ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

গোলরক্ষক সোহেলের ‘এক টাকার ফান্ড’

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০০ এএম

 ‘কাজ নেই তো খাবার নেই’। এমন পরিস্থিতিতে তাদের দিন কাটছে খুব কঠিন। অন্যদের মতো এই দূর্যোগের সময় অসহায় মানুষদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল ও ঢাকা আবাহনী লিমিটেডের গোলরক্ষক মো. শহিদুল আলম সোহেল।
খেলা নেই ছুটি পেয়ে সোহেল তাই ফিরে গেছেন নিজ জেলা চট্টগ্রামের পতেঙ্গায়। অখন্ড অবসরে এখন তার সময় কাটছে ঘরের কাজে স্ত্রীকে সহযোগিতা এবং দেড় বছর বয়সী ছেলের সঙ্গে খুনসুটি করেই। তবে সোহেল জানান, পতেঙ্গার ব্যস্ত জীবনের চাকা প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস পুরোপুরি থামাতে না পারলেও থমকে দিয়েছে খেটে খাওয়া দিন-মজুর ও রাস্তায় থাকা গৃহহীন অসহায় মানুষদের জীবন। এই অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন তিনি। স্থানীয় কিছু বড় ও ছোট ভাইদের সংগঠন ‘এক টাকার ফান্ড’ এর সঙ্গে যুক্ত আছেন জাতীয় দলের ২৯ বছর বয়সী এই গোলরক্ষক। এই সংগঠনের মাধ্যমেই অসহায় মানুষদের এক বেলার খাবারের সংস্থান করছেন সোহেল। প্রতিবেদন না লেখার শর্তে তিনি গতকাল বলেন, ‘এই দূর্যোগের সময় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তায় থাকা মানুষগুলো। অনেকে আছেন দিন আনেন দিন খান। ভিক্ষুক এবং পাগলও আছে এই তালিকায়। যারা বর্তমানে খুবই কষ্টে আছে। আমাদের মহল্লায় কিছু বড় ও ছোট ভাইদের একটা সংগঠন আছে ‘এক টাকার ফান্ড’ নামে। ওই সংগঠনের মাধ্যমে আমি চেষ্টা করছি অসহায়দের জন্য কিছু করার।’ আবাহনীর গোলরক্ষক যোগ করেন, ‘সবকিছুর মধ্যে নিয়ম মেনেই আমি ঘরে থাকছি। ছেলেকে সময় দিচ্ছি। বউ সংসারের কাজে ব্যস্ত থাকে। আর আমি ছেলের কাজ করি। ওকে গোসল করাই, খাওয়াই, কাপড়-চোপড় পরিয়ে দেই। এরই মাঝে সুরক্ষিত অবস্থায় সময় করে অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি। বাইরে অনুশীলন করার সুযোগ নেই, তাই ফিটনেস ধরে রাখার জন্য ঘরেই হালকা অনুশীলন করছি। তবে মাঝে মধ্যে দৌঁড়াতে একটু বাইরে বেরুচ্ছি। অবশ্য তখনও গøাভস, মাস্ক পরে।’

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন