ঢাকা, শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৬ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

করোনা প্রতিষেধক তৈরি করেছে জনসন অ্যান্ড জনসন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ এপ্রিল, ২০২০, ৪:৩১ পিএম

কোভিড-১৯ এর প্রতিষেধক তৈরির উপযুক্ত যৌগ চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়েছে শিশুদের উপযোগী জিনিসপত্র প্রস্তুতকারক সংস্থা জনসন অ্যান্ড জনসন। বর্তমানে তারা এটি মানুষের উপরে পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগের পরিকল্পনা করছে।

জনসন অ্যান্ড জনসনের সিইও অ্যালেক্স গোরস্কি জানান, এই মুহূর্তে বিশ্ব জুড়ে স্বাস্থ্য সঙ্কট চলছে। এই পরিস্থিতিতে ওই টিকা তৈরিতে আমাদের দিক থেকে যতটা সম্ভব তা করতে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। একটি বিবৃতিতে সংস্থার পক্ষ থেকে সোমবার জানানো হয়েছে, জরুরি ভিত্তিতে কোভিড-১৯–এর টিকা বানানো শুরু করবে জনসন অ্যান্ড জনসন। আগামী বছরের শুরুতেই ওই ওষুধ হাতে এসে যাওয়ার কথা। আগামী সেপ্টেম্বর থেকেই মানুষের উপরে ওই টিকা পরীক্ষা করা হবে। যদিও জনসন আদতে ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা নয়। তা সত্ত্বেও কোভিড-১৯ এর টিকা তৈরির ক্ষেত্রে প্রথম এগিয়ে এসেছিল এই সংস্থাটিই। ওই ঘোষণার পরেই জনসন অ্যান্ড জনসনের শেয়ারের দাম বেড়েছে প্রায় ৮ শতাংশ। সংস্থাটি আরও জানিয়েছে, আমেরিকায় টিকা তৈরির পরিকাঠামো ও ক্ষমতাও বাড়াচ্ছে জনসন অ্যান্ড জনসন।

এ দিকে, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে চীনের তৈরি টিকাটি দেশের বাইরেও পরীক্ষার কথা ভাবছে বেইজিং। চীনের এক গবেষক সম্প্রতি জানান, ভাইরাসের কেন্দ্র উহানের উপরে পরীক্ষা সফল হলে অন্যান্য দেশেও তা পরীক্ষা করা যেতে পারে।

চাইনিজ অ্যাকাডেমি অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সদস্য চেন ওয়েই জানান, সরকারের অনুমতি অনুসারে গত ১৬ মার্চই উহানে টিকাটির প্রথম ধাপের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। এপ্রিলে তার ফলাফল হাতে আসার কথা। চীনে থাকা বিদেশিদের উপরেও ওই টিকাটি প্রয়োগ করা হয়েছে বলে জানান চেন। তিনি আরও জানান, প্রাথমিক পরীক্ষার পরে টিকাটি যদি সুরক্ষিত ও সফল প্রমাণিত হয়, তবে টিকাটিকে পরীক্ষার পরবর্তী ধাপগুলিতে নিয়ে যাওয়া হবে। বিশ্ব জুড়ে যা পরিস্থিতি, তাতে টিকাটি কাজ করলে কোভিড-১৯ অতিমারি অনেকটাই রুখে দেয়া যাবে বলে মনে করেন চেন। সূত্র: ইনকুইসিট।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন