ঢাকা, সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৮ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দুই গ্রামবাসীর বিরোধের জেরে দোকানে আগুন

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে আগুন নেভাতে গিয়ে প্রাণ গেল যুবকের

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০২০, ১:১৯ পিএম

সোনাইমুড়ী উপজেলার চাষীরহাট ইউনিয়নের কাবিলপুর উত্তরপাড়া বাজারে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। নিজের দোকান আগুনে পুঁড়ে যেতে দেখে তা নেভাতে এসে মো. রাহাত (২৪) নামের এক যুবক মারা যায়। স্থানীয়দের অভিযোগ, পোরকরা ও কাবিলপুর গ্রামের মধ্যে বিরোধের জেরধরে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। রাহাতের মৃত্যু নিয়ে রহস্য থাকলেও পুলিশ বলছে বিদ্যুস্পৃষ্টে তার মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত রাহাত পাশ্ববর্তী জেলা কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার বিপুলাসার এলাকার জাওড়া গ্রামের মিঝি বাড়ীর ফজলুল হকের ছেলে। আটককৃতরা হলো, চাষীরহাট ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার নূরুল হকের ছেলে মহিন উদ্দিন (৩৮) ও ৫নং ওয়ার্ড সাহারপার গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে মেহরাব হোসেন ভুট্ট (৩৬)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৯মার্চ রবিবার মাগরিবের নামাজের পরপর দক্ষিণ পোরকার গ্রামে রফিকুল ইসলাম সুমনসহ একদল যুবক কাবিলপুর উত্তরপাড়া গিয়ে স্থানীয়দের ওপর হামলা করে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে সুমন নামের এক যুবক আহত হয়। পরে সোমবার ভোরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার জের ধরে পোরকরা ও কাবিলপুর এ দুই গ্রামবাসীর মধ্যে প্রায় সময় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়দের ধারনা মঙ্গলবার ভোরের কোন একসময় পোরকরা গ্রামের লোকজন কাবিলপুর উত্তরপাড়ায় এসে হাজী মার্কেটে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে একটি মুদি, একটি ফার্মেসি ও একটি ওয়ার্কসপ দোকান পুড়ে যায়। আগুনের লেলিহান দেখে লোকজন ছুঁটে আসলে ওষধ দোকানের মালিক রাহাতের লাশ বিদ্যুতের লাইন পেছানো অবস্থায় তার দোকান থেকে একটু দূরে পড়ে থাকতে দেখেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধি বলেন, আগুন দেখে রাহাতসহ তিন যুবক বাড়ী থেকে দৌঁড়ে বাজারের দিকে আসে। এসময় অপর দুইজন বাগান দিয়ে আসলেও প্রধান সড়ক দিয়ে আসে রাহাত। কিন্তু তার মৃত্যুর বিষয়টি অপর দুইজন বলতে পারছেনা। একটি দোকানের বিদ্যুতের মিটারের ছেঁড়া লাইন (ক্যাবল) মৃত রাহাতের শরীরে পেঁছানো রয়েছে। তবে অগ্নিকান্ডের বিষয়টি পরিকল্পিত বলে সন্দেহ করছেন তিনি।

সোনাইমুড়ী থানার ওসি আব্দুস সামাদ বলেন, বাজারে আগুন জ্বলতে দেখে ওষধ দোকানের মালিক দ্রুত ছুঁটে আসতে গিয়ে ছেঁড়া বিদ্যুতের লাইনে জড়িয়ে বিদ্যুস্পৃষ্টে মারা গেছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন