ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

বিপিএলের জাঁকালো লোগো উম্মোচন

প্রকাশের সময় : ১৯ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : জাঁকজমক আয়োজনে জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (জেবি বিপিএল) লোগো উন্মোচন হলো। এ অনুষ্ঠানেই প্রদর্শিত হলো লিগের ট্রফিও।
গতকাল রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিপিএলের লোগো উন্মোচন করা হয়। আগামী ২৪ জুলাই চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের মাঠে গড়াবে ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর জেবি বিপিএলের খেলা। এর আগে এখানেই আগামীকাল বর্নাঢ্য উদ্বোধন হবে এই লিগের।
বিপিএলকে আধুনিক ধারায় উপস্থাপন করে দেশব্যাপী ফুটবলের নতুন জোয়ার আনার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ফুটবল ব্যক্তিত্বরা। গতানুগতিকের মোড়ক ভেঙে ফুটবলকে নতুনভাবে দর্শকদের কাছে নিয়ে যাওয়ার প্রয়াসেই আগাগোড়া ঠাসা ছিল অনুষ্ঠানটি।
বিপিএলের থিম সং ‘লেটস শাউট ফর ফুটবল’-এর তালে তালে নাচেন জনপ্রিয় অভিনেতা নিরব। গানটি তৈরি করা হয়েছে বর্তমান সময়ের উপযোগী ছন্দে ও বাজনায়। এবারের বিপিএলে স্পন্সর হয়েছে জজ ভ‚ঁইয়া গ্রæপ। যে কারণে লিগের নামকরণ হয়েছে জেবি বিপিএল। শুধু লোগো উন্মোচন বা ট্রফি প্রদর্শনই নয়, ওই অনুষ্ঠানে লিগে অংশ নেয়া ১২টি ক্লাবের পরিচিত পর্বও ছিল দারুণ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অংশ নেয়া প্রত্যেক ক্লাবের ফুটবলার ও কর্মকর্তারা। লিগের ট্রফি উপস্থাপন করা হয় অংশগ্রহণকারী বারো দলের অধিনায়কদের দিয়ে। স্যুট পরা অধিনায়করা র‌্যাম্পে হেঁটেছেন মডেলদের সঙ্গে। এর আগে ১২ ক্লাবের দলের পতাকা হাতে ও জার্সি গায়ে দর্শকদের সামনে উপস্থিত হন মডেলরা। তারা পরিচিত করেন ক্লাবগুলোকে। সুরের মূর্ছনায় লেজারের নয়নাভিরাম বর্ণিল রংয়ে একের পর এক সৃষ্টি হয় ভিন্ন ভিন্ন আবহ। যার মূল প্রতিপাদ্য ছিল ফুটবল। এলইডি স্ক্রিন বা পোস্টার যাই নজরে আসুক না কেন তা ছিল ফুটবলকে ঘিরেই।
অনুষ্ঠানে নিজ বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার বলেন, ‘বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) দেশের ফুটবলকে আবার আগের অবস্থানে নিয়ে যাওয়ার জন্য যে উদ্যোগ নিয়েছে তাতে তাদের শুভেচ্ছা জানাই। ফুটবল বাঙালির প্রাণের খেলা হলেও তা এখন অনেক পেছনে পড়ে গেছে। অতীতে ফুটবলের যে জনপ্রিয়তা ছিল তা ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করা হচ্ছে। আমরা ফুটবলকে সেই আগের অবস্থানে নিয়ে যাব। বিশেষ করে ফুটবলকে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। ফুটবল উন্নয়নে সবার সহযোগিতা চান। তিনি বলেন, ‘আমাদের কাজ হলো ফুটবল আয়োজন করা। এজন্য আমরা অনেক সহায়তা পাচ্ছি স্পন্সরদের কাছ থেকে। আমার মনে হয় না আমরা ফুটবলে এমন উৎসব দেখেছি। আমরা যদি একসঙ্গে কাজ করি ফুটবল কেন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যেতে পারবে না? আমি যদি খেলতে পারি বিদেশে, আমার ফুটবলাররা কেন পারবে না? ক্লাবগুলোকে আমি একটি কথা বলব আর তা হলোÑ আপনাদের সমর্থন প্রয়োজন। ফুটবলে কাজ করা অনেক কঠিন। ফুটবলের উন্নয়নের জন্য সবার সাহায্য প্রয়োজন।’ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সাইফ গেøাবাল স্পোর্টস লিমিটেডের চেয়ারম্যান তরফদার মো. রুহুল আমিন ও স্পন্সর জজ ভূঁইয়া গ্রæপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা একরামুল হক।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন