ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

গাছ চাপায় মাদরাসাছাত্র নিহত

শতাধিক বসতঘর বিধ্বস্ত

খুলনা ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৭ মে, ২০২০, ১২:০৩ এএম

বাগেরহাটের চিতলমারীতে কালবৈশাখী ঝড়ে সপ্তম শ্রেণীর এক আলীয়া মাদরাসা ছাত্র নিহত হয়েছে। এ সময় প্রবল ঝড় ও বৃষ্টিতে ৩০ টি বসতঘর বিধ্বস্ত হয়। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে গাছপালা ও উঠতে পাকা বোরো ধানের। গতকাল বুধবার সকালে উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
চিতলমারী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সোহাগ ঘোষ ও হিজলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী আজমীর আলী জানান, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে কালবৈশাখী ঝড়ে উপজেলার হিজলা গ্রামের আনসার মল্লিকের বসতঘরের উপর চম্বল গাছ ভেঙে পড়ে। এ সময় গাছ চাপা পড়ে তার ছেলে ও হিজলা আলীয়া মাদরাসার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র ইমন মল্লিক (১৪) ঘটনাস্থলে নিহত হয়। এদিন রাতে প্রবল ঝড় ও বৃষ্টিতে কমপক্ষে ৩০ টি বসতঘর বিধ্বস্ত ও ব্যাপক গাছপালা এবং উঠতি পাকা বোরো ধানের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নামাজে জানাযা শেষে হিজলা শেখপাড়া গোরস্থানে নিহত ইমন মল্লিকের দাফন সম্পন্ন হয়।
ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মারুফুল আলম জানান, ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের খোঁজ-খবর নেয়া হয়েছে। এ সময় নিহত ইমনের পিতা আনসার মল্লিকের হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা অনুদান ও খাদ্য সহয়তা প্রদান করা হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে তাকে আরও ১৫ হাজার টাকা প্রদান এবং ঘর মেরামতের ব্যবস্থা করে দেয়া হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
এদিকে মংলার মিঠাখালী ও চাঁদপাই ইউনিয়নে গতকাল বুধবার সকালে কালবৈশাখীর ছোবলে অন্তত ৩৬টি ঘরবাড়ি লন্ডভন্ড হয়েছে। এসময় ভেঙে পড়েছে বহু গাছ। বন্ধ হয়ে যায় বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। বুধবার সকাল সারে ৬টার দিকে আচমকা দমকা হাওয়া ও বৃষ্ঠি শুরু হয় ।
এসময় মংলা উপজেলার মিঠাখালী ও চাঁদপাই ইউনিয়েনের বেশকিছু ঘড়বাড়ি ভেঙে যায়। তবে কোন প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। ঝড়ের ছোবলে পড়েছে মংলার তরুন সাংবাদিক মো. বাইজিদ হোসেনের বসতভিটা ও গাছপালা। ঝড়ের প্রভাবে সকাল থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মংলার বিদ্যুত সরবরাহ বন্ধ ছিল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন