ঢাকা, সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৮ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

শিল্প-সেবা খাতে ঋণ দিতে ১৪ ব্যাংকের চুক্তি সই

১৫ হাজার কোটি টাকার পুনঃঅর্থায়ন স্কিম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০২০, ১২:০১ এএম

করোনার প্রকোপ মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজে শিল্প ও সেবা খাতের জন্য ৩০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়। এর মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিজস্ব উৎসে ১৫ হাজার কোটি টাকার একটি আবর্তনশীল পুনঃঅর্থায়ন স্কিম গঠন করা হয়। ওই তহবিল থেকে উদ্যোক্তাদের মধ্যে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যে ১৪ সরকারি-বেসরকারী ব্যাংকের সঙ্গে অংশগ্রহন চুক্তি সম্পন্ন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। গতকাল সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের সভাকক্ষে এ চুক্তি অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মো. মাসুদ বিশ্বাসসহ ১৪ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় ব্যাংকগুলো মাত্র সাড়ে ৪ শতাংশ সুদে এ তহবিল থেকে পুনঃঅর্থায়ন নিতে পারবে। আর সাড়ে ৪ শতাংশ নেওয়া হবে গ্রাহক থেকে। অংশগ্রহন চুক্তি সম্পন্ন করা ব্যাংকগুলো হচ্ছে-রাষ্ট্রায়ত্ব সোনালী, অগ্রণী ও রূপালী ব্যাংক। বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মধ্যে ঢাকা, শাহজালাল, ট্রাস্ট, ইউনিয়ন, সাউথবাংলা এগ্রিকালচার এ্যান্ড কমার্স, সাউথইস্ট, এনআরবি কমার্শিয়াল, এনআরবি গ্লােবাল, ওয়ান, মার্কেন্টাইল ও কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন।
এর আগে গত ২৩ এপ্রিল এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এতে বলা হয়েছে, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো নিজস্ব তহবিল থেকে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প ও সেবা খাতের প্রতিষ্ঠানে ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে চলতি মূলধন ঋণ দেবে। উক্ত আর্থিক সহায়তা প্যাকেজের তারল্য সরবরাহ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিজস্ব উৎসে ১৫ হাজার কোটি টাকার একটি আবর্তনশীল পুনঃঅর্থায়ন স্কিম গঠন করা হয়েছে। এ স্কিম থেকে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের বিতরণের ৫০ শতাংশ অর্থ পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা দেওয়া হবে। এ স্কিমের মেয়াদ হবে তিন বছর। নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো এ স্কিম থেকে মাত্র সাড়ে ৪ শতাংশ সুদে পুনঃঅর্থায়ন পাবে। পুনঃঅর্থায়ন নেওয়ার একবছর পর থেকে মার্চ, জুন, সেপ্টেম্বর ও ডিসেম্বও এভাবে ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে সুদসহ পরিশোধ করতে হবে।
এতে আরও বলা হয়েছে, ব্যাংকগুলো ঋণ বিতরণের পরবর্তী মাসের ১০ তারিখের মধ্যে আগের মাসে বিতরণের মোট অর্থেও ৫০ শতাংশের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে আবেদন করবে। এভাবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান ৩ বছর পর্যন্ত নিজস্ব সীমার মধ্যে পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা নিতে পারবে। পুনঃঅর্থায়নের অর্থ একবছর পর থেকে সর্বশেষ ত্রৈমাসিকের সুদসহ বাংলাদেশ ব্যাংককে পরিশোধ করতে হবে। গ্রাহক পর্যায়ে ঋণ বিতরণ বা আদায়ের সকল দায়-দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের ওপর ন্যস্ত থাকবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন