্রধান করা দরকার। একই সঙ্গে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে যেসব ব্যবসায়ী পণ্যমূল্য বৃদ্ধি ও মজুদ করছে, সেই মজুমদারদের প্রতিরোধ করতে সরকারকে আরও কঠোর হওয়ার কথা বলেছেন তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন