ঢাকা, রোববার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

গণপিটুনির শিকার আওয়ামীলীগ নেতা বাবু সরদার : থানায় মামলা

বেনাপোলে মধ্যরাতে মদ্যপান অবস্থায় এক গৃহবধূকে শ্লীলতাহানি ও মারপিটের অভিযোগ

বেনাপোল অফিস | প্রকাশের সময় : ১ এপ্রিল, ২০২০, ৪:২৩ পিএম

মধ্যরাতে মদ্যপানাবস্তায় এক গৃহবধূকে শ্লীলতাহানি ও মারপিটের অভিযোগে গণপিটুনির শিকার হয়েছে আওয়ামীলীগ নেতা বাবু সরদার। বুধবার রাত সাড়ে ১২ টায় বেনাপোল পৌরসভার ছোটআঁচড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই বাবু সরদার (৪৫) কে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। বাবু সরদার বেনাপোল পৌরসভার ছোটআচঁড়া গ্রামের মৃত আকবর আলী ওরফে ক্লে আকবার এর ছেলে, এবং শ্লীলতাহানীর শিকার রিতা সরকার (২০) একই গ্রামের রবীন সরকারের স্ত্রী।

রবীন সরকার জানায় তার স্ত্রী রিতা সরকার প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে রাত সাড়ে ১২ টার সময় ঘরের বাহিরে বাথরুমে যায়। বাথরুম সেরে সে বের হলে স্থানীয় বাবু সরদার মদ্যপানাবস্থায় তাকে জড়িয়ে ধরে কাপড় ধরে টানা টানি করে । এসময় তার স্ত্রী চিৎকারে সে ঘর থেকে বের হয়ে স্ত্রীকে বাবু সরদারের হাত থেকে রক্ষা করতে গেলে তাকে লাইট দিয়ে বাবু সরদার আঘাত করে। এসময় তার স্ত্রী তাকে ঠেকাতে গেলে স্ত্রীর মাথায় ও লাইট দিয়ে আঘাত করে গুরুতর যখম করে।

তার স্ত্রী রক্তাক্ত অবস্তায় অজ্ঞান হয়ে পড়লে বাবু সরদার দৌড়ে পালিয়ে যায়। তার স্ত্রীকে নাভারন বুরুজ বাগান হাতাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

ঘটনার শিকার রীতা সরকার বলেন, বাবু সরদার খারাপ কাজের উদ্দ্যেশ্য আমাকে গভীর রাত্রে কাপড় ধরে টানা টানি করে। এসময় সে মদ্যপান করা অবস্থায় ছিল।

স্থানীয় বেনাপোল পৌর পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি শান্তিপদ গাঙ্গুলী বলেন গভীর রাত্রে চিৎকারের শব্দে ঘর থেকে বের হয়ে ঘটনাস্থলে গেলে বাবু সরদার দৌড়ে এসে আমার মাথায়ও লাইট দিয়ে আঘাত করে। আমি দ্রæত থানায় ফোন করলে থানা থেকে পুলিশ এসে বাবু সরদারকে আটক করে নিয়ে যায়। এব্যাপারে রিতার স্বামী রবীন সরকার বাদী হয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় শ্লীলতা হানীর অভিযোগ দায়ের করেছে।
বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান বলেন, রাত্রে ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠিয়ে বাবু সরদারকে আটক করা হয়েছে। বুধবার সকাল ১০ টার সময় বেনাপোল পোর্ট থানায় রিতার স্বামী রবীন সরকার বাদী হয়ে শ্লীলতাহনীর অভিযোগ করেছেন। আসামিকে যশোর আদালতে পাঠানো হবে বিকেলে।
প্রেরক : মহসিন মিলন । বেনাপোল অফিস ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন