ঢাকা, শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৬ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লকডাউন, আইসোলেশন এবং হোম কোয়ারেন্টিন ২ এপ্রিল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ এপ্রিল, ২০২০, ১০:৪৯ এএম | আপডেট : ৯:৪১ পিএম, ২ এপ্রিল, ২০২০

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে একই পরিবারের ৯জন কোয়ারেন্টাইনে, বাড়ী লকডাউন
নোয়াখালী ব্যুরো : সোনাইমুড়ী পৌরসভার গোবিন্দপুর গ্রামে এক দুবাই প্রবাসীর বাড়ী লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। কোভিড-১৯ এর উপসর্গ থাকা সন্দেহে ওই পরিবারের পাঁচজন মহিলা, দুইজন পুরুষ, পনের মাস বয়সী এক ও পাঁচ মাস বয়সী একশিশুসহ মোট নয় জনকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রাখা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা টিনা পাল ওই প্রবাসীর বাড়ীটি লকডাউন ঘোষণা করেন।

সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাইনুল ইসলাম জানান, গত ২২মার্চ ওই পরিবারের একজন সদস্য দুবাই থেকে দেশে এসেছিলেন। এর মধ্যে পরিবারের কয়েকজন সদস্য সর্দি ও জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স পাঠিয়ে ওই পরিবারের ৯জন সদস্যকে হাসপাতালে আনা হয়। তবে ওই প্রবাসী বাড়ীর বাহিরে থাকায় তাকে আনা সম্ভব হয়নি। তাকে খুঁজতে স্থানীয় প্রশাসন কাজ করছে।
 
তিনি আরও জানান, প্রবাসীর পরিবারের ওই সদস্যদের পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের নবাবগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের দ্বিতীয় তলা চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রাখা হয়েছে। বর্তমানে তাদের শারীরিক অবস্থা ভালো। কোয়ারেন্টাইনের সময় শেষ হলে তাদের সবার শারীরিক অবস্থা দেখে ছাড়পত্র দেওয়া হবে।

সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা টিনা পাল জানান, লকডাউনকৃত বাড়ীটি বর্তমানে প্রশাসনের নজরধারীতে রয়েছে। এলাকায় সতর্কতামূলক মাইকিং করা হয়েছে।

জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে বগুড়ার গাবতলীতে শিশুর মৃত্যু, ৩টি বাড়ি লকডাউন
গাবতলী (বগুড়া) উপজেলা সংবাদদাতা : গত বুধবার সন্ধ্যায় বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে করোনা আইসোলেশনে ইউনিটে ভর্তি থাকা ১৩ বছরের শিশুর মৃত্যু হলে ওই দিন রাঁত ১১টা ৩০মিনিট দিকে গ্রামের বাড়ীতে দাফন উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের উপস্থিতিতেই সম্পন্ন হয়েছে বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম।
দাফনের সময় উপস্থিত ছিলেন বাগবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মুছা মিয়া, এসআই আরিফুল, এএসআই গন, পুলিশ, ইউপি সদস্য’সহ মরহুমের পরিবার। এরপর ওই গ্রামের ৩টি বাড়ী লকডাউন করে দিয়েছেন গাবতলী ইউএনও মোছাঃ রওনক জাহান।
স্বজনরা জানান, গত সোমবার থেকে শিশুটি পায়ে ব্যথা, জ্বর ও শ্বাস কষ্টে হলে গত বুধবার সকালে শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে তাঁরা দুপুরে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।
মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য র্কমকর্তা (আরএমও) ডা. শফিক আমিন কাজল জানান, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট থাকায় গাবতলীর ওই শিশুকে বুধবার বিকাল ৩টায় হাসপাতালের করোনা আইসোলেশনে ইউনিটে ভর্তি করা হয়।
ডা. কাজল আরো জানান, ভর্তির পর শিশুটির অবস্থা খুব একটা ভাল ছিল না। পরে অক্সিজেন দেওয়া পর কিছুটা স্থতিশীল হলেও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা দিকে সে মারা যায়। করোনা ভাইরাসের উপসর্গ জ্বর ও শ্বাসকষ্ট থাকায় মরদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।
গাবতলী ইউএনও মোছাঃ রওনক জাহান জানান, ওই গ্রামের ৩টি বাড়ী লকডাউন  করে দেওয়া হয়েছে। এখনো প্রশাসনের পক্ষ থেকে নজরদারী রয়েছে।
সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (গাবতলী সার্কেল) সাবিনা ইয়াসমিন ও গাবতলী ওসি সাবের রেজা আহম্মেদ জানান, (বুধবার) ওই রাঁতে ১১টা ৩০মিঃ দিকে শিশুটির নামাজে জানাযা শেষে পুলিশের উপস্থিতিতেই দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।
গাবতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সারমিনা পারভীন জানান, মৃত্যু শিশুর মরদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে পরীক্ষার রির্পোট পেলেই মৃত্যুর বিষয়টি জানা যাবে।  

লালপুরে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে যুবকের মৃত্যু : ৩ বাড়ি লকডাউন!
লালপুর (নাটোর) উপজেলা সংবাদদাতা : জ্বর ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে নাটোরের লালপুরে নবীনগর এলাকার এক কলেজছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় নিরাপত্তার স্বার্থে নিহত ছাত্রের বাড়িসহ আশেপাশের ৩টি বাড়ি ১৪ দিনের জন্য লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন।
গতকাল বুধবার দুপুরে পুলিশ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উপস্থিতিতে স্থানীয় নবীনগর গোরস্থানে মৃত যুবকের দাফনের পরে তার বাড়ির আশেপাশের তিনটি বাড়ি লকডাউন করা হয়।
লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মুল বানীন দ্যুতি লকডাউনের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘নিহত ঐ ছাত্রের বাড়িসহ আশপাশের বাড়ির মানুষগুলোর নিরাপত্তার স্বার্থে এ ঘোষণা দেয়া হয়েছে।’
প্রসঙ্গত, ‘গত মঙ্গলবার বিকালে শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে আক্রান্ত ঐ ছাত্রকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাতে তার মৃত্যু হয়।’

সিলেটে কোয়ারেন্টিনে সংযুক্ত আরো ১৯, মুক্তি  ১৯০ জন
সিলেট ব্যুরো : গত ২৪ ঘন্টায় সিলেট বিভাগে হোম কোয়ারেন্টিনে সংযুক্ত হয়েছেন  আরো ১৯ জন। ওই সমেয়র ছাড়পত্র লাভ করেছেন  ১৯০ জন।  স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছে আরো জানান, নতুন যুক্তদের মধ্যে রয়েছেন সুনামগঞ্জে ৭ জন এবং মৌলভীবাজারে ১২ জন রয়েছেন। তবে সিলেট ও হবিগঞ্জে নতুন করে কাউকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়নি। ছাড়পত্র পাওয়াদের মধ্যে রয়েছেন সিলেটে ৫৭ জন, সুনামগঞ্জে ৪২ জন, হবিগঞ্জে ৫১ জন ও মৌলভীবাজারের ৪০ জন ।

শেরপুরে  করোনা সন্দেহে ২ জনের নমুনা সংগ্রহ, এক বাড়ি লকডাউন
শেরপুর জেলা সংবাদদাতা : শেরপুরের নকলা উপজেলার ধনাকুশা গ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে ঢাকা ফেরত মা ও ছেলের নমুনা সংগ্রহ করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজে পাঠিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। আইইডিসিআরের নির্দেশনায় স্থানীয় একটি মেডিকেল টিম আজ দুপুরে তাদের  নমুনা সংগ্রহ করে। এ ঘটনায় ওই বাড়িটি লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। বাড়ির অন্যান্য বাসিন্দাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তার বাবা জ্বর সর্দি থাকলেও আইইডিসিআরের নির্দেশনা মতোবাকে ২জনকেই করোনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

নকলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকার সন্দেহ হওয়ায় ওই দুইজনের নমুনা সংগ্রহ করে  পাঠানো হচ্ছে। পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ পেলে পরিবারের অন্যান্যদেরও নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

আক্রান্ত সন্দেহ করা একজন ৪ দিন আগে ঢাকা থেকে বাড়ী ফিরেছে, সে পেশায় রিক্সাচালক। গতরাত থেকে তার মাও অসুস্থ হয়ে পড়ে। সন্দেহ করা ব্যাক্তির সর্দি, জ্বর, গলা ব্যাথা আছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ বিভাগ।

 

যশোরে হোম কোয়ারেন্টানে ২৪১৫, আইইডিসিআরে পাঠানো ৬জনের নমুনায় করোনাভাইরাস নেই
যশোর ব্যুরো : যশোরে গত ২৪ঘন্টায় ৩১জনসহ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ২হাজার ৪শ’ ১৫জন হোমকোয়ারেন্টানে রাখা হয়েছে। হাসপাতাল থেকে আইইডিসিআরে পাঠানো ৬জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি। এই তথ্য যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন।তিনি জানান, যশোরের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি এখনো পর্যন্ত মোটামুটি ভালো। আমরা সেনাবাহিনী ও সিভিল প্রশাসনের সহায়তায় সর্বোত চেষ্টা চালাচ্ছি করোনা প্রতিরোধে।

লক্ষ্মীপুরে বৃদ্ধের মৃত্যুকে কেন্দ্রকরে ১৫ বাড়ি লকডাউন
লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদদাতা : লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ৩ নং দালাল বাজার ইউনিয়নস্থ মাধা ব্যাপারী বাড়ির মোঃ রেজা(৬৫) বুধবার ( ১ লা এপ্রিল )  সন্ধ্যায় মারা যায়। এঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে উক্ত এলাকার বৃহস্পতিবার থেকে ১৫ টি বাড়ি লকডাউন করে রাখা হয়।
দালাল বাজার পুলিশ কেম্পের ইনচার্জ উপপরিদর্শক পুলেন বড়ুয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সখিপুরে করোনা সন্দেহে আইসোলেশনে এক ব্যক্তি       
সখিপুর(টাঙ্গাইল)উপজেলা সংবাদদাতা : টাঙ্গাইলের সখিপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে এক ব্যক্তিকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। ঐ ব্যক্তি গাজীপুরে একটি কারখানায় চাকরি করেন। ১ এপ্রিল বুধবার রাতে সখিপুর সরকারি মুজিব কলেজে গঠিত আইসোলেশনে তাকে পাঠানো হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল হামিদ জানান, ওই ব্যক্তি  মঙ্গলবার রাতে জ্বর নিয়ে বাড়িতে ফেরেন। বুধবার সকালে তাঁর বমি ও পাতলা পায়খানা শুরু হয়। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) জানানো হয়। পরে ইউএনওর পরামর্শে প্রতিবেশীরা তাঁকে সখিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠান।

কিন্তু ঐ ব্যক্তি হাসপাতালে আসার পথে ভয়ে পালিয়ে যান। এরপর প্রশাসনের উদ্যোগে এবং ঐ ব্যক্তির বড় ভাইয়ের পরামর্শে তিনি সখিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন।

উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ইউএনও)আসমাউল হুসনা লিজা বলেন, এ ঘটনায় ওই ব্যক্তির বাড়ির আশপাশের আটটি পরিবারকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুস সোবহান বলেন, জ্বর বমি ও পাতলা পায়খানা হলেই যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এটা নিশ্চিত নয়। সাধারণ জ্বরেও বমি পাতলা পায়খানা হতে পারে। তাকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। অবস্থা বুঝে ও পর্যবেক্ষণ করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

লালপুরে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে যুবকের মৃত্যু, ৩ বাড়ি লকডাউন!

লালপুর (নাটোর) উপজেলা সংবাদদাতা : জ্বর ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে নাটোরের লালপুরে নবীনগর এলাকার এক কলেজছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় নিরাপত্তার স্বার্থে নিহত ছাত্রের বাড়িসহ আশেপাশের ৩টি বাড়ি ১৪ দিনের জন্য লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার (১এপ্রিল)দুপুরে পুলিশ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উপস্থিতিতে স্থানীয় নবীনগর গোরস্থানে মৃত যুবকের দাফনের পরে তার বাড়ির আশেপাশের তিনটি বাড়ি লকডাউন করা হয়।
বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার সময় লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মুল বানীন দ্যুতি লকডাউনের সত্যতা নিশ্চিত করে ইনকিলাব কে বলেন, ‘নিহত ঐ ছাত্রের বাড়িসহ আশপাশের বাড়ির মানুষগুলোর নিরাপত্তার স্বার্থে এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, ‘গতকাল মঙ্গলবার বিকালে শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে আক্রান্ত ঐ ছাত্রকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাতে তার মৃত্যু হয়।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
*শওকত* ২ এপ্রিল, ২০২০, ১১:০৮ এএম says : 0
আল্লাহ স্বরন করতে হবে ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন