ঢাকা, শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৬ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ট্রাম্প-সমর্থিত হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন করোনায় সর্বাধিক কার্যকর

সমীক্ষায় ৬২শ’ চিকিৎসকের সমর্থন

ডেইলি মেইল | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০১ এএম

হাজার হাজার চিকিৎসকের একটি আন্তর্জাতিক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন বর্তমানে পাওয়া সবচেয়ে ভাল করোনাভাইরাস ওষুধ। ৩০টি দেশ থেকে ৬ হাজার ২০০ চিকিৎসকের মধ্যে জরিপ করা হয়েছে, সংখ্যাগরিষ্ঠ (৩৭ শতাংশ) বলেছেন, ভাইরাসটির এটি ‘সবচেয়ে কার্যকর থেরাপি’। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) দাবি করেছে যে, ‘কোনও ওষুধ’ এ রোগ প্রতিরোধ বা নিরাময় করতে পারে, এমন কোনও প্রমাণ নেই।

ক্রমবর্ধমান সঙ্কট এবং দৃশ্যমান কোনও নিরাময় না হওয়া অবস্থায় ইউরোপ, আমেরিকা এবং চীন অঞ্চলের চিকিৎসকদের কোভিড-১৯ রোগীদের প্রতিশ্রুত ওষুধ লেখার অনুমোদন দেয়া হয়েছে। কিন্তু যুক্তরাজ্য পরীক্ষা সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহার থেকে ক্লিনিকগুলোকে বিরত রেখেছে।
ক্লোরোকুইন (সিকিউ), আরালেন হিসাবে চিহ্নিত এবং প্ল্যাকুইনিল নামে পরিচিত কাউন্টার পার্ট হাইড্রোক্সিলোক্লোইন (এইচসিকিউ) সুপ্রতিষ্ঠিত ওষুধ। রিউম্যাটয়েড এবং লুপাসের চিকিৎসার জন্য এগুলি এনএইচএসেও দেয়া হয় এবং ১৯৪০ এর দশক থেকে এটি ব্যবহৃত হয়।

চিকিৎসকদের জন্য ‘ভার্চুয়াল লাউঞ্জ’ সেরমোর পরিচালিত সর্বশেষ জরিপে দেখা গেছে যে, ট্যাবলেটগুলি স্পেনের কোভিড-১৯-র জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়েছিল, যেখানে ৭২ শতাংশ চিকিৎসক জানিয়েছেন যে, তারা সেগুলি প্রেসক্রাইব করেছিলেন।

ইতালিতে পঁচাশি শতাংশ চিকিৎসক বলেছেন যে, তারা ওষুধগুলি ঘাতক ভাইরাসের চিকিৎসায় ব্যবহার করেছেন, যখন চীনে এটি ছিল ৪৪ শতাংশ। জরিপে যুক্তরাজ্যের মাত্র ১৩ শতাংশ চিকিৎসক জানিয়েছেন যে, তারা করোনোভাইরাস রোগীদের জন্য ক্লোরোকুইন নির্ধারণ করেছিলেন, সম্ভবত বেসরকারি ক্লিনিকের মাধ্যমে।

জরিপটিতে উল্লেখ করা হয়নি যে, কোন ওষুধ কোভিড-১৯-এর চিকিৎসার ক্ষেত্রে সবচেয়ে কার্যকর বলে বেশি ভোট পড়েছিল। তবে এটি লক্ষ্যণীয় বিষয় হল, চিকিৎসকরা সাধারণত তিনটি ওষুধ ব্যবহার করে থাকেন। ওষুধগুলো হ’ল, এক ধরনের ব্যথানাশক এনালজেসিকস (৫৬ শতাংশ), ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের জন্য ব্যবহৃত অ্যান্টিবায়োটিক অ্যাজিথ্রোমাইসিন (৪১ শতাংশ), এবং হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন (৩৩ শতাংশ)। সেরমোর প্রধান নির্বাহী পিটার কার্ক ভোটগ্রহণের ফলাফলকে ‘নীতিনির্ধারকদের জন্য বিশ্বব্যাপী অন্তর্দৃষ্টির ধন’ হিসাবে বর্ণনা করেন। তিনি আরও যোগ করেছেন: ‘আমরা কীভাবে এই মহামারীটি মোকাবিলা করতে পারি এবং দ্রুত একে অপর এবং বিশ্বের সাথে তথ্য ভাগ করে নিতে সক্ষম হব সে বিষয়ে চিকিৎসকদের আরও সক্রিয় হওয়া উচিত’।

বিশ্বজুড়ে, দেশগুলি ক্লোরোকুইন লভ্যতা বাড়াচ্ছে। এটি কুইনাইনের একটি কৃত্রিম রূপ যা সিনচোনা গাছ থেকে আসে এবং ম্যালেরিয়া নিরাময়ের জন্য বহু শতাব্দী ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। তারা শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা জাগ্রত করে এবং একইভাবে করোনভাইরাস রোগীদের জন্য উপকারী হতে পারে তখন এই অবস্থার বিরুদ্ধে কাজ করে।
চীনের প্রাথমিক পরীক্ষায় দেখা গেছে যে, এগুলো করোনভাইরাসের মারাত্মক প্রভাব হ্রাস করতে পারে এবং চিকিৎসকরা এমনকি ভাইরাসে আক্রান্ত কিন্তু এখনও লক্ষণ স্পষ্ট হয়নি এমন লোকদের দেয়ার জন্য ওষুধের ব্যাপক ব্যবহারকে ‘প্রফিল্যাকটিক’ হিসাবে বিবেচনা করছেন। আমেরিকা জুড়ে চিকিৎসকরা এখন গুরুতর অসুস্থ কোভিড-১৯ আক্রান্তদের চূড়ান্ত সমাধান হিসাবে সিকিউ এবং এইচসিকিউ লিখে দিতে পারেন। তবে যুক্তরাজ্যে এটি অনুমোদিত হয়নি।

স্বাস্থ্য ও সমাজসেবা অধিদফতরের একজন মুখপাত্র বলেছেন: ‘হাইডোক্সিক্লোরোকুইনের মতো বিদ্যমান ওষুধগুলো কোভিড-১৯-এর চিকিৎসার জন্য উপযুক্ত কিনা তা নির্ধারণের জন্য ইতিমধ্যে যুক্তরাজ্যে ক্লিনিকাল ট্রায়াল চলছে। ‘যতক্ষণ না আমরা স্পষ্ট, সুনির্দিষ্ট প্রমাণ পাচ্ছি যে, এ চিকিৎসা নিরাপদ এবং কার্যকর, সেগুলি কেবল একটি ক্লিনিক্যাল পরীক্ষার মধ্যেই ব্যবহার করা উচিত।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
Milton Baka ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:১৭ এএম says : 0
আর তাই শেষ দুই দিন আমেরিকায় মৃত্যু দেরহাজার ছুঁই ছুঁই।
Total Reply(0)
Masum Akter ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
বাংলাদেশে hydrochloroquine পাওয়া যায় না তবে hydrochloroquine sulphate আছে
Total Reply(0)
কাল্প‌নিক কাব্য ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
যা তৈরি হয় কালোজিরা থেকে
Total Reply(0)
Shahed Ahmed ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:২০ এএম says : 0
তোদের সব ক্ষমতা আর বাহাদুরি শেষ।
Total Reply(0)
Arif Khan Sobuj ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:২১ এএম says : 0
**যদি বাংলাদেশ এই পদক্ষেপ গুলো নেয় তবে কেমন হয়::::::::! ১, যত দ্রুত সম্ভব ৬৪ জেলায় করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা এবং কীট সরবরাহ করতে হবে। ২, সারা বাংলাদেশ দুই লক্ষাধিক করোনা রোগী রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। ৩, পর্যাপ্ত পরিমাণ ভেন্টিলেটরের ব্যবস্থা করতে হবে। ৪, ডঃ দের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে। ৫, পর্যন্ত পরিমাণ চিকিৎসা সরঞ্জামাদির ব্যবস্থা করতে হবে। ৬, সামাজিক দুরাত্ত্ব রক্ষা করার জন্য প্রয়োজনে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। ৭,অসহায় দুস্থ দের খাদ্য সেবা নিশ্চিত করতে হবে । ৮, প্রয়োজনে জরুরী তহবিল গঠন করে হবে। ৯, যত দ্রুত সম্ভব পদক্ষেপ বাস্তবায়নে একশন নিতে হবে। "মানবিকতা সবকিছুর উর্ধ্বে" 'ভুল হলে ক্ষমা প্রার্থী'
Total Reply(0)
Yasmin Dipa ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:২১ এএম says : 0
আমার ব্যক্তিগত মত কলা, শসা, ঠান্ডা পানি, ফ্রীজে রাখা ফল না খাওয়া প্রাথমিক প্রটেকশন
Total Reply(0)
Wasim Rasel ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:২২ এএম says : 0
দেশীয় কায়দায় কিছু পরামর্শ মেনে চললে ও সাধারণ সর্দি কাশি নিরাময় করা সম্ভব ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন