ঢাকা, সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৮ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সখিপুরে ডাকাত গুজবে রাতভর মসজিদে মসজিদে মাইকিং

সখিপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০২০, ২:৪৫ পিএম

টাঙ্গাইলের সখিপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম পাড়া-মহল্লায় গভীর রাতে ডাকাত এসেছে বলে মসজিদে মসজিদে মাইকিং করার ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) গভীর রাতে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় এ গুজবের ঘটনা ঘটে। মাইকিং করে এলাকায় ডাকাত ঢুকেছে সবাই হুশিয়ার সাবধান বলে লোকজনকে সতর্ক থাকতে বলা হয়। মুহুর্তের মধ্যেই এ গুজব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এতে অনেক মানুষ কিছুটা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে কিন্তু হঠাৎ করে গভীর রাতে মসজিদ থেকে মাইকিং করার সূত্রপাত ও ঘটনার কারণ জানা যায়নি।

স্থানীয়রা বলেন, রাত সাড়ে এগারোটার দিকে উপজেলার প্রতিমাবংকী, ছোট মৌশা, কালিদাস, কুতুবপুর, বেতুয়া, নলুয়া, বোয়ালী, তক্তারচালা, লাঙুলিয়া, দাড়িয়াপুর, কালিয়ান, বড়চওনা, কুতুবপুরবাজারসহ আশেপাশের গ্রামগুলোতে ডাকাত ঢুকেছে বলে সতর্ক করে মসজিদে মসজিদে মাইকিং করা হয়। ডাকাত আতঙ্কে বহু এলাকার মানুষ নির্ঘুম রাত কাটিয়েছে বলেও জানা যায়। এমতাবস্থায় সখিপুর থানা পুলিশের তৎপরতাও বেড়ে যায় বলে জানা যায়।

কৈয়ামধু গ্রামের ইউপি সদস্য মো.আমির হোসেন পলু বলেন, এলাকায় ডাকাত আতঙ্কে মাইকিং শুনে রাতে হঠাৎ ঘুম ভেঙে যায়। কিন্তু ডাকাতের সন্ধান পাওয়া যায়নি। এরপর আর সারারাত ঘুমাতে পারিনি। বিষয়টি গুজব হলেও রাতে সবাইকে সতর্ক থাকা প্রয়োজন।

দাড়িয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো.আনসার আলী আসিফ বলেন, ‘রাত ১২টার দিকে মুঠোফোনে বিভিন্ন গ্রাম থেকে ডাকাত আতঙ্কের খবর আসা শুরু হয়। অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ডাকাত আতঙ্কের খবর প্রচার করে। পরে রাতেই পুলশ প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি এটা নিছক একটা গুজব।
সখিপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এএইচএম লুৎফুল কবির বলেন, রাতে কোথাও কোনো ডাকাতির ঘটনা ঘটেনি। সারারাত পুলিশ তৎপর ছিলো। এটা ছিলো গুজব, যা কালিয়াকৈর উপজেলা থেকে শুরু হয়ে মির্জাপুর, বাসাইল, সখিপুর হয়ে ঘাটাইল উপজেলায় গিয়ে শেষ হয়। এছাড়া মাইকিং শুনে বিভিন্ন এলাকায় টহল পুলিশ নিয়ে বের হয়ে টহল জোরদার করা হয়েছে। কোথাও ডাকাতের সত্যতা পাওয়া যায়নি। আজ শুক্রবার মসজিদের ইমামদের সাথে কথা বলে জানিয়ে দেওয়া হবে যে মসজিদের মাইকে গুজব না ছড়িয়ে যেনো সঠিক তথ্য পুলিশকে জানায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন