ঢাকা, সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৮ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান

নেতাকর্মীদের প্রতি খালেদা জিয়ার নির্দেশ

রফিক মুহাম্মদ | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০২ এএম

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া দেশের এ সঙ্কটকালে অসহায় গরিব মানুষের পাশে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে দাঁড়াতে নেতাকর্মীসহ সমাজের বিত্তশালীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি করোনাভাইরাসে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে দেশবাসীকে এই মহামারী প্রতিরোধে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সক্রিয় ভূমিকা রাখারও আহ্বান জানিয়েছেন। পারিবারিক এবং দলীয় একাধিক সূত্রের সাথে গতকাল কথা বলে এমনটা জানা যায়।

ছয় মাসের জামিনে মুক্ত বেগম খালেদা জিয়া বর্তমানে তার গুলশানের বাসায় কোয়ারেন্টাইনে আছেন। তিনি নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন। দলের একাধিক সিনিয়র নেতা জানান, করোনায় উদ্ভ‚ত সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে দলের চেয়ারপার্সন খুবই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। তিনি বাসায় নিয়মিত টিভি দেখছেন, পত্রিকা পড়ছেন। এ ছাড়া সিনিয়র নেতাদের সাথে টেলিফোনে কথা বলে দেশের সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিচ্ছেন।
সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে এই মহামারী প্রতিরোধে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সক্রিয় ভ‚মিকা পালন করার আহ্বান জানিয়েছেন। এছাড়া দেশের এ সঙ্কটকালে অসহায় গরিব মানুষের পাশে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে দাঁড়াতে দলের নেতাকর্মীসহ সমাজের বিত্তশালীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ম্যাডামের স্বাস্থ্যের বিষয়ে আমরা সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছি। তিনি দেশের বর্তমান মহামারী করোনাভাইরাস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। আল্লাহর কাছে দোয়া করেছেন, দেশের মানুষকে এই মহামারীর আগ্রাসন থেকে মহান রাব্বুল আলামীন যেন রক্ষা করেন। এ ছাড়া দেশের এই ভয়াবহ সঙ্কটকালে প্রত্যেকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশের গরিব ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে দলের নেতাকর্মীসহ দেশের বিত্তবানদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের অন্যতম সদস্য ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, কোয়ারেন্টাইনে থাকার কারণে এখন প্রধান কাজ হলো ম্যাডামকে একা থাকতে দেয়া। উনি আগের চেয়ে মানসিকভাবে ভালো আছেন। তবে করোনাভাইস নিয়ে তিনি উদ্বিগ্ন। করোনাভাইরাসের সংক্রামণে দেশের এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশের খবর পত্র-পত্রিকায় দেখে উনার (খালেদা জিয়া) মন খারাপ হয়ে যায়। মানুষজনের কী হবে, তারা কীভাবে বাঁচবে, গরিবদের কী হবে, তাদের চাকরি থাকবে কি না ইত্যাদি বিষয়ে তিনি উদ্বিগ্ন, এনিয়ে তিনি চিন্তিত। এতে উনার মনের ওপর চাপও পড়ছে।

ডা. জাহিদ বলেন, আমাদের সাথেও আলাপের সময়ে করোনার ভয়াবহতার বিষয়টি নিয়ে উনার মন খারাপ হওয়া ও মনের যন্ত্রণার কথাটা আমাদেরকে বলেন। এই দুর্যোগের সময় সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে করোনা প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার জন্য তিনি নির্দেশ দিয়েছেন।

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক টিমের সদস্য বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, গুলশানের বাসায় চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে। তিনি বলেন, লন্ডন থেকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যন তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমানের সার্বিক তত্ত্বাবধায়ক ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) চিকিৎসা চলছে। এখন তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে। উনাকে পূর্ণাঙ্গ সুস্থ করতে দীর্ঘ সময় লাঘবে এবং আধুনিক চিকিৎসার প্রয়োজন হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন