বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

আশাই ছেড়ে দিয়েছেন ওয়ার্নার!

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ মে, ২০২০, ১২:০১ এএম

করোনাভাইরাস মহামারিতে ক্রিকেট বিশ্বের চলমান স্থবিরতা কবে কাটবে, তা বলার উপায় নেই। একের পর এক সিরিজ স্থগিতের স্রােতে অক্টোবরে হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়েও দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। আয়োজক দেশ অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারেরও বাস্তবতা দেখে মনে হচ্ছে, ভেস্তে যাবে বিশ্বকাপও।
গতপরশু রাতে ইন্সটাগ্রামে রোহিত শর্মার সঙ্গে আড্ডায় মেতেছিলেন ওয়ার্নার। সেখানেই প্রসঙ্গক্রমে আসে বিশ্বকাপের কথা। এখনো পাঁচ মাস বাকি থাকলেও ওয়ার্নার মনে করছেন বাস্তবতা বিশ্বকাপের মতো আসরের অনুকূলে নেই, ‘চলমান পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে না, এবার আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে। ১৬ দল অংশ নেবে। সবাইকে একসঙ্গে করে আয়োজন করা খুবই কঠিন।’ যদিও বিশ্বকাপ ঠিক সময়ে আয়োজন করা নিয়ে এখনো আশাবাদি আইসিসি ও আয়োজক অস্ট্রেলিয়া।
বিশ্বকাপের পর পরই অস্ট্রেলিয়ার মাঠে ভারতের একটি দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আছে। সেই সিরিজ নিয়ে এখন থেকেই অধীর আগ্রহ দুদলের ক্রিকেটারদের। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ভারতের সহ-অধিনায়ক রোহিতের তো তর সইছে না। তিনি মনে করেন আবার ক্রিকেট শুরু হতে পারে ওই সিরিজ দিয়েই, ‘অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে খেলতে পছন্দ করি। ২০১৯ সালে ওখানে আমরা জিতেছিলাম, দারুণ অভিজ্ঞতা। তোমরা (বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে নিষিদ্ধ ছিলেন স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার) অবশ্য ছিলে না সে সিরিজে। আমাদের বোলার, ব্যাটসম্যান সবাই দুর্দান্ত খেলেছিল। এবারও অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে মুখিয়ে আছি। আশা করি দুই বোর্ড একটা সুন্দর সমাধান বের করবে। হয়ত ওই সিরিজ দিয়ে আবার ক্রিকেট শুরু হতে পারে। এটা হতে পারে আকর্ষণীয় ব্যাপার।’
২০১৮-১৯ মৌসুমে সব শেষ অজি সফরে ২-১ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ জেতে বিরাট কোহলির ভারত। ওয়ার্নারও জানান ২০১৯ সালে নিষিদ্ধ থাকায় নিজ দেশে ভারতের বিপক্ষে খেলা হয়নি। এবার সেই আক্ষেপ মেটাতে চান, ‘হ্যাঁ বাইরে থেকে দলের হার দেখতে হয়েছে। আমার জন্য সেটা ছিল কষ্টকর, তবে মনকে সান্ত্বনা দিতাম। তবে বলতেই হয় বাঁহাতি ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে ভারতের পেস আক্রমণ এখন সেরা। আমরাও অপেক্ষায় আছি।’
ভারত-অস্ট্রেলিয়ার এই সিরিজটি সতর্কতামূলক হিসেবে দর্শকবিহীন মাঠে করার কথাবার্তাও চলছে। তবে ক্রিকেটাররা বেশিরভাগই এই চিন্তায় একমত নন। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির মতো ওয়ার্নারও মনে করেন দর্শক মাঠে না থাকলে আসলে খেলে মজা নেই, ‘গত মার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দর্শকবিহীন মাঠে খেলেছিলাম। অদ্ভুত অভিজ্ঞতা ছিল। নিজ দেশে দর্শক মাঠে থাকলেই আসলে খেলায় ছন্দ পাওয়া যায়।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন