রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড দুর্যোগে আলোর গেরিলা নামিয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ এপ্রিল, ২০২০, ১১:৫০ পিএম

করোনাভাইরাসের চলমান পরিস্থিতি এবং বৈরী আবহাওয়ার মৌসুম বিবেচনা করে স্থানীয় সমস্যা সমাধানে ‘দুর্যোগে আলোর গেরিলা’’ কার্যক্রম শুরু করেছে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড। দেশের ২ কোটি ৮৫ লাখ গ্রাহক এবং ১২ কোটির বেশি মানুষের ঘরে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রাখতে এ কার্যক্রম নেয়া হয়েছে।
বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন (অব:) ইনকিলাবকে বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ, গ্রীষ্মের তাপদাহ, মাহে রমজান এবং ঝড়-বৃষ্টির সময়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট দ্রুত নিরসনের জন্য সকল ত্যাগে পল্লী বিদ্যুৎ রাখিব সচল মূলমন্ত্র ও দেশপ্রেমে উদ্ধুদ্ধ হয়ে উদ্ভাবনী উদ্যোগ দুর্যোগে আলোর গেরিলা কার্যক্রম পরিচালনা শুরু করেছি।
জানা গেছে, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড আওতায় ৮০ টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির, ২৭৬ টি জোনাল অফিস, ১৪২ টি সাব- জোনাল অফিস, ১১০ টি এরিয়া অফিস ও ১০১৬ টি অভিযোগ কেন্দ্র মিলে ১৬২৪ টি অফিসের মাধ্যমে অভিযোগ সম‚হ নিরসন পূর্বক ২ কোটি ৮৫ লাখ গ্র্রাহককে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করে আসছে। বৈশ্বিক মহামারী হিসেবে আবির্ভুত করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাংলাদেশেও বিস্তৃত হচ্ছে। এ বিস্তৃতি প্রতিরোধের জন্য সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি এবং চলাচল ও গমনাগমণে নিষেধাজ্ঞা কার্যকর রয়েছে। এছাড়া, সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে এবং বিভিন্ন ঝুকিপূর্ণ এলাকা লক-ডাউন ঘোষিত হয়েছে। এতে পরীক্ষার্থীসহ সকল শিক্ষার্থী এবং দেশের অধিকাংশ মানুষ ঘরেই অবস্থান করছেন।
পাশাপাশি, দেশের বিভিন্ন স্থানে হাসপাতাল, চিকিৎসাকেন্দ্র, আইসোলেশন, কায়ারেন্টিন সেন্টার ইত্যাদি প্রস্তুত আছে। এছাড়া, সেচ মৌসুমও চলমান রয়েছে। গ্রীষ্ম মৌসুম শুরু হওয়ায় তাপমাত্রা দিনে দিনে বৃদ্ধির পাশাপাশি ডেঙ্গু/চিকন গুনিয়ার প্রাদুর্ভাব সৃষ্টিরও আশঙ্কা রয়েছে। গ্রীষ্ম মৌসুমের স্বাভাবিক ঝড়-বৃষ্টি ছাড়াও বিভিন্ন এলাকায় দুর্যোগপ‚র্ণ আবহাওয়ার সৃষ্টি হচ্ছে।
আগামী ২৪/২৫ এপ্রিল থেকে পবিত্র রমজান মাস শুরু হচ্ছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিবর্গের চিকিৎসা সেবা প্রদান, আইসোলেশন/ কোয়ারেন্টিনে থাকা ব্যক্তিবর্গের অবস্থান আরামদায়ক করা, দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য সেচ কার্যক্রম নির্বিঘেœন পরিচালনা করা, শিক্ষার্থীদের লেখাপাড়া এবং গ্রীষ্মের এ দিনে রোযাদারদের সিয়াম সাধনা আরামদায়ক এবং স্বস্তিদায়ক করার জন্য নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রাখা হবে।
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতির ক্রমশ অবনতির প্রেক্ষিতে বিভিন্ন এলাকা লক-ডাউনের আওতায় থাকায় উক্ত কার্যক্রম পরিচালনা করা দুরুহ হয়ে পড়ছে। লক-ডাউনের আওতাভ‚ক্ত এলাকা আরোও ঘনীভ‚ত হতে পারে। অধিকন্তু মৌসুমি ঝড়-বৃষ্টি বা কালবৈশাখী ঝড়ে কোন অস্বাভাবিক পরিস্থিতির উদ্ভব হলে বর্তমান পদ্ধতির মাধ্যমে দ্রূত স্বাভাবিক বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা করা সম্ভব নাও হতে পারে। চলমান পরিস্থিতি এবং বৈরী আবহাওয়ার মৌসুম বিবেচনা করে স্থানীয় সমস্যা সমাধানের জন্য উদ্ভাবনী উদ্যোগ ‘‘দুর্যোগে আলোর গেরিলা’’ কার্যক্রম পরিচালনা হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
A HANNAN KHAN ১৪ এপ্রিল, ২০২০, ১০:২৫ পিএম says : 0
এই উদ্যোগ নেয়ার জন্য,অসঃখ্য ধন্যবাদ মাননীয় বিদ্যুৎ চেয়ারম্যান কে।
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন