ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সব রোগীর চিকিৎসা চেয়ে রিট

বেসরকারি হাসপাতাল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ মে, ২০২০, ১২:০৫ এএম

বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে সকল রোগীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতের নির্দেশনা চেয়ে রিট করা হয়েছে। গতকাল ‘হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পীস ফর বাংলাদেশ’র পক্ষে অ্যাডভোকেট মো. ছারওয়ার আহাদ চৌধুরী এবং অ্যাডভোকেট একলাছউদ্দিন ভুইয়া বাদী হয়ে রিটটি করেন। বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চে সকাল ১১টা ৫৫ মিনিটে রিটটি ফাইল করা হয়। সংস্থার প্রেসিডেন্ট অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ ভিডিও লিংকের মাধ্যমে শিগগিরই এর শুনানি করবেন বলে জানা গেছে।

রিটে বলা হয়, করোনা সংক্রমিত হওয়ার পর দেশের প্রায় সকল বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলো জ¦র, সর্দি, কাঁশি, হৃদরোগ ও কিডনি ডিজিজের মতো সাধারণ রোগের চিকিৎসাও বন্ধ করে দিয়েছে। অথচ করোনা প্রকোপ বৃদ্ধির পরপরই সরকার কিছু সরকারি হাসপাতাল করোনা চিকিৎসার জন্য নির্দিষ্ট করে দিয়েছে। তা সত্তে¡ও সাধারণ রোগের কোনো চিকিৎসা সেবা বেসরকারি হাসপাতালগুলো দিচ্ছে না। সংবাদমাধ্যমের খবর মতে, বেসরকারি হাসপাতালে ও ক্লিনিকে রোগীরা চিকিৎিসা সেবা না পেয়ে রাস্তায় অ্যাম্বুলেন্সেই মারা যাচ্ছেন। এটি বেসরকারি হাসপাতালগুলোর একধরণের স্বেচ্ছাচারিতা। যা অমানবিক এবং সংবিধান পরিপন্থি।

রিটে সকল বেসরকারি হাসপাতালে ও ক্লিনিকে পিসিআর মেশিনে করোনা টেস্টের ব্যবস্থা করার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। প্রতিটি হাসপাতালের প্রবেশপথে হলুদ জোন করে সকল রোগীর চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়। কোনো রোগীর করোনা উপসর্গ থাকলে সাথে সাথে তাকে ওই হাসপাতালে থাকা অবস্থায় পিসিআর ল্যাবে করোনা টেস্ট করে নিশ্চিত হতে হবে। পরবর্তীতে সে অনুযায়ী ওই রোগীকে চিকিৎসা সেবা দানের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। যদি কোন হাসপাতাল ও ক্লিনিকের নিজস্ব পিসিআর মেশিন না থাকে তাহলে নিকটস্থ হাসপাতালে যেখানে পিসিআর ল্যাব রয়েছে সেখান থেকে টেস্টের ব্যবস্থা করতে হবে। হলুদ জোনে দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্যদের চিকিৎসার জন্য প্রযোজনীয় পিপিই, গ্লাভস, সার্জিক্যাল মাস্ক, অন্যান্য স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী নিশ্চিত করারও নির্দেশনা চাওয়া হয় রিটে।

এছাড়া আদালতের আদেশে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৮ এর ৬ ধারা অনুসারে গঠিত উপদেষ্টা কমিটি করোনা প্রতিরোধে কি কি কার্যক্রম গ্রহণ বা সুপারিশ করা হয়েছে তার একটি প্রতিবেদন আদালতে দাখিলের জন্য নির্দেশনা চাওয়া হয় রিটে। উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারম্যান, স্বাস্থ্য সচিব, ডিজি হেলথ, অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল), বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক মালিক সমিতিকে বিবাদী করা হয়েছে রিটে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন