ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কারাগার থেকে মুক্তির জন্য সউদী প্রিন্সেসের আবেদন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০২০, ৫:০৫ পিএম

কারাগারে বন্দী সউদী প্রিন্সেস বাসমাহ বিনতে সউদ বিন আব্দুল আজিজ তার মুক্তির জন্য বাদশাহ এবং ক্রাউন প্রিন্সের কাছে প্রকাশ্যে আবেদন জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় তিনি তার স্বাস্থের অবনতির জন্য মুক্তির আবেদন জানান।

গত বছর সউদী আরব থেকে পালিয়ে চিকিৎসার প্রয়োজনে সুইজারল্যান্ড যাওয়ার সময় তাকে আটক করা হয়। এরপর পাসপোর্ট জালের দায়ে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। কারাগারে তার ফোন ব্যবহার করার কোন অনুমতি না থাকায় তার পক্ষ থেকে টুইটারে লেখা হয়, বর্তমানে আমাকে বিনা অপরাধে আল-হায়ার কারাগারে রাখা হয়েছে। আমার শরীরের অবস্থা খুবই খারাপ, যা আমাকে দিন দিন মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আমি কোন চিকিৎসা পাচ্ছি না এবং রাজ দরবার থেকে আমার কোন চিঠিরও উত্তর দেয়া হয়নি।’

জানা গেছে, রাজপরিবারের সমালোচক হিসেবে পরিচিত ব্যবসায়ী ও নারীবাদী আন্দোলনকারী বাসমাহকে গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে আটক করার পর থেকে তিনি সউদী আরবের আল-হায়ার কারাগারে বন্দি রয়েছেন। গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে বাসমাহকে আল-হায়ার কারাগারের ১০৮ নম্বর সেলে আটক রাখা হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা সপ্তাহে একবার তার সঙ্গে দেখা করতে পারেন। তবে তাকে কবে মুক্তি দেয়া হতে পারে পরিবারের সদস্যরা তা জানেন না।

রাজনৈতিক বন্দিদের থাকার জন্য পরিচিত রিয়াদের নিকটবর্তী উচ্চ-সুরক্ষিত কারাগার আল-হায়ার ভিতরে রাজকন্যা কীভাবে টুইট করতে সক্ষম হয়েছিলেন তা স্পষ্ট নয়। তার প্রকাশ্যে আবেদন করার বিষয়টি রাজপরিবারের কারও জন্য অস্বাভাবিক সাহসী একটি পদক্ষেপ। কারণ, রাজপরিবারের সদস্যরা সাধারণত অভ্যন্তরীণ অভিযোগ প্রকাশ্যে উত্থাপন করা থেকে বিরত থাকেন।

গত মাসে বাদশাহর ভাই প্রিন্স আহমেদ বিন আব্দুলাজিজ আল সউদ এবং তার ছেলে ও সাবেক ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফকে আটক করা হয়েছিল।

এ বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে এখনও কোনও আনুষ্ঠানিক মন্তব্য করা হয়নি। তবে রাজদরবারের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র এ জাতীয় উদ্বেগকে প্রত্যাখ্যান করে এবং বলেছে যে এই বন্দি করার মাধ্যমে রাজ পরিবারের মধ্যে ক্রাউন প্রিন্সের বিরোধিতা না করার জন্য একটি কঠোর সতর্কতা প্রেরণ করা হয়েছিল। সূত্র: এএফপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন