ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

রাজধানীতে সাংবাদিককে মারধর এসআই প্রত্যাহার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০২০, ১১:৫১ পিএম

রাজধানীর ওয়ারীতে বাংলাদেশ প্রতিদিনের আদালত প্রতিনিধি আইনজীবী তুহিন হাওলাদারকে পুলিশ মারধর করেছেন এসআই মাহবুবুর রহমানসহ কয়েকজন আনসার সদস্য। এতে তিনি আহত হয়েছেন। গতকাল দুপুরে রাজধানীর টিকাটুলির কেএম দাস রোডে এ ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় গতকাল রাতে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। 

আহত তুহিন বলেন, 'দুপুরে কেএম দাস রোডে ওয়ারী থানার এসআই মাহবুবুর রহমানসহ একজন পুলিশ ও একজন আনসার সদস্য আমার বাইক থামাতে বলেন। বাইক থামালে ঘর থেকে কেন বের হয়েছি এটা বলেই মারধর করেন। তারা আমাকে কোনো কথা বলতে দেননি। পরে ঢামেক থেকে আমি প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছি। এছাড়া অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানান তিনি।
ওয়ারী বিভাগের ডিসি শাহ ইফতেখার আহমেদ বলেন, সাংবাদিক তুহিনকে মারধরের বিষয়টি প্রাথমিক অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে। পরে তাকে প্রাথমিকভাবে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এছাড়া বিস্তারিত অনুসন্ধান করে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Mohammed Shah Alam Khan ১৭ এপ্রিল, ২০২০, ৬:০৩ এএম says : 0
বেশ কিছুদিন পুলিশের বেশ শুনাম শুনছিলাম আর ভাবছিলাম আমাদের দেশের পুলিশ মনে হয়ে সংশোধন হয়েগেল। এনারা এই বিপদের দিনে নিজেদেরকে সংশোধন করে নিয়েছে এবং সামনের দিকেও সেইভাবেই চলবে। কিন্তু বিধি বাম... কুকুরের লেজ যেমন ১৪ বছর সোজা একটা চোংগার মধ্যে আটকিয়ে রাখা হয় ততক্ষণই লেজ সোজা থাকে চোঙ্গার ভিতর। তারপর চোঙ্গা যেই খুলে নেয়া হয় কুকুরের লেজ যেই সেই হয়ে যায় আর সোজা থাকেনা। তেমনই আমাদের দেশের পুলিশ এদেরকে যতই পরিবর্তনের বাতাস দেয়া হউক না কেন এনারা বাতাস সরেগেলেই যেই সেই...... এখন আমাদেরকে একমাত্র মহান আল্লাহ্‌তালার উপরই নির্ভর করে থাকতে হবে এছাড়া আমাদের কোন গতী নেই। সর্বদাই পুলিশ থেকে সজাগ থাকতে হবে পারলে পুলিশ থেকে ২২ হাত দূর দিয়ে অতিক্রম করতে হবে যাতে পুলিশের নজরে না আসি। আমি জানি এই এস আই মাহবুবুর রহমানকে উপস্থিত সময়কে সামাল দেয়ার জন্যেই প্রথমিকভাবে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এখন সে আর ওয়ারী থানায় নেই তাঁকে অন্যকোথায়ও বদলী করা হয়েছে এটাই মনে হচ্ছে। আমি অনেক দেখেছি এসব পুলিশ অফিসারের কোন বিচার হয়না এর সবসময়ই সাময়িক ভাবে সরে যায় এরপর... যদি প্রতিপক্ষ বিরাট কিছু হয়ে যায় তাহলে আবশ্য এদের খবর হয়ে যায়। এখন যেমন এই তুহিন হাওলাদার তিনি একজন আইনজীবী আবার সাংবাদিক এই দুই পেশার লোকজন আবার মোটা মুটি ক্ষমতাবান। কাজেই এখন যদি আইনজীবী ও সাংবাদিকরা হৈচৈ লাগিয়ে দেন তাহলে আমি নিশ্চিত আমাদের এস আই মাহবুবুর রহমান সাহেবের খবর আছে। এনারা এস আই সাহেবের আতুরী বের করে ছাড়বেন (যদি এনারা এই ঘটনা নিয়ে মাঠে নামেন) ইনশ’আল্লাহ। আল্লাহ্‌ আমাকে সহ সবাইকে পুলিশের হাত থেকে বেঁচে থাকতে সজাগ রাখেন। আমিন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন